The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/11/europe-student-visa.html

ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা সম্পর্কিত তথ্য জানুন

ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে অনেকেই জানতে আগ্রহী। প্রযুক্তির ছোঁয়ায় এখন ঘরে বসেই ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে সহজেই ধারণা লাভ করা সম্ভব। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের আজকের আর্টিকেল আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করব ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে। ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমাদের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা
  2. জার্মানি স্টুডেন্ট ভিসা
  3. ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা
  4. ফ্রান্স স্টুডেন্ট ভিসা
  5. নেদারল্যান্ডস স্টুডেন্ট ভিসা
  6. পর্তুগাল স্টুডেন্ট ভিসা
  7. ডেনমার্ক স্টুডেন্ট ভিসা
  8. খরচ
  9. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর
  10. লেখকের মন্তব্য

১.ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

ইউরোপের বড় বড় দেশগুলোর স্টুডেন্ট ভিসা পাওয়াটা একটু জটিল। তবে আপনি যদি মেধাবী হন এবং পড়াশোনা করার ইচ্ছা থাকে তাহলে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্কলারশিপ এর মাধ্যমে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর মাধ্যমে যেতে পারবেন । আপনি চাইলে সেসব স্কলারশিপ গ্রহণ করতে পারেন। এতে করে আপনি কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়াই ইউরোপে পড়াশোনার জন্য যেতে পারবেন। 

স্টুডেন্ট ভিসার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল এই ভিসার মাধ্যমে আপনি পড়াশোনার পাশাপাশি ইউরোপের বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে পারবেন। এছাড়া ইউরোপে পড়াশোনার পাশাপাশি কাজ করতে আপনি সেদেশে বাসিন্দা হয়ে যেতে পারবেন। আপনার যদি যথেষ্ট পরিমাণে সম্পত্তি, ব্যবসা বা টাকা থাকে তাহলে আপনি ইউরোপের গ্রীন কার্ড পেতে পারেন। ইউরোপের বেশিরভাগ দেশে স্টুডেন্ট ভিসা পেতে হলে আইইএলটিএস পরীক্ষা দিতে হয়। ভালো ইংরেজি না জানলে আপনি ইউরোপের স্টুডেন্ট ভিসা পাবেন না।

২.জার্মানি স্টুডেন্ট ভিসা | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

শিক্ষাব্যবস্থা, গবেষণা, শিক্ষা বৃত্তির সুবিধা সহ নানা রকম সুবিধার কারণে ইউরোপে স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর মাধ্যমে জার্মানি অনেকে পড়াশোনা করতে যেয়ে থাকেন। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের ছাত্রছাত্রীরা উচ্চশিক্ষার জন্য দিয়ে থাকেন সেখানে উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য। জার্মানির বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ও গভর্ন্যান্স, পলিটিক্যাল সায়েন্স, অ্যাডভান্স ম্যাটেরিয়ালস, কমিউনিকেশন টেকনোলজি, এলার্জি সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি, ফিন্যান্স, মলিকিউলার সাইলেন্স ইত্যাদি বিষয়ে পড়াশোনা করার সুযোগ রয়েছে।

জার্মানিতে cgpa-1 সবথেকে ভালো গ্রেড এবং cgpa-4 সবথেকে খারাপ গ্রেড।বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য সিজিপিএ 2.5 এর কম হলে সে ভর্তির জন্য যোগ্য হবেন। আপনারা সকলেই জানেন পৃথিবীর বিখ্যাত মনীষীদের জন্মভূমি জার্মানি এবং বিজ্ঞান চর্চার তীর্থস্থান জার্মানি। জার্মানিতে শিক্ষা দান করার জন্য অর্থ নেয় না বললেই চলে। জার্মানিতে একজন স্টুডেন্ট স্টুডেন্ট জব করে সে খুব ভালোভাবেই সেখানে জীবন পরিচালনা করতে পারবেন। আরো অনেক কারণ আছে যেগুলো জন্য জার্মানিতে অনেক দেশ থেকে অনেক ছাত্রছাত্রী পড়াশোনা করতে যান। জার্মানিতে উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থার কারণে ছাত্র-ছাত্রীরা সেখানে যেয়ে থাকেন। 

জার্মানি একটি উন্নত দেশ। অনেক দেশ থেকে অনেক শিক্ষার্থী পড়াশোনা করার জন্য এসে থাকেন। জার্মানিতে স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে যেতে হলে আপনার খরচ হবে ছয় থেকে আট লক্ষ টাকা। আপনি যদি স্কলারশিপ এর মাধ্যমে যেতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে এক লক্ষ টাকার মতো। ব্লক একাউন্টে যে ছয় থেকে আট লক্ষ টাকা রাত্রি হয় সেটি আপনি জার্মানিতে যাওয়ার পরে জব করে বাসায় ফিরত দিতে পারবেন।

৩.ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য সেরা কয়েকটি স্থানের মধ্যে একটি হচ্ছে ইতালি।এখানে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত ডিগ্রি প্রদানকারী অনেকগুলো বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। তুলনামূলকভাবে স্বল্প টিউশন ফি দিয়ে ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর মাধ্যমে পড়াশোনা করতে পারবেন। স্বল্প খরচে বাস করতে পারবেন। শিক্ষা খাতে নিত্যনতুন বৈচিত্র্য দেখতে পাবেন। পড়ালেখার পাশাপাশি কাজ করার সুযোগ পাবেন। অনেক ধরনের কোর্স থেকে নিজের পছন্দমতো কোর্স বাছাই করে পড়তে পারবেন।

ইতালিতে গিয়ে পড়ালেখার পাশাপাশি পার্ট টাইম চাকরিও করতে পারবেন। আপনার ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর আবেদন ফর্মে পরিবার ও আত্মীয়স্বজনের নাম উল্লেখ করে দিতে পারেন কিংবা চাইলে তাদের জন্য আলাদা করেও ভিসার আবেদন করাতে পারেন। এই স্টুডেন্ট ভিসায় ৩০০০০ থেকে ৩৫০০০ টাকার মতো খরচ হতে পারে।

৪.ফ্রান্স স্টুডেন্ট ভিসা | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

উচ্চ শিক্ষার জন্য যে কেউ চাইলেই স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে ফ্রান্সের  বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর মাধ্যমে  ব্যাচেলর, মাস্টার্স, পোস্ট গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা,ডিপ্লোমা সার্টিফিকেট কোর্স, পিএইচডি সহ হায়ার স্টাডিজ জন্য সকল সুবিধা দিয়ে রেখেছে বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য তাই চাইলে যে কেউ ফ্রান্সে স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে সেখানে হায়ার স্টাডি কমপ্লিট করতে পারবে।সোশ্যাল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, লিটারেচার মেডিকেল সাইন্স, ফার্মাকোলজি, ফার্মেসি, জিওগ্রাফি, আইসিটি, মিউজিক, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং সহ বেশ কিছু বিষয়ে শিক্ষা লাভের সুযোগ রয়েছে তাছাড়াও রয়েছে রেডিওলজি, সাইন্স এন্ড টেকনোলজি, কম্পিউটার সাইন্স, বিজনেস স্টাডিজ, ইলেকট্রনিক্স, মেকানিক্যাল সহ বিভিন্ন কোর্স
করার সুযোগ।

ফ্রান্সের ইন্টার্নশিপ বাধ্যতামূলক করা হয়ে থাকে তাই যে বাজারা
ওখানে পড়াশোনার সুযোগ তৈরি করতে পারবেন তাদের ইন্টার্নশিপ সহ বাধ্যতামূলকভাবে সেখানেই পড়াশোনা করা লাগবে যার ফলে আপনি প্রত্যেকটি বিষয়ে তাত্ত্বিকভাবে জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন পাশাপাশি বাস্তব অভিজ্ঞতার তৈরি করতে পারবেন। সাধারণত 4 বছর মেয়াদী মাস্টার্স কোর্সের মেয়াদ হয়ে থাকে তার পরে এক বছর মেয়াদী অন্যান্য কোর্সের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে থাকে তাছাড়া রয়েছে পাশাপাশি বিভিন্ন ভাষার উপর দক্ষতা অর্জন এবং উচ্চশিক্ষার জন্য দেশ এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কম্পিটিশনের জন্য বিভিন্ন সেমিনারের আয়োজন তারা করে থাকে। এবং অন্যান্য শর্ট কোর্স পরিচালনা করার জন্য বিভিন্ন রকমের কোচ সার্ভিস প্রোভাইড করে থাকে।

৫.নেদারল্যান্ডস স্টুডেন্ট ভিসা | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর মাধ্যমে নেদারল্যান্ডস এ গেলে প্রচুর বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে এবং এসব বিশ্ববিদ্যালয় অফার করে নানা রকম কোর্স। বিশ্ববিদ্যালয় ও কোর্স ভেদে এসব কোর্সের চাহিদা ভিন্ন ভিন্ন হয়। তাই, আপনি কোন বিষয়ে ও কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যাবেন সেই অনুযায়ী আপনাকে নিজেকে যোগ্য করে তুলতে হবে। নেদারল্যান্ডসের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের মান নিয়ে প্রশ্ন করার তেমন কিছু নেই- কারণ জাতীয় ভাবে একটি সেন্ট্রাল সিস্টেমের আওতায় নেদ্যারল্যান্ডসের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মান নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

স্নাতক প্রোগ্রামে সংযুক্ত হতে আপনার থাকতে হবে উচ্চ মাধ্যমিক বা স্কুল ডিপ্লোমা পাসের সনদ। ডাচ ভাষায় ডিপ্লোমা করার জন্য আপনাকে পাশ করতে হবে Dutch NT2 Course। আবার স্নাতোকত্তর প্রোগ্রামে অংশ গ্রহণ করতে নূন্যতম ব্যাচেলর ডিগ্রী থাকতে হবে। এছাড়া আপনার প্রয়োজন পরবে ইংরেজী ভাষায় দক্ষতার সনদ। এজন্য IELTS-এ আপনাকে নূন্যতম ৬.৫ স্কোর থাকতে হবে। আর যদি TOEFL দিতে চান, তাহলে আপনাকে পেতে হবে ৫৫০ (Paper Based TOEFL) বা ২১৩ (Computer Based TOEFL)।   

৬.পর্তুগাল স্টুডেন্ট ভিসা | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

পর্তুগালে অনেক উন্নত্মানের বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এইসকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিপ্লোমা, ব্যাচেলর, মাস্টার্স, পিএইচডি- সকল ধরণের কোর্সই করতে পারবেন ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর মাধ্যমে গিয়ে। এছাড়া এই সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে হরেক রকমের সাবজেক্ট যেমনঃ সাইন্স, ইকোনমিকস, বাণিজ্য, আইন, ইঞ্জিনিয়ারিং, একাউন্টিং, মেডিকেলসহ বহু ধরণের কোর্স। কিন্তু মনে রাখবেন, বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্তুগীজ ভাষায় কোর্স অফার করা হয়ে থাকে। তাই, কোর্স ও বিশ্ববিদ্যালয় বাছাই করার আগে দেখে নেবেন, সেখানে ইংরেজী মাধ্যমে কোর্স অফার করা হয় কি না।

পর্তুগালে পড়াশুনার জন্য অনেকেরই পছন্দ- কারণ, এদেশে পড়তে যাবার জন্য ইংরেজীতে পারদর্শিতার কোন সার্টিফিকেট দিতে হয় না। তাই যারা IELTS দিতে ভয় পাচ্ছেন, তাদের জন্য এই দেশ হবে উচ্চশিক্ষার অন্যতম ডেস্টিনেশন। কিন্তু, ইংরেজীতে কথা বলার দক্ষতা ও সার্টিফিকেট থাকলে আপনি ভিসা পাওয়ার জন্য বেশী যোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন। এদেশে ব্যাচেলর প্রোগ্রামে অংশ গ্রহণ করতে উচ্চ মাধ্যমিক, মাস্টার্সে আবেদনের জন্য ৪ বছরের ব্যাচেলর এবং পিএইচডি পড়তে আপনাকে ২ বছরের মাস্টার্স থাকতে হবে।

৭.ডেনমার্ক স্টুডেন্ট ভিসা | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

বিশ্বে যে কয়টি শান্তিপূর্ণ দেশ রয়েছে সেগুলোর মধ্যে ডেনমার্ক অন্যতম। উন্নতমানের শিক্ষাব্যবস্থা, পড়াশোনার পাশাপাশি কাজ করার সুযোগ, শিক্ষাজীবন শেষে সহজেই পছন্দনীয় পেশায় যোগদান ও নাগরিক সুবিধার কারণে পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশের শিক্ষার্থীরা পড়ার জন্য এখানে আসতে চায়। আপনিও যদি তাদের মতো পড়ার জন্য ডেনমার্কে যেতে চান, তবে আজকের ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ লেখাটি আপনার জন্য।

বর্তমানে ডেনমার্কে স্টুডেন্ট ভিসার জন্য বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা চালু করেছে এবং ডেনমার্কে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও ওয়ার্ল্ড রেংকিং এ চলে এসেছে ।তাই এ সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে হলে দরকার কিছু এডুকেশনাল কোয়ালিফিকেশন। সেইসাথে আইটি সহ অন্যান্য বিষয়ের উপর দক্ষতা। আর এই দক্ষতা অর্জন করলে তবেই আপনি ডেনমার্কে স্টুডেন্ট ভিসায় পড়ার সুযোগ পাবেন।

৮.খরচ | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

এই অংশ আলোচনা করা হয়েছে ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ এর খরচ নিয়ে। ইউরোপে যেতে কত টাকা লাগবে সেটা নির্ভর করবে আপনি ইউরোপের কোন দেশে যেতে চান তার উপর। আপনি চাইলেই এই ওয়েবসাইট https://www.vfsglobal.com/en/individuals/index.html থেকে ইউরোপে যেতে কত টাকা লাগবে সেটা জানতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটে গিয়ে প্রথমে আপনি বাংলাদেশ সিলেক্ট করুন, তারপরে আপনি যেতে সে যেতে চান সেটি সিলেক্ট করলেই আপনার টাকার পরিমাণ দেখাবে। এছাড়া কোন দেশের ভিসা বর্তমানে বন্ধ আছে সেটিও এই ওয়েবসাইট থেকে জানতে পারবেন। এছাড়া আপনি চাইলে আপনি কি দেশে যেতে চান সেই দেশের এম্বেসীতে বা কনস্যুলেট অফিসে গিয়ে সে দেশের ভিসা সম্পর্কিত সকল তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

৯. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

প্রশ্ন ১: জার্মানিতে সবথেকে ভালো গ্রেড এবং সবথেকে খারাপ গ্রেড কতো?
উত্তর:জার্মানিতে cgpa-1 সবথেকে ভালো গ্রেড এবং cgpa-4 সবথেকে খারাপ গ্রেড।
প্রশ্ন ২:ডাচ ভাষায় ডিপ্লোমা করার জন্য কি পাশ করতে হবে ?
উত্তর:ডাচ ভাষায় ডিপ্লোমা করার জন্য আপনাকে পাশ করতে হবে Dutch NT2 Course।
প্রশ্ন ৩:ইতালি স্টুডেন্ট ভিসায় কতো খরচ হতে পারে?
উত্তর:স্টুডেন্ট ভিসায় ৩০০০০ থেকে ৩৫০০০ টাকার মতো খরচ হতে পারে।

১০. লেখকের মন্তব্য | ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২

প্রিয় পাঠক, আজকে আমরা আপনাদের সাথে ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে অথবা যে কোন বিষয়ে আপনাদের কোন অভিযোগ বা মতামত নিচের কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল সংগঠন The DU Speech এর পাশেই থাকবেন।ইউরোপ স্টুডেন্ট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে হোক বা যেকোন বিষয়ে আমরা আপনার মতামতকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করব।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?