The DU Speech https://www.duspeech.com/2023/01/russia-vromon-visa.html

রাশিয়া ভ্রমণ বা টুরিস্ট ভিসা ২০২৩ সম্পর্কে বিস্তারিত

পৃথিবীর অন্যতম সুন্দর দেশগুলোর মধ্যে একটি দেশ হল রাশিয়া । আমাদের দেশের অনেক মানুষ সেই দেশে তাদের পরিবার নিয়ে ভ্রমণ করার স্বপ্ন দেখে কিন্তু রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ সালে কিভাবে আবেদন করবে এবং এর খরচ কত হবে এই নিয়ে তাদের কোন ধারনা নেই । তাই তাদের মনের সকল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে এবং তাদের কাজকে আর সহজ করতেই মূলত রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ এই নিবন্ধনটি লেখা। এখানে  ইরাশিয়া ভ্রমণ ভিসা  খরচ,কিভাবে আবেদন করবে, ভিসার প্রক্রিয়া- এসব বিষয়ের উত্তর পাবেন রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ আর্টিকেলে। তাই সাথেই থাকুন।

আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. রাশিয়ায় কেন ভ্রমন করবেন।
  2. রাশিয়া টুরিস্ট ভিসা আবেদনের নিয়ম।
  3. রাশিয়ার ট্যুরিস্ট ভিসা কবে হাতে পাবেন
  4. রাশিয়া ভ্রমন ভিসা জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস।
  5. রাশিয়ায় কোথায় ভ্রমণ করবেন।
  6. রাশিয়া ভ্রমণ খরচ |
  7. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর
  8. লেখকের মন্তব্য

১.রাশিয়ায় কেন ভ্রমন করবেন। রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩

রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ সালে পেয়ে কেন যাবেন রাশিয়ায় তা জানতে পারবেন রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ লেখার এই পর্বে। আপনারা অনেকেই হয়তো ব্যবসার কাজে বা নানান রকম কাজে গিয়ে থাকেন। তবে বেশিরভাগ মানুষ রাশিয়ায় তার সৌন্দর্যে কারণে গিয়ে থাকে। রাশিয়া এমন একটি দেশ যেখানে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা যা থেকে মানুষের মনে এক আনন্দের জন্ম দেয়। 

এবং সেখানকার জীবন যাপন অনেকটাই ভিন্ন এ সকল ভিন্ন মানের জ্ঞান বৃদ্ধি জন্যও অনেক মানুষ রাশিয়ায় যাচ্ছে যা থেকে মানুষ সেই রাশিয়ার কালচার সম্পর্কে ধারণা পায়। বিশ্বের বৃহত্তম এই দেশটিতে দেখার আছে অনেক কিছু। প্রাকৃতিক বৈচিত্রে ভরপুর এই দেশটি আমাদের দৈনন্দিন জীবন থেকে সম্পূর্ন আলাদা। রাশিয়ার একটি বৃহৎ অংশ জুড়ে রয়েছে বরফে মোড়ানো হীমশীতল সাইবেরিয় অঞ্চল। সেখানকার মানুষের বেচে থাকার লড়াইটাও বৈচিত্রময়।

২.রাশিয়া টুরিস্ট ভিসা আবেদনের নিয়ম। রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩

রাশিয়ার ভিজিট ভিসা করতে আপনাকে প্রথমত রাশিয়ার ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমে আপনাকে আমন্ত্রণ সংগ্রহ করা লাগবে। এবং যে ব্যক্তি রাশিয়ার ভিসা নেবে সেই ব্যক্তির ব্যক্তিগত রিকোয়ারমেন্ট জমা দিতে হবে তার সাথে আপনি রাশিয়ার কোন শহরে যাবেন এবং কতদিন সেখানে অবস্থান করবেন এই সম্পর্কিত সকল তথ্যগুলো সেখানে উল্লেখ করতে হবে।এবং আপনার ভিসা করার কাগজ গুলোতে কোন রকম ভুল থাকলে ভিসা বাতিল করতে হবে কোনভাবে  সম্ভব হবে না।আপনি যখন আমন্ত্রণ পাবেন তখন আপনাকে ভিসা প্রাপ্তির জন্য ইন্টারভিউ দিতে হবে। ইন্টারভিউ চলাকালীন আপনাকে অনেক কিছু করতে হবে যেমন,, 

  • এইচ আই ভি টেস্ট করতে হবে। 
  • ছবি শেয়ার এবং টিকিটের ফটোকপি করতে হবে। 
  • হোটেল এবং আনুষঙ্গিক আরো যে সকল কার্যক্রম সেগুলো উল্লেখ করতে হবে। 
 আপনি যখন ভিসাটি করতে দেবেন। তখন সঙ্গে সঙ্গে কখনো আপনি ভিসাটি পাবেন না। আপনাকে এর জন্য অনেক সময় অপেক্ষা করতে হবে।তাই ঠিকঠাক সময় অনুযায়ী ভিসাটি করতে দিবেন। যেন সময় মতো বিষয়টি আপনার হাতে চলে আসে। এবং সেই সাথে আপনি ভ্রমণের উদ্দেশ্যে রওনা দিতে পারেন।এখন আপনার টুরিস্ট ভিসা করতে কি কি কাগজ প্রয়োজন হবে এই সমস্ত বিষয়গুলো নিচে উল্লেখ করা হলো। টুরিস্ট ভিসা আবেদনের ফ্রম এম্বাসি থেকে আপনাকে কিনতে হবে না এই ফর্মটি আপনি বিনামূল্যেই পেয়ে যাবেন।

৩.রাশিয়ার ট্যুরিস্ট ভিসা কবে হাতে পাবেন।রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩

রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ সালের জন্য আপনি আবেদন করেন তাহলে সে আবেদনের পর আপনাকে ইন্টারভিউ এর জন্য যেতে হবে। তবে ইন্টারভিউ দিতে আপনাকে কোন সিরিয়াল দিতে হবে না সেখান থেকেই নির্ধারিত সময় অনুযায়ী আপনার ইন্টারভিউ নেয়া হবে। এবং ইন্টারভিউ শেষে বিচার জন্য ৪ হাজার টাকা সেখানে জমা করতে হবে। 

সব কিছু যদি ঠিকঠাক ভাবে হয়ে থাকে তাহলে সাত থেকে ১৪ দিনের মধ্যে আপনি আপনার ভিসা হাতে পাবেন। রাশিয়ায় ভ্রমণ খরচের জন্য আপনি আপনার প্রয়োজন মত খরচ করতে পারবেন সেখানে নিম্ন থেকে ফাইভ স্টার পর্যন্ত হোটেল আছে যেগুলো আপনি আপনার সাধ্য অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারবেন।একটি ভালো মানের ফাইভ স্টার হোটেল থাকতে গেলে আপনাকে ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকা খরচ করতে হবে। যার বিনিময় হোটেল থেকে আপনি ভালো মানের খাবার এবং উন্নত সেবা পাবেন।

৪.রাশিয়া ভ্রমন ভিসা জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস। রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ 

রাশিয়া ভ্রমন ভিসা জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস কি কি লাগবে তা জানতে পারবেন  রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ লিখার এই পর্যায়ে,
  • ১.পাসপোর্ট: সর্বনিম্ন 6 (ছয়) মাসের বৈধতা সহ আসল পাসপোর্ট এবং ভিসার স্ট্যাম্পের জন্য সর্বনিম্ন দুটি ফাঁকা পৃষ্ঠা।
      1. ক। পূর্ববর্তী পাসপোর্ট এবং ভিসার অনুলিপি
      2. খ। আপনার সমস্ত পুরানো পাসপোর্ট সংযুক্ত করুন (যদি থাকে)।
  • ২. রাশিয়া ভিসা আবেদন ফর্ম: ভিসার আবেদন ফর্মটি পূরণ করতে হবে এবং আবেদনকারীকে স্বাক্ষর করতে হবে।
  • ৩. ফটো নির্দিষ্টকরণ: সেমি ম্যাট ফিনিস সহ দুটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি। দয়া করে দ্রষ্টব্য: ফটোগ্রাফটি 3 মাসের বেশি পুরানো হওয়া উচিত নয়, স্ক্যান করা / স্ট্যাপলড হওয়া উচিত এবং আগের কোনও ভিসায় ব্যবহার করা উচিত নয়।
  • ৪. কাভার লেটার: আবেদনকারীর নাম, পদবি, পাসপোর্ট নম্বর, উদ্দেশ্য এবং ভ্রমণের পুরো ব্যয় ভ্রমণ, আবাসন, ব্যয় ইত্যাদির জন্য কে দায়িত্বে থাকবে সে সম্পর্কে চিঠিটি আকাঙ্ক্ষিত  ভিসা অফিসার, রাশিয়ার দূতাবাস, ঢাকা।
  • ৫. ইনভাইটেশর লেটার: রাশিয়ান ফেডারেশনের পররাষ্ট্র মন্ত্রকের কনস্যুলার বিভাগে নিবন্ধিত একটি রাশিয়ান ট্রাভেল এজেন্সি থেকে প্রাপ্ত ইনভাইটেশর লেটার।
  • 6. ফরোয়ার্ডিং-চিঠি: 
      1. ক। আবেদনকারীর নাম, পদবি, পাসপোর্ট নম্বর, ভ্রমণের সময়সীমা এবং সময় উল্লেখ করে কোম্পানির চিঠির হেডে আবেদনকারীর সংস্থা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে চিঠি / এনওসি ফরওয়ার্ডিং। 
      2. খ। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভিসা অনুরোধ পত্র বা শিক্ষার্থীর কার্ড / স্কুল ভর্তির প্রমাণ (যদি ছাত্র থাকে)
  • ৭. পেশার প্রমাণ: ক। আবেদনকারী যদি প্রথমবারের ভ্রমণকারী বা স্বত্বাধিকারী হয় তবে কোম্পানির নিবন্ধকরণ শংসাপত্র (মূল নোটারিযুক্ত ইংরেজি অনুবাদ এবং মূল ফটোকপি)। খ। অফিস আইডি কার্ডের অনুলিপি এবং ভিজিটিং কার্ডগুলি।
  • ৮. আর্থিক:
      1. ক। ব্যাংকের নাম, ব্যাংকের টেলিফোন নম্বরটি স্পষ্টভাবে উল্লেখ করে গত ছয় মাস ধরে কোম্পানির বা ব্যক্তিগত ব্যাংকের বিবৃতি। 
      2. খ। গত ছয় মাস ধরে বেতন স্লিপ। (যদি কোন)
  • ৯. টিকিট এবং হোটেল সংরক্ষণ: টিকেট ভ্রমণ ও হোটেল বুকিং।

৫.রাশিয়ায় কোথায় ভ্রমণ করবেন। রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ 

রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ সালে যদি যান তাহহলে কোথায় কোথায় ঘুরতে যাবেন তাও জানা প্রয়োজন। রাশিয়াতে ভ্রমণ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ঐতিহাসিক জায়গা রয়েছে যেমন রাজধানী মস্কো, সেন্ট পিটার্সবার্গ, আজান, নিঝর নবব্রত সাইবেরিয়ান সহ অসংখ্য শহর রয়েছে দেখার মত, আর এ সমস্ত জায়গা গুলাতে ঘুরার জন্য অবশ্যই মে থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সবথেকে ভালোসময়।

রাশিয়ার শিল্প সাহিত্য কবি সাহিত্যিক এবং বিজ্ঞান চর্চা আপনাকে মুগ্ধ করে তুলবে এবং এক সমৃদ্ধ জনপদ হল রাশিয়া।সবমিলিয়ে সপ্তাহ খানেক ভ্রমণ করলে আপনার এক লাখ টাকার বেশি খরচ হবেনা আপনি যদি আরাে বেশি দিন সময় নিয়ে বেড়ানো, সেক্ষেত্রে আপনাকে এক লাখ থেকে দেড় লাখ টাকার মধ্যেই অনায়াসে আপনি একমাস যাবত কদিন যাবত সেখানে ভ্রমণ করতে পারবেন।

৬.রাশিয়া ভ্রমণ খরচ | রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ 

রাশিয়ার ভ্রমন খরচ ২০২৩ সালে কেমন হতে পারে তা জানা গুরুত্বপূর্ণ। তাই  আপনি রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ সালে যান তার একটা ধারনা দেয়া হলো। অন্যান্য দেশের তুলনায় রাশিয়াতে ভ্রমণ খরচ অনেকটাই কম। এভারেজ হোটেলকে ভাড়া  1200 রুবেল, তবে ভালো কোন ফাইভ স্টার মানের হোটেলে থাকতে হলে অবশ্যই ১২০০-১৫০০ রুবেল  খরচ করা লাগবে।আর এই সমস্তু হোটেল  গুলো খুবই ভালো। মানের খাবার পাওয়া যায় প্রতিদিনের জন্য ৪০০ রুবেল থেকে ১০০০ রুবেল খরচ পড়বে।আর এখানে যদি বিয়ার কিনতে চান তাহলে 1000 রুবল থেকে শুরু করে 400 রুবল হলে দারুন দারুন সব ব্যান্ডের বিয়ার পাওয়া যাবে।সবমিলিয়ে যদি এখানে 15 দিনে থাকতে চান তাহলে দুই লক্ষাধিক টাকা খরচ হতে পারে পাশাপাশি শপিং সহ অন্যান্য খরচ যদি করতে চান তাহলে এর মধ্যেই হয়ে যাবে আশা করা যায়।

৭. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর 

প্রশ্ন ১: রাশিয়া ভ্রমণ ভিসার জন্য কি ইন্টারভিউ দিতে হবে?

উত্তর: রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা পেতে হলে ইন্টারভিউ দিতে হবে। 

প্রশ্ন ২: রাশিয়া টুরিস্ট আমন্ত্রণপত্রের জন্য কত টাকা খরচ হবে? 

উত্তর: টুরিস্ট আমন্ত্রণপত্রের জন্য ১২ থেকে ১৬ হাজার টাকা খরচ হবে।

প্রশ্ন ৩: রাশিয়ায় সপ্তাহখানে ভ্রমণ খরচ কেমন হবে?

উত্তর:লাখ টাকার মধ্যে সপ্তাহখানেক ঘুরে আসতে পারেন রাশিয়ায়।

৮. লেখকের মন্তব্য

প্রিয় পাঠক, আজকে আমরা আপনাদের সাথে রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। একটি বিষয় মাথায় রাখবেন যে, পরিবার নিয়ে কিছু একান্ত সময় কাটানোর জন্য রাশিয়া কিন্তু আপনার চয়েসের সর্বোত্তম পর্যায়ে থাকতে পারে।রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ সম্পর্কে অথবা যে কোন বিষয়ে আপনাদের কোন অভিযোগ বা মতামত নিজের কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন। আমরা উত্তর দেয়ার চেষ্টা করব।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল সংগঠন The DU Speech এর সাথেই থাকবেন। এবং রাশিয়া ভ্রমণ ভিসা ২০২৩ সম্পর্কে হোক বা অন্য বিষয়ে আমরা আপনার মতামতকে গুরুত্বের সাথে দেখবো। ধন্যবাদ সাথে থাকার জন্য।

লেখক: আলামিন মজুমদার
পড়াশোনা করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা ও তথ্য প্রযুক্তি বিভাগে। তিনি পড়াশোনার পাশাপাশি লেখালেখি করতে পছন্দ করেন।
জেলা: চাঁদপুর 



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা
মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন
পড়াশোনা করছেন:  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে।
জেলা: নাটোর

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?