The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/12/which-work-more-demand-saudi.html

সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি? বিস্তারিত জানুন

বর্তমানে বহুসংখ্যক কর্মী কাজের ভিসায় সৌদি আরব যাচ্ছে।কিন্তু এর মধ্যে অনেকেই আছে যারা সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না যে কোন কাজে তারা সৌদি আরবে যাবে বা সেখানে কোন ধরনের কাজের চাহিদা বেশি।তাই অনেকেই সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে জানতে আগ্রহী।বর্তমান প্রযুক্তির যুগে ঘরে বসেই সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে সকল তথ্য জানা সম্ভব। ঢাকা বিশববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করবো সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি সে সম্পর্কে । তাই সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমাদের আর্টিকেলটি স্কিপ না করে সম্পূর্ণ পড়ুন।

আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. সৌদি আরব কাজের ভিসা
  2. সৌদি আরবে কাজের বেতন কত
  3. সৌদি আরবে যেসব কাজের চাহিদা বেশি
  4. সৌদি আরবে ভিসা আবেদনের প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস
  5. সৌদি আরবে বাঙালিরা কি কি কাজ
  6. সৌদি আরব যেতে কত টাকা লাগে
  7. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর
  8. লেখকের মন্তব্য

১. সৌদি আরব কাজের ভিসা|সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি 

পৃথিবীতে মানুষ বেচেঁ থাকার জন্য কত ধরনের কাজ করে থাকে।কোনো কোনো সময়ে দেখা যায় নিজ দেশের বাইরে গিয়ে ও জীবিকা নির্বাহের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।এক্ষেত্রে সৌদি আরবের ভূমিকা অপরিসীম।
সৌদি আরবে প্রতিবছর হাজার হাজার শ্রমিক পাড়ি জমায়। বর্তমানে বহুসংখ্যক লোক কাজের ভিসা কিংবা অন্যান্য ভিসায় সৌদি আরবে যাচ্ছে।যেকোনো দেশে যেতে হলেই আপনাকে ভিসা নিতে হবে।বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের কাজের জন্য সৌদি সরকার কাজের ভিসায় শ্রমিক নিয়োগ করছে। বাঙালিরা সাধারণত সৌদি আরবে অটোমোবাইল,গার্ডেন,কনস্ট্রাকশন, ক্লিনার সিপিআর এসব কাজ গুলো করে থাকে। তাই সৌদি আরবে যেতে হলে আপনাকে অবশ্যই প্রবাসী শাখা বা সৌদি আরবে কোনো আত্মীয় থাকলে তাদের মাধ্যমে যেতে হবে। কারণ যদি দালালের মাধ্যমে যান তাহলে তুলনামূলক খরচ বেশি পড়বে।
এছাড়াও সৌদি আরবে শ্রমিকের কাজের উপর ভিত্তি করে তাদের বেতনের তারতম্য হয়ে থাকে।

২. সৌদি আরবে কাজের বেতন কত|সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি 

অনেকেই আছে যারা সৌদী আরবে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বা এর মধ্যে যারা গিয়েছে তারা অনেকেই সঠিকভাবে জানে না যে সেখানে শ্রমিকের মাসিক বেতন কত করে।তাই আজকে এই অংশে আলোচনা করবো সৌদি আরবে শ্রমিকের বেতন কত সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য -
প্রত্যেকটি দেশে তাদের নিজস্ব শ্রম আইন অনুযায়ী সে দেশের শ্রমিকদের সঠিক একটি বেতন কাঠামো নির্ধারণ করে থাকে।ঠিক তেমনি সৌদি আরবে ও শ্রমিকের নির্ধারিত বেতন কাঠামো রয়েছে। এছাড়াও সৌদী আরবে সাধারণত শ্রমিক কি ধরনের কাজ করে তার উপর নির্ভর করে বেতন এর পার্থক্য হয়ে থাকে।

বর্তমানে সৌদি আরবের সরকার  সর্বনিম্ন মজুরি নির্ধারণ করেছে।  সৌদি শ্রম বাজারে শ্রমিকের  সর্বনিম্ন মজুরি হবে আনুমানিক প্রায় ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার সৌদি রিয়াল।অর্থাৎ বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬৮ হাজার থেকে ৮৮  হাজার টাকার পরিমাণ। সরকার নির্ধারিত সৌদি শ্রমবাজারে এই  বেতন কাঠামো দেশের সব নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রেই সমানভাবে কার্যকর হবে।


৩. সৌদি আরবে যেসব কাজের চাহিদা বেশি|সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি 

যারা সৌদি আরবে কাজের ভিসায় যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বা গিয়েছে তারা অনেকেই সঠিকভাবে জানে না সৌদি আরবে কোন কোন কাজের চাহিদা বেশি সে সম্পর্কে । নিম্নে আলোচনা করা হলো সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য -
  • অটোমোবাইল
  • রেস্টুরেন্টে কাজ
  • ইলেকট্রনিক্স
  • নির্মাণ কাজ
  • পাইপ ফিটার
  • হোটেল জব
  • ড্রাইভিং
সাধারণত এসব কাজগুলোর চাহিদা সৌদি আরবে অনেক বেশি। তাই এই কাজগুলোর বেতনও তুলনামূলক বেশি দিয়ে থাকে। আশা করি সৌদি আরবে কোন কাজের বা কোন কাজগুলো চাহিদা বেশি আপনারা বুঝতে পেরেছেন সে সম্পর্কে।

৪. সৌদি আরবে ভিসা আবেদনের প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস|সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি 

সৌদি আরবে যেতে কি কি ডকুমেন্ট বা যোগ্যতা প্রয়োজন:
সৌদি আরবে যেতে হলে প্রয়োজনীয় কি কি কাগজপত্র লাগবে সে সম্পর্কে অনেকেই জানতে চায়।তাই আজকে এই অংশে আলোচনা করবো সৌদি আরবে যেতে কি কি ডকুমেন্ট দরকার হয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত সব তথ্য -
  • সৌদি আরবে যেতে সর্বপ্রথম আপনার একটি বৈধ পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • এবং সেই পাসপোর্টের মেয়াদ সর্বনিম্ন 6 মাস থাকতে হবে।
  • পাসপোর্ট সাইজ এর ছবি।
  • আপনার এনআইডি কার্ড লাগবে যদি থাকে।
  • এছড়াও লাগবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট 
  • আপনার একটি মেডিকেল রিপোর্ট এর প্রয়োজন হবে।
  • করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছেন এর প্রমাণপত্র হিসেবে টিকা কার্ড বা সনদ পত্র এর প্রয়োজন হবে।
  • একটি ব্যাংক একাউন্ট 
  • টাকা প্রদানের রশিদ ও চুক্তিপত্র
  • কাজের অভিজ্ঞতা ও প্রমাণপত্র
  • আবেদনকারীর সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত তথ্য
সাধারণত এই ডকুমেন্ট গুলো লাগে যেকোনো দেশে আবেদন করতে হলে সেই রকম সৌদি আরবে যেতে হলেও।তবে এছাড়াও যদি অন্য আরও কোনো কাগজপত্র লাগে সেক্ষেত্রে এম্ব্যাসি থেকে আপনে জানতে পারবেন। আশা করি,বুঝতে পেরেছেন আপনারা সৌদি আরবে আবেদন করতে কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন হয় তার বিস্তারিত তথ্য সম্পর্কে।

৫. সৌদি আরবে বাঙালিরা কি কি কাজ |সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি 


বর্তমানে সৌদি আরবে ব্যাপক পরিমাণে বাঙালিরা যাচ্ছে।অনেকেই আছে যারা সৌদি আরবে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা জানতে চায় সেখানে মূলত বাঙালিরা কি কি কাজ করে থাকে সে সম্পর্কে।এই অংশে আলোচনা করবো বাঙালিরা সৌদি আরবে কি কি কাজ করে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য -  
  • ক্লিনার
  • অটোমোবাইল
  • ড্রাইভিং
  • রেস্টুরেন্টে কাজ
  • নির্মাণ কাজ
  • হোটেলের জব
  • পাইপ ফিটার
  • কনস্ট্রাকশন সেকশনে
সৌদি আরবে সাধারণত বাঙালিরা এই কাজগুলো করে থাকে।এবং এসব কাজের বেতন ও তুলনামূলক বেশি। 

৬. সৌদি আরব যেতে কত টাকা লাগে|সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি

বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে সৌদি আরবে বহুসংখ্যক শ্রমিক কাজের ভিসায় যাচ্ছে। অনেকেই আছে কাজের ভিসায় সৌদি আরবে যেতে কত টাকা লাগে সে সম্পর্কে সঠিকভাবে জানে না। তাই আজকে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করবো সৌদি আরব যেতে কত টাকা লাগে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য -
সাধারণত সৌদি আরবে কাজের ভিসায় শ্রমিক যাওয়ার জনপ্রতি খরচ পড়বে প্রায় ১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা,যা সরকারি ভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে।তবে যদি কোনো ব্যক্তি বা দালাল এর থেকে বেশি টাকা দাবি করে তাহলে সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

৭. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর 

প্রশ্ন ১: সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি?

উত্তর:অটোমোবাইল,রেস্টুরেন্টে কাজ,ইলেকট্রনিক্স

প্রশ্ন ২: সৌদি যেতে কত টাকা লাগে?

উত্তর: ১ লাখ ৬৫ হাজার টাকার মতো।

প্রশ্ন ৩: সৌদি আরবে কাজের বেতন কত?

উত্তর:প্রায় ৬৫ থেকে ৯০ হাজার টাকা।

প্রশ্ন ৪:সৌদি তে বাঙালিরা কি কাজ করে?

উত্তর:ক্লিনার,অটোমোবাইল,ড্রাইভিং,রেস্টুরেন্টে কাজ।


৮. লেখকের মন্তব্য

প্রিয় পাঠক, আজকে আমরা আপনাদের সাথে সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে বা যেকোনো বিষয়ে আপনাদের কোনো অভিযোগ বা মতামত নিচের কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন। ঢাকা বিশববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন The DU Speech এর সাথেই থাকবেন। সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে হোক বা যেকোনো বিষয়ে আমরা আপনাদের মতামতকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করবো ।


লেখক: খাদিজা খা
পড়াশোনা করছেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় 
জেলা: শরিয়তপুর



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা
মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন
পড়াশোনা করছেন:  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। 
জেলা: নাটোর

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?