The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/11/canada-work-permit-canada-work-permit.html

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ | কানাডার ওয়ার্ক পারমিট ভিসা সম্পর্কিত তথ্য জানুন

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে অনেকেই জানতে আগ্রহী। প্রযুক্তির ছোঁয়ায় এখন ঘরে বসেই কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে সহজেই ধারণা লাভ করা সম্ভব। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের আজকের আর্টিকেল আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করব কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে। কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমাদের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।


আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা
  2. ভিসা ক্যাটাগরি
  3. ভিসা পাওয়ার যোগ্যতা
  4. প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
  5. ভিসা প্রসেসিং
  6. ভিসা ও অন্যান্য খরচ
  7. ভিসার জন্য আবেদন
  8. ভিসা পাওয়ার উপায়
  9. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর
  10. লেখকের মন্তব্য

১.কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

কানাডায় প্রতি বছর তিন হাজার এর বেশি মানুষ কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ দিয়ে কানাডা এসে থাকেন।কানাডা ওয়ার্ক পারমিট স্থায়ী ভাবে আবাস কিংবা নাগরিক তথ্য ইমিগ্রেশন থাকলে সরকারি ভাবে স্বীকৃতি এখন পর্যন্ত পাওয়া যায় নি।শেষ পর্যন্ত উক্ত ভিসার দিকে যাত্রার প্রথম ধাপ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। স্থায়ী ভাবে বসবাসের জন্য এটি এখন পর্যন্ত অন্য কোন বড় মাইগ্রেশনের সবচেয়ে জনপ্রিয় কানাডা ওয়ার্ক পারমটি ভিসা ২০২২ রুট হিসেবে ধরা হয়েছে।

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ পাওয়াটা জটিল হতে পারে। কিন্তু তারপরেও এটি একটি ভালো মাধ্যম বলা যায়।দক্ষ ও দ্রুততার সাথে এবং বিরামহীন ভাবে প্রক্রিয়াটি অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে আমাদের এবং নিয়োগ কর্তার পাশাপাশি কাজ করতে হবে।শুরুতে আপনাকে একটি কানাডিয়ান নাগরিক হতে জব এর জন্য অফার পেতে হবে। এবং সেটি গ্রহণ করতে হবে, যদি অফারটি অবশ্যই অস্থায়ী ভাবে করতে হবে।

২.ভিসা ক্যাটাগরি | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ এ উন্নত জীবন যাপন এবং আধুনিক নাগরিক জীবনের সকল সুবিধা থাকার জন্য প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনেক সংখ্যক মানুষ নায়াগ্রা জলপ্রপাতের এই দেশটিতে পাড়ি জমায়।

দীর্ঘদিন বিরতির পরে সম্প্রতি আবার 50 টি ক্যাটাগরিতে দক্ষ শ্রমিকদের ভিসা প্রদানের ঘোষা করেছে কানাডা।কানাডা সরকার জানিয়েছে। স্বাস্থ্য, প্রকৌশল, ব্যবসা এবং তথ্য প্রযুক্তি সহ একাধিক খাতে কাজ করতে সমর্থ ও অভিবাসনে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবে।আবেদনকারী যোগ্য বলে বিবেচিত হলে নিঃশর্তে পূর্ণকালিন কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ প্রদান করা হবে।

অর্থনৈতিক সক্ষমতা ও জ্ঞান বিজ্ঞানে কানাডার অর্জন অন্য দেশ গুলোর কাছে ঈর্ষণীয়। কানাডা সরকার জাতিগত বৈচিত্র্য ধরে রাখার লক্ষ্যে অভিবাসীদের সাদরে বরণ করে নেন।এর পাশাপাশি বিভিন্ন কর্মসূচি’র অধীনে অভিবাসনে ইচ্ছুকদের কে কানাডায় পাড়ি জমানোর সুযোগ দিয়ে থাকে।এই ধারাবাহিকতায় দীর্ঘদীন বিরতির পরে সম্প্রতি আবার পঞ্চাশটি ক্যাটাগরিতে দক্ষ শ্রমিকদের কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ প্রদান এর ঘোষণা করেছে কানাডা।

৩. ভিসা পাওয়ার যোগ্যতা | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

আপনি যদি কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ করতে চান তাহলে আপনার কিছু যোগ্যতা থাকতে হবে। সেগুলো হলো-

  • আপনাকে কমপক্ষে এইচএসসি পাশ হতে হবে।
  • তারপরে আপনাকে ইংরেজি জানার দক্ষতা থাকতে হবে।
  • আপনাকে যে কোন একটি কাজের উপর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। এবং কমপক্ষে এক বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • এছাড়া ব্যাংকে লেনদেন এর তথ্য থাকা লাগবে, ৩০ লক্ষ টাকা আপনি লেনদেন করেছেন তার একটি ডকুমেন্ট আপনার কাছে থাকতে হবে।
  • আপনার কাছে যদি উক্ত সকল কিছুর কাগজ পত্র থাকে। তাহলে আপনি কানাডা জব ভিসা করার শর্ত পূরণ করে, দ্রুত কানাডা ভিসা নিয়ে কানাডায় গমন করতে পারবেন।

৪.প্রয়োজনীয় কাগজপত্র | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ পাওয়ার জন্য আপনার প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র প্রয়োজন আসে ।সমস্ত যোগ্যতা নিয়ে তারপরে কানাডা ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। সেই সাথে যদি আপনি কাজের ভিসার জন্য আবেদন করতে চান তাহলে অবশ্যই কাজের উপর একটি দক্ষতা থাকা লাগবে নিচে পর্যায়ক্রমে কি কি যোগ্যতা থাকা লাগবে তা নিচে তুলে ধরা হলো।
  • 6 মাস মেয়াদী এক্টিভেট পাসপোর্ট
  • পূর্বে কোন কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে তার প্রমাণ
  • এনআইডি কার্ড এর ফটোকপি
  • ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট
  • ব্যাংক স্টেটমেন্ট 30 লাখ টাকার বেশি আদান-প্রদান
  • পূর্বে কোথায় ট্র্যাভেল করেছেন তার প্রমাণ
  • বিমান টিকিট এর ফটোকপি
  • হোটেল বুকিং এর ফটোকপি
  • বর্তমানে কোন কাজে নিয়োজিত আছেন তার প্রমাণ

৫. ভিসা প্রসেসিং | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে কানাডার দূতাবাসের মাধ্যমে কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ নিয়ে সেখানে যেতে পারবেন অথবা দিল্লি এম্বাসির মাধ্যমেও কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিয়ে যাওয়া সম্ভব সেক্ষেত্রে আপনাকে সরাসরি কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। এই ক্ষেত্রে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে 30 থেকে 42দিনের মধ্যেই তারা নিশ্চিত করবে।
তাছাড়াও আপনি যদি বাংলাদেশে অবস্থিত বোয়েসেল অথবা বি এমআই টির সাথে যোগাযোগ করেও কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ নিয়েও বিস্তারিত ভাবে জানতে পারবেন। তারা কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ নিয়ে বিস্তারিত ভাবে নিশ্চিত করতে পারবে এবং বর্তমানে কোন বিষয়ক ভিসা চলছে সেই বিষয় নিয়েও তারা নিশ্চিত করবে।

৬. ভিসা ও অন্যান্য খরচ | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

বাংলাদেশ থেকে কানাডা যাওয়ার জন্য খরচ হবে ৪ লাখ টাকা। তবে এটি বিভিন্ন কোম্পানি ভেদে দাম ভিন্ন রকম হয়ে থাকে। এরমধ্যে আনুষঙ্গিক বিমান ভাড়া সহ হোটেল সি এবং ভিসা খরচ সহ সবকিছুই ধরা হয়েছে। তবে যাওয়ার আগে অবশ্যই বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে বিস্তারিত ভাবে জেনে নিতে পারেন তাঁরা কী কী খরচ বহন করবে এবং কোম্পানি থেকে কি কি সার্ভিস প্রদান করবে।

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ এর জন্য কিছু খরচ করা লাগবে প্রথম অবস্থায় আপনার ভিসা ফি সহ আনুষাঙ্গিক কয়েকটি বিষয়ের প্রতি আপনাকে খরচ করা লাগবে তা কী কী খরচ করা লাগবে চলুন দেখে নেওয়া যাক সরকার নির্ধারিত মেডিকেল ফি বয়স্কদের জন্য 4800 টাকা।

কানাডা ওয়ার পারমিট ভিসা ২০২২ এর মাধ্যমে কানাডায় যাওয়ার জন্য বিমান ভাড়া সহ আনুষঙ্গিক কিছু খরচ আছে এই সমস্ত খরচ বাবদ মিনিমাম 80000 টাকা ধরা হয়েছে শুধুমাত্র বিমান ভাড়ার জন্য এবং আনুষাঙ্গিক খরচের জন্য। বর্তমান এয়ার লাইন্সের টিকিট অনুযায়ী দাম কম বেশি হতে পারে। তাই অবশ্যই বিমান ভাড়া সম্পর্কে এবং যাওয়ার খরচ সম্পর্কে অনলাইন থেকে দেখে তারপরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন তবে বাংলাদেশ থেকে যেতে হলে অবশ্যই ৪০ হাজার থেকে এক লাখ টাকার মধ্যেই বিমান ভাড়া হয়ে থাকে। করোনা মহামারীর কারণে বর্তমানে এটি নির্ধারিত হয়েছে।

৭. ভিসার জন্য আবেদন | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

বর্তমানে অনলাইনের মাধ্যমে যাবতীয় ভিসার আবেদন ফরম পাওয়া যায় এবং সেখান থেকে আবেদন করা যায়। অনেকেই অনলাইনে যারা কাজ করে থাকেন তারাও এই মাধ্যম ব্যবহার করে ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন অথবা কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ আবেদন কিভাবে করতে হয় সে সম্পর্কে জানতে হলে আপনাকে অবশ্যই পাসপোর্ট অফিসের আশেপাশে যে কম্পিউটার অপারেটরগুলো থাকে তাদেরকে জিজ্ঞেস করলেই আপনাকে সঠিক ইনফরমেশন দিয়ে হেল্প করবে। কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে এবং কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ এর জন্য আবেদন করতে  https://www.canadavisa.com/working-in-canada.html সাইটে গিয়ে জানতে পারবেন এবং আবেদন করতে পারবেন ভিসার জন্য।

৮.ভিসা পাওয়ার উপায় | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

স্থায়ী বা অস্থায়ী ভাবে কানাডায় বসবাসের জন্য অবশ্যই কিছু মাধ্যম অবলম্বন করতে হবে ।আপনি কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২  পাওয়ার পর যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। কানাডায় বসবাসের  জন্য  আপনাকে প্রথমে কানাডিয়ান এম্বাসিতে থেকে কানাডায় প্রবেশের অনুমতি পত্র জোগাড় করতে হবে ।আর এসব না মানতে পারলে আপনি কানাডা যেতে পারবেন না ।

৯.আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

প্রশ্ন ১: কানাডা ভিসা প্রসেসিং হতে কত সময় লাগতে পারে?
উত্তর:আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে 30 থেকে 42দিনের মধ্যেই তারা নিশ্চিত করবে
প্রশ্ন ২: কানাডা কাজের ভিসা ২০২২ পেতে হলে ইংরেজিতে দক্ষ হতে হবে কিনা?
উত্তর: কানাডা কাজের ভিসা পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই ইংরেজিতে দক্ষ হতে হবে।
প্রশ্ন ৩: বর্তমানে কানাডা সরকার কতটি ক্যাটাগরিতে ভিসা প্রদান করছে?
উত্তর: কানাডা সরকার বর্তমানে ৫০ টি ক্যাটাগরিতে ভিসা প্রদান শুরু করেছে।

১০.লেখকের মন্তব্য | কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ 

প্রিয় পাঠক, আজকে আমরা আপনাদের সাথে কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে অথবা যে কোন বিষয়ে আপনাদের কোন অভিযোগ বা মতামত নিজের কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল সংগঠন The DU Speech এর পাশেই থাকবেন।  কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা ২০২২ সম্পর্কে হোক বা যেকোন বিষয়ে আমরা আপনার মতামতকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করব।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?