The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/12/singapore-to-germany.html

সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় ২০২৩ সম্পর্কে বিস্তারিত

আজকে আমরা আলোচনা করবো সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় নিয়ে। সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় সম্পর্কে অনেকেই জানতে চান। সেজন্য আজকে সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় সম্পর্কে সকল তথ্য নিয়ে আলোচনা করা হবে। সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি কিভাবে যাওয়া যাবে এবং গুরুত্বপূর্ণ সকল কিছু জানতে আজকের আর্টিকেলটি ভালোভাবে পড়ুন।

আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. জার্মানি সম্পর্কে ধারণা
  2. জার্মানি ভিসা
  3. সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার ভিসা
  4. জার্মানি ওয়ার্ক পারমিট ভিসা
  5. ভিসা পাওয়ার উপায়
  6. প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
  7. কাজের আবেদন
  8. লেখকের মন্তব্য

১.জার্মানি সম্পর্কে ধারণা | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

ইউরোপের অন্যতম প্রধান শিল্পোন্নত দেশ জার্মানি। এটি ১৬টি রাজ্য নিয়ে গঠিত একটি সংযুক্ত ইউনিয়ন। এটি মধ্য ইউরোপ ও পশ্চিম ইউরোপের একটি দেশ। এই দেশটি উত্তর সীমান্তে উত্তর সাগর ও বাল্টিক সাগরের মাঝখানে এবং দক্ষিণে আল্পস পর্বতমালার মাঝখানে অবস্থিত। জার্মানির পূর্ব সীমান্তে পোল্যান্ড ও চেক প্রজাতন্ত্র, পশ্চিম সীমান্তে ফ্রান্স, লুক্সেমবুর্গ, বেলজিয়াম এবং নেদারল্যান্ড্‌স, উত্তর সীমান্তে ডেনমার্ক এবং দক্ষিণ সীমান্তে অস্ট্রিয়া ও সুইজারল্যান্ড এবং অবস্থিত। জার্মানির ইতিহাস জটিল এবং এর সংস্কৃতি সমৃদ্ধ, তবে ১৮৭১ সালের আগে এটি কোন একক রাষ্ট্র ছিল না। ১৮১৫ থেকে ১৮৬৭ পর্যন্ত জার্মানি একটি কনফেডারেসি এবং ১৮০৬ সালের আগে এটি অনেকগুলি স্বতন্ত্র ও আলাদা রাজ্যের সমষ্টি ছিল।

আয়তনের দিক থেকে জার্মানি ইউরোপের ৭ম বৃহত্তম রাষ্ট্র। উত্তর উত্তর সাগর ও বাল্টিক সাগরের উপকূলীয় নিম্নভূমি থেকে মধ্যভাগের ঢেউ খেলানো পাহাড় ও নদী উপত্যকা এবং তারও দক্ষিণে ঘন অরণ্যাবৃত পর্বত ও বরফাবৃত আল্পস পর্বতমালা দেশটির ভূ-প্রকৃতিকে বৈচিত্র্যময় করেছে। দেশটির মধ্য দিয়ে ইউরোপের অনেকগুলি প্রধান প্রধান নদী যেমন রাইন, দানিউব, এলবে প্রবাহিত হয়েছে এবং দেশটিকে একটি বাণিজ্যিক কেন্দ্রে পরিণত করতে সাহায্য করেছে।

জার্মানি বিশ্বের একটি প্রধান শিল্পোন্নত দেশ। এটির অর্থনীতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র , চীন ও জাপানের পরে বিশ্বের ৪র্থ বৃহত্তম। জার্মানি লোহা, ইস্পাত, যন্ত্রপাতি, সরঞ্জাম এবং মোটরগাড়ি রপ্তানি করে। জার্মানি ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্যতম প্রধান অর্থনৈতিক চালিকাশক্তি।

২.জার্মানি ভিসা | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

জার্মানি হাজার বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্যের এক সমৃদ্ধ দেশ। জার্মানি যে শুধু ইতিহাসে সমৃদ্ধ তা নয়। অর্থনৈতিক উন্নতিও সাধন করেছে দেশটি। কৃষি বিপ্লব, শিল্প বিপ্লব কিংবা আধুনিক প্রযুক্তিতে জার্মানির অবদান রয়েছে।

উন্নত জীবনের জন্য সবাই জার্মানি পাড়ি জমাতে চায়। পরিকল্পনা করলে খুব সহজেই যে যার অবস্থান থেকে জার্মানি যেতে পারেন এবং নিয়ম অনুযায়ী স্থায়ীভাবে বসবাস করতে পারেন। চলুন জেনে নেই কী কী উপায়ে জার্মানি যাওয়া ও বসবাসের সুযোগ পাওয়া যায়।প্রধানত পাঁচটি উপায়ে আপনি জার্মানি বসবাসের সুযোগ পেতে পারেন। প্রথমত- হাইলি কোয়ালিফাইড ওয়ার্কার বা উচ্চ যোগ্যতা সম্পন্ন কর্মী হিসেবে। প্রফেশনাল, গবেষক, ছাত্র, ভলেন্টিয়ার বা অবৈতনিক কর্মী হিসেবে এ সুযোগ পাওয়া যাবে।

৩.সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার ভিসা | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

প্রথম অবস্থায় আপনাকে আগে জানতে হবে যে আপনি সিঙ্গাপুর থেকে কোন ভিসার মাধ্যমে যাবেন। এখান থেকে অনেক ধরনের সুযোগ আছে। যেমন সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার জন্য স্টুডেন্ট ভিসার মাধ্যমে‌ যেতে পারবেন। অথবা আপনি প্রথম অবস্থায় যদি যেতে চান কম খরচের মধ্যে যেতে চান তাহলে আপনাকে টুরিস্ট ভিসার মাধ্যমে যেতে হবে। এক্ষেত্রে খরচ অনেক কম পড়বে। সেই সাথে যদি আপনি ওয়ার্ক পারমিট ভিসা বা অন্যান্য ভিসা নিয়ে যেতে চান তাও যেতে পারবেন ।

তবে সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি ভিসা ব্যবস্থার মধ্যে সিজনাল ভিসা রয়েছে এবং নন সিজিনাল রয়েছে। যেকোনো একটি ভিসা তে আপনারা সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যেতে পারবেন। তবে অবশ্যই যে সমস্ত সিজনাল ভিসা তে আপনারা যদি যেতে চান তাহলে খরচ কিছুটা কম পড়বে এবং যদি আপনারা নন সিজিনাল ভিসার মাধ্যমে যেতে চান তাহলে খরচ একটু বেশি পড়বে। তবে এটা জেনে রাখবেন নন সিজিনাল ভিসার ক্ষেত্রে কিন্তু টাকা বেশি লাগবে এবং দীর্ঘদিন যাবৎ থাকতে পারবেন সেখানে। তবে সিজিনাল ভিসার ক্ষেত্রে 6 মাস থেকে 1 বছর পর্যন্ত মেয়াদ হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে খরচ কম লাগবে পরবর্তীতে আপনাকে আবার রিনিউ করতে হবে ।আবার দেশে ফেরত আসা লাগতে পারে ।এইভাবে আপনারা জার্মানি যেতে পারবেন।

৪.জার্মানি ওয়ার্ক পারমিট ভিসা | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

জার্মানিতে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে অনেকেই যেতে চায়। ওয়ার্ক পারমিট ভিসার যোগ্যতা সম্পর্কে অনেকেই অবগত নয়। জার্মানিতে আপনি যদি যেতে চান তাহলে আপনাকে এসএসসি বা এইচএসসি/ ইন্টার পাশ করা লাগবে। আপনাকে অবশ্যই জার্মান ভাষায় অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে। আপনি যদি জার্মান ভাষা না বুঝেন বা যদি জার্মান ভাষা না পারেন তাহলে আপনি জার্মান ওয়ার্ক পারমিট ভিসা গ্রহণ করতে পারবেন না। আপনি জার্মানি যেতে চান, সেখানে‌ গিয়ে কি করবেন তা আপনাকে আগে থেকেই ভেবে রাখতে হবে বা অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। আপনি যদি আপনার স্কিল না দেখাতে পারেন তাহলে আপনি সেখানে যেতে পারবেন না। আপনি যে সকল বিষয়ে অভিজ্ঞ আপনি জার্মানি গিয়ে সে সকল বিষয় নিয়ে কাজ করতে পারবেন। এতে আপনার অনেক সুবিধা হবে।

৫.ভিসা পাওয়ার উপায় | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার জন্য অনেক বেসরকারি রিক্রুটিং এজেন্সি রয়েছে ।এসব রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে আপনারা যেতে পারবেন। তবে অবশ্যই জেনে রাখবেন যে সিঙ্গাপুর সরকার কর্তৃক অনুমোদিত কিনা। এবং তাদের লাইসেন্স নাম্বার সহ রেজিস্ট্রেশন নাম্বার এবং আনুষঙ্গিক অন্যান্য সার্টিফিকেট দেখে তারপরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে এক্ষেত্রে অনেক এজেন্সি রয়েছে যারা কাজ নিয়ে সরাসরি জার্মানি পাঠিয়ে থাকে।

৬. প্রয়োজনীয় কাগজপত্র | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

  1. 6 মাস মেয়াদি পাসপোর্ট
  2. এনআইডি কার্ডের ফটোকপি
  3. ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর ফটোকপি
  4. কাজের দক্ষতার একটি সার্টিফিকেট
  5. পূর্বে কাজ করার কোনো অভিজ্ঞতা
  6. অফার লেটার
  7. সিভি
  8. বাংলাদেশের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স
  9. সিঙ্গাপুরের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স 

৭.কাজের আবেদন | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

জার্মানিতে কাজের জন্য আবেদন করতে হলে আপনাকে অবশ্যই সেই বিষয়ের উপর অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। আপনি ইন্টারনেটের মাধ্যমে জার্মানিতে কাজের জন্য আবেদন করতে পারবেন।যেসকল কোম্পানিগুলো কাজের জন্য কর্মী নিয়ে থাকে সেখানে আপনি নিয়োগ এর আবেদন করতে পারেন। আবেদন করার জন্য প্রয়োজন হতে পারে আপনার পড়াশোনার সার্টিফিকেট আর আপনার কাজের দক্ষতা। এভাবে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন সম্পন্ন করতে পারেন।

আপনি অনলাইনের মাধ্যমে জার্মান কোম্পানিতে কাজ করার জন্য আবেদন করে থাকলে এবং সেই আবেদন যদি তারা গ্রহণ করে থাকে‌, তাহলে আপনাকে ইমেইলের মাধ্যমে জানিয়ে দেবে। তারপর আপনাকে যেকোন একদিন ভাইভা দেওয়ার জন্য বলবে। সেটা হতে পারে অনলাইনের মাধ্যমে যেমন স্কাইপ,ভাইভার। যখন আপনি জার্মানি ভাষায় কথা বলবেন, তখন তারা বুঝতে পারবে যে আপনি সেই বিষয়ে অভিজ্ঞ ।তখন আপনাকে তারা নিয়োগ করে নিতে পারে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আপনাকে তারা ওয়ার্ক পারমিট দিয়ে দিবে। সকল পেপারগুলো এম্বাসিতে জমা দিতে হবে।সকল কিছু  আপনি জমা দেওয়ার পরবর্তীতে আপনাকে জার্মান ওয়ার্ক পারমিট ভিসা দিয়ে দেওয়া হবে।

৮. লেখকের মন্তব্য | সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায়

সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় নিয়ে আজকে আমরা আলোচনা করলাম। সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় সম্পর্কিত সকল তথ্য আপনাদের সাথে আলোচনা করেছি। সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে আমাদের জানাবেন। সিঙ্গাপুর থেকে জার্মানি যাওয়ার উপায় সম্পর্কে আপনার কি মতামত সেটা অবশ্যই আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।
আর্টিকেলটি লিখেছেন: নুসরাত জাহান হিভা 
পড়াশোনা করছেন: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় 
লেখকের জেলার নাম: কুমিল্লা



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা
মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন
পড়াশোনা করছেন:  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। 
জেলা: নাটোর

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?