The DU Speech https://www.duspeech.com/2023/01/first-world-war-start.html

কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? | প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল

কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল সম্পর্কে আপনাদের অনেকেরই সঠিক ধারণা নেই। অনেকেই আমাদের কাছে কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। তাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের পক্ষ থেকে আজকে আমরা আপনাদের সাথে আলোচনা করব কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল সম্পর্কে। এই সম্পর্কে সকল কিছু বিস্তারিত ভাবে জানতে আজকের আর্টিকেলটি ভালোভাবে পড়ুন।

আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সূচনার সময়কাল
  2. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের কারণ
  3. প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সূচনার ঘটনা
  4. প্রথম বিশ্বযুদ্ধে হতাহতের পরিমান
  5. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পরিসমাপ্তি
  6. লেখকের মন্তব্য

১. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সূচনার সময়কাল | কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? |  প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ  WW1, এছাড়াও বিশ্বযুদ্ধ-১, বা মহাযুুুুদ্ধ হিসাবে পরিচিত, একটি বৈশ্বিক যুদ্ধ যা ১৯১৪ সালের ২৮ জুলাই ইউরোপে শুরু হয় এবং ১১ নভেম্বর ১৯১৮ পর্যন্ত স্থায়ী ছিল। ৬ কোটি ইউরোপীয়সহ আরো ৭ কোটি সামরিক বাহিনীর সদস্য ইতিহাসের অন্যতম বৃহত্তম এই যুদ্ধে একত্রিত হয়। এটি ছিল ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ সংঘাতের একটি এবং এর ফলে পরবর্তী সময়ে এর সাথে যুক্ত দেশগুলোর রাজনীতিতে বিরাট পরিবর্তন হয়। অনেক দেশে এটি বিপ্লবেরও সূচনা করে।

১৯১৪ সালের ১৮ জুন বসনিরাজধানী সারায়েভো শহরে অস্ট্রিয়ার যুবরাজ আর্চডিউক ফ্রাঞ্জ ফার্ডিনান্ড এক সার্বের গুলিতে নিহত হন। অস্ট্রিয়া-হাঙ্গেরি এই হত্যাকাণ্ডের জন্য সার্বিয়াকে দায়ী করে এবং ওই বছরের ২৮ জুলাই সার্বিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে। এ যুদ্ধে দু'দেশের বন্ধু রাষ্ট্রগুলো ধীরে ধীরে জড়িয়ে পড়ে। এতে যোগ দিয়েছিল সে সময়ের অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী সকল দেশ। এভাবে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের (১৯১৪-১৯১৮) সূচনা হয়। তবে অস্ট্রিয়ার যুবরাজের হত্যাকাণ্ডই প্রথম বিশ্বযুদ্ধের একমাত্র কারণ ছিল না। উনিশ শতকে শিল্পে বিপ্লবের কারণে সহজে কাঁচামাল সংগ্রহ এবং তৈরি পণ্য বিক্রির জন্য উপনিবেশ স্থাপনে প্রতিযোগিতা এবং আগের দ্বন্দ্ব-সংঘাত ইত্যাদিও প্রথম বিশ্ব যুদ্ধের কারণ। প্রথম বিশ্বযুদ্ধে একপক্ষে ছিল উসমানীয় সাম্রাজ্য, অস্ট্রিয়া-হাঙ্গেরি, জার্মানি ও বুলগেরিয়া। যাদের বলা হতো কেন্দ্রীয় শক্তি। আর অপরপক্ষে ছিল সার্বিয়া, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জাপান, ইতালি, রুমানিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। যাদের বলা হতো মিত্রশক্তি।

২. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের কারণ|কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? |  প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল


১৯১৪ খ্রিস্টাব্দের ২৮ শে জুলাই থেকে ১৯১৯ খ্রিস্টাব্দের ১১ ই নভেম্বর পর্যন্ত সংঘটিত প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সারাবিশ্বে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করেছিল।যার ফলে বিশ্বের প্রতিটি দেশ ক্ষুদ্র বা বৃহৎ প্রত্যক্ষ অথবা পরোক্ষভাবে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সঙ্গে জড়িত হয়ে পড়েছিল। কোন একটি নির্দিষ্ট কারণের জন্য কিন্তু এই প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সংঘটিত হয়নি।এই বিশ্বযুদ্ধ সংঘটিত হওয়ার পেছনে একাধিক কারণ বিদ্যমান ছিল। এগুলো হলো:

অতৃপ্ত জাতীয়তাবাদ

উনবিংশ শতকের শেষ দিক থেকে বিশ শতকের সূচনা কাল পর্যন্ত ইউরোপীয় রাষ্ট্র গুলির মধ্যে প্রবল ঔপনিবেশিক প্রতিদ্বন্দ্বীতা, প্রতিদ্বন্দিতা পারস্পরিক সন্দেহ ও বিদ্বেষ, যুদ্ধাস্ত্র নির্মাণের প্রতিযোগিতা ও অতৃপ্ত জাতীয়তাবাদ মহাদেশের রাজনৈতিক পরিবেশকে বিষিয়ে তুলেছিল।সেডানের যুদ্ধে জার্মানীর হাতে পরাজিত ফ্রান্স, অস্ট্রিয়ার অধিকারে থাকা ইতালি ও ভাষাভাষী অঞ্চল, স্লেজউইগ জার্মানির অন্তর্ভুক্ত অধিবাসী বৃন্দ, বলকান অঞ্চল, ইংল্যান্ডের রাজনৈতিক অধিকার থাকা আয়ারল্যান্ড, অস্ট্রিয়ার অন্তর্ভুক্ত চেক, পোল, স্লাভ প্রভৃতি জাতিগোষ্ঠী গুলো আত্মনিয়ন্ত্রণের দাবিতে সোচ্চার হয়ে ওঠে।

উগ্র জাতীয়তাবাদ

এই সময় কালে ইউরোপে এক ধরনের উগ্র স্বার্থপর ও সংকীর্ণ জাতীয়তাবাদের উদ্ভব হয়। প্রতিটি জাতি নিজের দেশ ও জাতিকে শ্রেষ্ঠ বলে মনে করতে থাকে এবং অন্যান্য জাতি তথা দেশ কে পদানত করে উগ্র ও সংকীর্ণ জাতীয়তাবাদ প্রচার করে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট হলে বিভিন্ন জাতির মধ্যে তিব্র বিদ্বেষ ও জাতি বৈষম্যের সৃষ্টি হয়।

জার্মানি ও ইতালি অতৃপ্তি

ইংল্যান্ড ফ্রান্স রাশিয়া পর্তুগাল স্পেন প্রভৃতি দেশে শিল্প বিপ্লব আগে শুরু হওয়ায় তারা বহু আগেই উপনিবেশ বিস্তারে আগ্রহী হয়ে উঠেছিল। ফলে জার্মানি ও ইতালি অতৃপ্ত ছিল, এদের এই অতৃপ্ত বাসনা পরবর্তীকালে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের অন্যতম একটি কারণ হয়ে দেখা দেয়।

সংবাদ মাধ্যমের ভূমিকা

বিশ্বের প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার পেছনে সংবাদপত্র একটি বিশেষ অবদান রেখে চলে।প্রথম বিশ্বযুদ্ধ ক্ষেত্রেও সংবাদপত্রের বা সংবাদমাধ্যমের ভূমিকার ব্যতিক্রম ঘটেনি। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের নেপথ্যে সংবাদমাধ্যমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। একশ্রেণীর সংবাদপত্র মিথ্যা বিকৃত দায়িত্বজ্ঞানহীন সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে জনমতকে প্রভাবিত করে এবং সমগ্র বিশ্বজুড়ে এক যুদ্ধের পরিবেশ তৈরি করে দেয়। যার ফলস্বরূপ প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়।

আন্তর্জাতিক সংকট

ইংল্যান্ড ও ফ্রান্স যথাক্রমে মিশর ও মরক্কোর ওপর কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করলে জার্মানির স্বার্থ বিপন্ন হওয়ার আশঙ্কায় জার্মানি প্রতিবাদ করলে মরক্কো সংকট সৃষ্টি হয়। ১৯১১ খ্রিস্টাব্দের আগাদির ঘটনা এবং অস্ট্রিয়া ও রাশিয়ার মধ্যে সৃষ্টি হওয়া বলকান প্রথম বিশ্বযুদ্ধকে অনিবার্য করে তুলেছিল।

বাণিজ্যিক ও ঔপনিবেশিক প্রতিদ্বন্দ্বীতা

শিল্প বিপ্লবের ফলে দেশীয় শিল্পপতিও পুঁজিপতিদের হাতে প্রচুর মূলধন সঞ্চিত হয়। এই বিপুল মূলধন বিনিয়োগের জন্য, কাঁচামাল সংগ্রহ ও উদ্বৃত্ত পণ্য বিক্রির জন্য শিল্পপতি পুঁজিপতিরা নিজ নিজ দেশের সরকারের ওপর চাপ বাড়াতে থাকে। যার ফলে সমগ্র বিশ্বজুড়ে বিশ্বযুদ্ধের পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

প্রত্যক্ষ কারণ - সেরাজেভো হত্যাকাণ্ড

অস্ট্রো-রাশিয়া, অস্ট্রো-সার্বিয়া বিভাগ যখন বলকান অঞ্চল কে বারুদের স্তূপে পরিণত করেছিল ঠিক তখনই ১৯১৪ খ্রিস্টাব্দে আঠাশে জুন ঘটে গেল সেরাজেভো হত্যাকাণ্ড। অস্ট্রিয়ার যুবরাজ আর্কাডিউক ফ্রান্সিস ফার্দিনান্দ পত্নী সোফিয়া কে নিয়ে সেরাজেভো তে বেড়াতে এলে স্লাভ সন্ত্রাসবাদি সংস্থা ব্ল্যাক হ্যান্ড বা ইউনিয়ন অফ ডেথ এর সদস্য ন্যাভরিশো প্রিন্সেপ রাজপথে প্রকাশ্য দিবালোকে তাদের হত্যা করলে অস্ট্রিয়া ও সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেড আক্রমণ করে আর সার্বিয়া অস্ট্রিয়ার মধ্যে শুরু হওয়া যুদ্ধ মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে বিশ্বযুদ্ধের আকার ধারণ করে।

৩. প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সূচনার ঘটনা | কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? |  প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ বা দ্য গ্রেট ওয়ার ঠিক কী কারণে শুরু হয়েছিল, তা নিয়ে অনেক বিতর্ক আছে। জার্মানি আনুষ্ঠানিকভাবে অনেকটা দায় নিজেদের কাঁধে নিয়েছে। কিন্তু বেশির ভাগ ইতিহাসবিদই মনে করেন, একটি খুনের ঘটনা ঘিরে বেশ কিছু জটিল সমীকরণের সৃষ্টি হয়েছিল এবং তার জের ধরেই প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সূচনা হয়

১৯১৪ সালের জুনে অস্ট্রিয়ার রাজপরিবারের ভবিষ্যৎ উত্তরাধিকারী আর্চডিউক ফ্রাঞ্জ ফার্দিনান্দ তাঁর স্ত্রী সোফিকে নিয়ে বসনিয়া সফরে যান। বসনিয়া ছিল তখন অস্ট্রো-হাঙ্গেরীয় সাম্রাজ্যের দখলে।এই দম্পতি ২৮ জুন বসনিয়ার রাজধানী সারায়েভোতে অবস্থানরত অনুগত সেনাদের সঙ্গে দেখা করতে যান। এদিন ছিল তাঁদের বসনিয়া সফরের শেষ দিন এবং দিনটি ছিল রোববার। দিনটি ফার্দিনান্দ ও সোফির জন্য ছিল বিশেষ তাৎপর্যময়। কারণ, এই রাজদম্পতির ৪০তম বিবাহবার্ষিকী ও ছিল সেদিন।প্রেম করে নিচের স্তরের কাউকে বিয়ে করার কারণে ফার্দিনান্দ ও সোফি কখনো অস্ট্রিয়ায় স্বামী-স্ত্রী হিসেবে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে ছবি তুলতে পারেননি (রাজপরিবারের কড়া নিয়মকানুনের কারণে)। কিন্তু রাজত্ব থেকে অনেক দূরে বসনিয়ায় সেই নিয়ম বলবৎ ছিল না বলে সোফি সেদিন ছিলেন অনেকটাই খুশি এবং তিনি তাঁর স্বামীর সঙ্গে বেশ কিছু ছবি তুলেছিলেন। এই সফরে সোফি দারুণ খুশি থাকলেও বসনিয়ার অনেক মানুষ তখন তাঁদের আগমনে ক্ষুব্ধ ছিল। গন্তব্যস্থলে যাওয়ার সময় পথেই সার্বিয়ান সন্ত্রাসীদের ছোড়া হাতবোমা থেকে তাঁরা অল্পের জন্য বেঁচে যান।

এই যাত্রায় বেঁচে গেলেও দিনের আরও পরের দিকে আরেকটি হামলায় ভাগ্য তাঁদের সহায় হয়নি। সার্বিয়ার উগ্র জাতীয়তাবাদী গাভরিলো প্রিন্সিপের ছোড়া বুলেটে মারা যান ফার্দিনান্দ ও সোফি। প্রিন্সিপের বয়স তখন মাত্র ১৯ এবং তিনি ছিলেন এক দরিদ্র কৃষকের সন্তান। ইউরোপে তখন আততায়ীদের হাতে এমন প্রাণনাশের ঘটনা বিরল না হলেও অস্ট্রো-হাঙ্গেরীয় সাম্রাজ্য এ খুনের ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হয় এবং জার্মানির সহায়তায় এক মাসের মাথায় ২৮ জুলাই তারা সার্বিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।

৪. প্রথম বিশ্বযুদ্ধে হতাহতের  পরিমান| কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? |  প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ ৯০ লক্ষেরও বেশি সৈন্যের জীবন কেড়ে নেয়। আরো আহত হয় ২১ মিলিয়নেরও বেশি। বেসামরিক হতাহতের সংখ্যা প্রায় ১০ মিলিয়ন। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় যে দুটি জাতি তারা হলেন জার্মানি এবং ফ্রান্স, যাদের ১৫ থেকে ৪৯ বছর বয়সী পুরুষ জনসংখ্যার প্রায় ৮০ শতাংশ যুদ্ধে অংশ নিয়েছিল।প্রথম বিশ্বযুদ্ধকে ঘিরে ঘটে যাওয়া রাজনৈতিক দোলাচল জার্মানি, অস্ট্রিয়া-হাঙ্গেরি, রাশিয়া এবং তুরস্ক এই চারটি সাম্রাজ্যবাদী রাজবংশের পতনে অবদান রেখেছিল।

৫. প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পরিসমাপ্তি | কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? |  প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল

১৯১৮ সালের ১১ই নভেম্বর প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটে।মিত্রশক্তি এবং জার্মানির মধ্যে অস্ত্রবিরতি চুক্তি সইয়ের মাধ্যমে কার্যত ইতিহাসের এই ভয়াবহতম যুদ্ধ শেষ হয়।চুক্তিতে ১৯১৮ সালের ১১ নভেম্বর সকাল ১১টা থেকে এই  অস্ত্রবিরতি কার্যকর হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়।কাকতালীয়ভাবে সময়টি মিলে যায়, বছরের ১১তম মাসের ১১ তারিখ সকাল ১১টা।এই দিনটি স্মরণ করার জন্য শুক্রবার পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

৬. লেখকের মন্তব্য | কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? |  প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল

কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল সম্পর্কে আজকে আমরা আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করলাম। আশা করছি কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল সম্পর্কে আপনারা ভালো একটি ধারণা লাভ করতে পেরেছেন। কোন ঘটনা থেকে প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়? এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়কাল সম্পর্কে আপনাদের যেকোনো প্রশ্ন বা মতামত আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন।এছাড়াও যেকোন বিষয় সম্পর্কে জানতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।
আর্টিকেলটি লিখেছেন: নুসরাত জাহান হিভা 
পড়াশোনা করছেন: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় 
লেখকের জেলার নাম: কুমিল্লা



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা
মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন
পড়াশোনা করছেন:  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। 
জেলা: নাটোর

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?