The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/12/bank-account-from-saudi-arab.html

সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় | বিদেশ থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় জানুন

বিদেশ থেকে অনেক মানুষ বাংলাদেশের ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে চান। কিন্তু অনেকেরই সঠিক উপায় জানা না থাকার কারণে আর অ্যাকাউন্ট খোলা হয় না। তাই আজকে আমরা আপনাদের সাথে আলোচনা করবো সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় নিয়ে। আপনারা অনেকেই সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় সম্পর্কে জানতে আগ্রহী। তাই আজকে আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় সম্পর্কিত একটি আর্টিকেল।আশা করি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি ভালোভাবে পড়ার মাধ্যমে আপনারা সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে পারবেন।

আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. বিদেশ থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট
  2. প্রয়োজনীয় জিনিস
  3. যেসব ব্যাংকে একাউন্ট খোলা যাবে
  4. একাউন্ট নিয়ন্ত্রণ ও চার্জ
  5. মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম
  6. ব্যাংক একাউন্ট থাকার সুবিধা
  7. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর
  8. লেখকের মন্তব্য

১.বিদেশ থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট | সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

আপনি বিদেশে আছেন কিন্তু ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই। কষ্ট করে উপার্জিত‌ সকল অর্থ দেশে পরিবারের কাছে পাঠিয়ে দেন, দেশে যাওয়ার পর টাকা চাইলে সে সময় দেখা যায় তাদের কাছ থেকে টাকা পান না বা ঐ ভাবে সেভিংস থাকে না, খরচ হয়ে যায়। দেশে পরিবারের কাছে টাকা পাঠানোর পাশাপাশি বিদেশ থেকেই ব্যাংক একাউন্ট খুলে সঞ্চয় করতে পারেন। যা দেশে যাওয়ার পর আপনার অবশ্যই কাজে আগবে । বেশ কিছু ব্যাংক অনলাইনে একাউন্ট খোলার সেবা নিয়ে এসেছে।যা মাত্র ২ মিনিটের মধ্যেই সম্ভব হয়ে থাকবে। প্রতিটি ব্যাংকের অনলাইনে একাউন্ট খোলার এপপ্স আছে, প্রতিটি ব্যাংকের একাউন্ট খোলার ধরণ প্রায় একই রকম। বর্তমান সময়ে দেশ বা বিদেশ কিংবা বিশ্বের যে কোন দেশ থেকে ব্যাংক একাউন্ট করা অনেকটা সহজ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

২.প্রয়োজনীয় জিনিস | সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খুলতে বেশ কিছু জিনিস প্রয়োজন হবে। এই সকল প্রয়োজনীয় জিনিস নিয়ে আমরা নিচে আলোচনা করছি।
  • একটি বাংলাদেশী নাম্বার, আর সেটাতে রোমিং অপশন চালু থাকতে হবে। যদি রোমিং চালু না থাকে , দেশে থাকা আপনার পরিবারের সদস্যদের মাঝে মা, বাবা, ভাই, বোনের যেকারো নাম্বার হলেই হবে ও নিজের একটি ইমেইল বা জিমেইল ।
  • আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র বা ন্যাশনাল আইডি।
  • নমীনির জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন ও তার সদ্য তোলা ছবি ।নমীনি আপনি চাইলে আপনার পরিবারের যেকোন সদস্যদের দিতে পারেন । নমীনির কাজ হল, একাউন্ট ধারী মারা গেলে নমীনি একাউন্টে থাকা টাকা উত্তোলন করতে পারবে।
  • বাংলাদেশ সার্ভার যুক্ত ভিপিএন,খেয়াল রাখবেন তা যেন সিকিউর হয়।

৩.যেসব ব্যাংকে একাউন্ট খোলা যাবে |সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের যে সকল ব্যাংকে একাউন্ট খোলা যাবে তা নিয়ে নিচে আলোচনা করা হলো।
  • সিটি ব্যাংক Ekhoni Account App । সিটি ব্যাংকের ক্ষেত্রে মাসিক ১ লাখ টাকার বেশি একাউন্টে লেনদেনের ক্ষেত্রে ইনকাম সোর্সের পেপার লাগবে, তবে মাসিক ১ লাখ টাকার কম লেনদেন করলে ইনকাম সোর্সের পেপার লাগবে না ।
  • ইসলামী ব্যাংক Cellfin App ।
  • স্যোসাল ইসলামী ব্যাংক SIBL Now App । উপরোক্ত এই তিন ব্যাংকের একাউন্ট অনলাইনে খোলার সাথেই একটিভ হয়ে যাবে ও লেনদেন করা যাবে।
  • সোনালী ব্যাংকের Sonali Esheba App দিয়ে। তবে এই ব্যাংকের এপ্স দিয়ে অনলাইনে একাউন্ট খুললে, খোলার তিন মাসের মধ্যে গ্রাহকদের সেই শাখায় গিয়ে বেশ কিছু পেপারস দিয়ে একটিভ করতে হয়।

৪. একাউন্ট নিয়ন্ত্রণ ও চার্জ | সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

Islami Bank ibbl ismart, City Bank City Touch, Social Islami Bank SIBL Now অ্যাপ্সের মাধ্যমে তাদের গ্রাহকদের বিদেশে বা দেশে থাকা অবস্থায় ইন্টারনেট ব্যাংকিং বা অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে লেনদেনের সুযোগ দিলেও সোনালী ব্যাংক এখন তা দিচ্ছে না। আর সকল ব্যাংকের একাউন্টে টাকার স্থিতির ওপর ভিত্তি করে একাউন্ট মেইনটেইন্স চার্জ বছরে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা + ১৫% সরকারি ভ্যাট কাটে ও SMS Banking চার্জ কেটে থাকে।তবে অনলাইন ব্যাংকিং ফ্রী, যদি গ্রাহক ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড ও চেক বই নিয়ে থাকে ব্যাংকে গুলো চার্জ কাটে ।

৫. মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম | সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

এই অংশে আমরা আপনাদের জানাবো মোবাইল দিয়ে কিভাবে সৌদি আরব থেকে অনলাইনে মাধ্যমে ব্যাংক একাউন্ট খুলতে পারবেন। তাহলে দেখে নেয়া যাক মোবাইল দিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে ব্যাংক একাউন্ট খুলবেন।
  1. প্রথমেই আপনার পছন্দের ওপর ভিত্তি করে বাংলাদেশ সার্ভার যুক্ত ভিপিএন ওপেন বাংলাদেশ সার্ভার কানেক্ট করে নিবেন। এর পর যেকোন ব্যাংকের এ্যাপস নামিয়ে ওপেন করে সেখানে একটি বাংলাদেশী নাম্বার দিতে হবে( আপনার সিমে রোমিং চালু না থাকলে দেশে থাকা পরিবারের সদস্য পিতা, মাতা, ভাই বা বোনের নাম্বার দিবেন)। আর সেই নাম্বারে একটি কোড যাবে, দেশে সিম থাকলে ইমু বা ফেসবুক ম্যাসেন্জারের মাধ্যমে কোড টি আপনার বিদেশে থাকা‌ ফোনে সেন্ড করতে বলবেন (এই প্রসেস ৩০ সেকেন্ড সময়ের মধ্যে বা  যত তাড়াতাড়ি শেষ করা যায় ভাল ) আর কোডটি ব্যাংক একাউন্ট খোলার অ্যাপে দিয়ে দিবেন ।
  2. এর পরবর্তীতে আপনার নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র উভয় পাতার ছবি আপলোড করলে, অটোমেটিক সব ডিটেইলস অ্যাপ ব্যাংকের সার্ভারে পাঠিয়ে দিবে। এরপর আপনার নিজের একটি সেলফি তুলে নিবেন ।
  3. সবার শেষে নমীনির জাতীয়‌ পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধনের ছবি ও নমীনির পাসপোর্ট সাইজের ছবি আপলোড করতে হবে। চাইলে নমীনি যেকোন সময় পরিবর্তন করা যায়।

৬.ব্যাংক একাউন্ট থাকার সুবিধা | সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

ব্যাংক একাউন্ট থাকাটা এখন একরকম অপরিহার্য ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। নিত্য দিনের অজস্র প্রয়োজনীয় কাজকর্ম ব্যাংকের মাধ্যমে করতে হয়। আপনার টাকার নিরাপদ আবাসস্থল হতে পারে ব্যাংক। এছাড়া বিভিন্ন রকম টাকা-পয়সার লেনদেন করতে হয় ব্যাংকের মাধ্যমেই। তাই ব্যাংক একাউন্ট না থাকার মানেই হচ্ছে আপনি অন্যদের চেয়ে বেশ খানিকটা পিছিয়ে আছেন। কাজেই, ব্যাংক একাউন্ট না থাকলে দ্রুত একটি একাউন্ট খুলে নেওয়া আসলেই জরুরী।

অনেকেরই ধারণা, ব্যাংক একাউন্ট খোলার মতো ঝামেলার কাজ বোধহয় আর দ্বিতীয়টি নেই। এই ঝামেলা এড়ানোর জন্য অনেকেই ব্যাংক একাউন্ট খুলতে আগ্রহী হন না। সত্যি বলতে কী, ব্যাংক একাউন্ট খোলা মোটেও তেমন একটা ঝামেলার কাজ না। বিষয়টি সম্পর্কে আমাদের জানা না থাকার কারণেই এমন অমূলক ধারণা সৃষ্টি হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, খুব সহজেই একটি ব্যাংক একাউন্ট খুলে ফেলা যায়। 

৭. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর | সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় সম্পর্কে আপনাদের অনেকের অনেক রকম প্রশ্ন থাকে। তাই এই অংশে আমরা কিছু প্রশ্নের উত্তর নিয়ে আলোচনা করবো। 

প্রশ্ন ১: সিটি ব্যাংকের একাউন্ট খুলতে হলে  কোন অ্যাপের মাধ্যমে খুলতে হবে?

উত্তর: Ekhoni Account App.

প্রশ্ন ২: ইসলামী ব্যাংকের একাউন্ট কোন অ্যাপের মাধ্যমে খোলা যাবে?

উত্তর:Cellfin App.

প্রশ্ন ৩: সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খুলতে হলে ভিপিএন এর প্রয়োজন আছে কিনা?

উত্তর: সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে হলে অবশ্যই ভিপিএন লাগবে।

৮. লেখকের মন্তব্য | সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায়

সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় সম্পর্কে আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করলাম আজকে। আশা করছি সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় সম্পর্কিত সকল কিছু আপনারা বুঝতে পেরেছেন। সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট খোলার উপায় সম্পর্কে আপনার মতামত অবশ্যই আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।এই সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে সেটিও আমাদেরকে জানাবেন।
আর্টিকেলটি লিখেছেন: নুসরাত জাহান হিভা 
পড়াশোনা করছেন: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় 
লেখকের জেলার নাম: কুমিল্লা



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা
মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন
পড়াশোনা করছেন:  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। 
জেলা: নাটোর

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?