The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/12/which-work-more-demand-malayia.html

মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি? বিস্তারিত জানুন

বর্তমানে বহুসংখ্যক কর্মী কাজের ভিসায় মালয়েশিয়া যাচ্ছে।কিন্তু এর মধ্যে অনেকেই আছে যারা সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না যে কোন কাজে তারা মালয়শিয়া যাবে বা সেখানে কোন ধরনের কাজের চাহিদা বেশি।তাই অনেকেই মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে জানতে আগ্রহী।বর্তমান প্রযুক্তির যুগে ঘরে বসেই মালয়শিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে সকল তথ্য জানা সম্ভব। ঢাকা বিশববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করবো মালয়শিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি সে সম্পর্কে । তাই মালয়শিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমাদের আর্টিকেলটি স্কিপ না করে সম্পূর্ণ পড়ুন।

আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার ওপর ক্লিক করুন)

  1. মালয়েশিয়া কাজের ভিসা
  2. মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত
  3. মালয়েশিয়া যেসব কাজের চাহিদা বেশি
  4. মালয়েশিয়া কাজের ভিসার মেয়াদ
  5. মালয়েশিয়া কাজের ভিসা আবেদন এর যোগ্যতা
  6. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর
  7. লেখকের মন্তব্য

১. মালয়েশিয়া কাজের ভিসা|মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি 

দীর্ঘ সময় মালয়েশিয়া কাজের ভিসা বন্ধ ছিল যার জন্য বাংলাদেশ কিংবা অন্যান্য দেশ থেকে কাজের ভিসায় শ্রমিক যেতে পারছিল না। ফলে মালয়েশিয়া কাজের সেক্টর গুলো তে শ্রমিক সংকট দেখা দেয়।এরই মধ্যে মালয়েশিয়া সরকার বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তিপত্র করে যেখানে উল্লেখ আছে বাংলাদেশ থেকে তারা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে তে কাজের ভিসায় শ্রমিক নিতে আগ্রহী।

এক্ষেত্রে আরো উল্লেখ আছে যে তারা নারী পুরুষ উভয়ই নিয়োগ দিবে। মালয়েশিয়া কৃষিকাজ , নির্মাণ কাজ , হোটেল রেস্টুরেন্ট এ কিনিং এর কাজে এবং বিভিন্ন সেবামূলক কাজে লোক নিয়োগ করতে ইচ্ছুক।

২. মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত|মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি 

প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমেদ ঘোষণা করে যে মালয়েশিয়াতে সর্বনিম্ন ১ হাজার ২০০ রিঙ্গিত অর্থাৎ বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ২৪ হাজার ৪২০ টাকার সমপরিমাণ কাজের বেতন নির্ধারণ করা হবে ।

এছাড়াও যারা জব বা কাজের ভিসা তে মালয়েশিয়া যাবে তাদের সেলারি শুরু হয় বাংলাদেশী টাকায় প্রায় 24000 টাকা ।পরবর্তীতে কর্মীর কাজের এক্সপেরিয়েন্স এর উপর ভিত্তি করে বেতন প্রায় ৪০-৬০ হাজার পর্যন্ত হয়ে থাকে।

তবে সব জায়গাতেই কাজের মানের ওপর ভিত্তি করে বেতনের তারতম্য হয়ে থাকে।ঠিক তেমনি একজন নির্মাণ শ্রমিকের বেতন এর সঙ্গে কখনোই একজন হোটেল- কিংবা রেস্টুরেন্ট এর শ্রমিকের বেতন সমান হবে না। দক্ষতা এবং কাজের ভিন্নতার ওপর বেতনের এর পার্থক্য হয়ে থাকে।

৩. মালয়েশিয়া যেসব কাজের চাহিদা বেশি|মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি 


মালয়েশিয়া এমন একটি দেশ যেখানে প্রায় কৃষি কাজ থেকে শুরু করে কমবেশি সব ধরনের কাজেরই যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে।তবে গত কয়েক বছরগুলোতে দেখা যায় মালয়েশিয়াতে সবচেয়ে বেশি কনস্ট্রাকশন ,রেস্টুরেন্ট কর্মী, গার্মেন্টস,ড্রাইভিং, মেকানিকাল, এই সব কাজের চাহিদা তুলনামূলক বেশি।এছাড়াও আরো বিভিন্ন সেক্টরে প্রতিনিয়ত কাজের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে।বিভিন্ন ধরনের নতুন নতুন কর্মক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। এই অংশে আলোচনা করবো মালয়েশিয়া তে বর্তমানে কোন কাজের চাহিদা বেশি সে সম্পর্কে বিস্তারিত - 
  • কৃষি কাজ: মালয়েশিয়াতে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি বিষয় হলো সেখানে পাম গাছ থেকে প্রচুর পরিমাণে ফলন হয়।অর্থাৎ পাম গাছ থেকেই পাম অয়েল উৎপন্ন করা হয়ে থাকে। আর এই সেক্টরে প্রয়োজন পড়ে প্রচুর সংখ্যক অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ লোকবল।
  • নির্মাণ শ্রমিক: বর্তমানে মালয়েশিয়া তে প্রচুর পরিমাণে ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট এর কাজ রয়েছে।এই জন্যই অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ নির্মাণ শ্রমিকদের প্রচুর চাহিদা রয়েছে নির্মাণ সেক্টরে মালয়েশিয়াতে।
  • সেবামূলক ক্ষেত্রে কর্মী নিয়োগ: মালয়েশিয়ায় তে বিভিন্ন ধরনের সেবামূলক কাজ যেমন এরমধ্যে রয়েছে হোটেল, রিসোর্ট নার্সিং যেখানে প্রচুর সংখক লোক নিচ্ছে তারা।কেননা দীর্ঘ প্রায় দুই বছর পর্যন্ত করোনা মহামারীর সময়ে যে ভয়াবহ ক্ষতি হয়েছে তা থেকে উত্তরণের জন্য বিভিন্ন হোটেল বা রিসোর্ট এসব ক্ষেত্র গুলোতে উন্নতির জন্য বর্তমানে প্রচুর লোক নিয়োগ করছে ।
  • হোটেল বা রেষ্টুরেন্ট কর্মীর
  • কনস্ট্রাকশন
  • ফ্যাক্টরি
  • পরিচ্ছন্নতাকর্মী
  • ড্রাইভিং এর কাজ
  • কৃষি কাজ
  • পাইপ ফিটিং এর কাজ 
  • টাইলস মিস্ত্রি
  • ইলেকট্রনিক্স
  • মেডিকেল ক্লিনার
  • মেকানিক্যাল
  • কেয়ারিং বা নার্সিং
  • ফুড প্যাকেজিং এর কাজ
  • গবাদি পশু পালন
  • গার্মেন্টস কর্মী
  • লেদের কাজ
  • বাসা বাড়িতে কাজ
সাধারণত উপরিউক্ত এসব কাজের বর্তমানে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে মালয়েশিয়া তে।যেকোনো কর্মী খুব সহজেই এসব কাজ গুলো পেতে পারে কোনো ধরনের পূর্ব অভিজ্ঞতা ছাড়াই। এইসব কাজের জন্য সাধারণত শ্রমিকদের কে বিশেষ কোনো প্রশিক্ষণ নিতে হয় না।আপনি চাইলে এসব কাজের পাশাপাশি অন্যান্য কাজ ও করতে পারেবন ।

৪. মালয়েশিয়া কাজের ভিসার মেয়াদ|মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি 

মালয়েশিয়ায় প্রথমত কাজের ভিসার মেয়াদ দিয়ে থাকে তিন বছর পর্যন্ত। মালয়েশিয়ায় অবস্থান করার পর মেডিকেল দিতে হবে সেখানে যদি আপনি শারীরিকভাবে ফিট থাকেন তখন প্রায় ১০ মাসের জন্য ভিসা পাবেন। ঠিক একই ভাবে আবার ১০ মাস পর আপনাকে মেডিকেল দিতে হবে সব ঠিক থাকলে আপনি এই ভাবে প্রায় ১০ বছর পর্যন্ত ভিসা রিনিউ করে মালয়েশিয়া থাকতে পারবেন।

৫. মালয়েশিয়া কাজের ভিসা আবেদন এর যোগ্যতা | মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি

মালয়েশিয়া কিংবা যেকোনো দেশই হোক সেখানে ভিসা আবেদনের জন্য কিছু প্রয়োজনীয়তার দরকার হয়। তাই মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে জানতে চাইলে অবশ্যই কাজের ভিসার সকল খুঁটিনাটি জানা প্রয়োজন পড়ে।এই অংশে আলোচনা করবো মালয়েশিয়া কাজের ভিসা আবেদনের যোগ্যতা সমূহ নিয়ে - 
  • আবেদনকারীকে নূন্যতম অষ্টম শ্রেণী পাশ থাকতে হবে।
  • কাজের ভিসা আবেদনকারী নাগরিকের বয়স হতে হবে কমপক্ষে ২৫ বা তার থেকে বেশি।
  • একটি বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে যার মেয়াদ কমপক্ষে ১৮ মাস থাকা লাগবে।
  • যথাযথ ভাবে পূরণকৃত আবেদন পত্র
  • কাজের পূর্ব অভিজ্ঞতা সম্পর্কে প্রশংসাপত্র
  • সাম্প্রতিক তোলা রঙিন ছবি
  • কোম্পানির চাকরির চিঠি

৬.আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন-উত্তর 

প্রশ্ন ১: মালয়েশিয়া তে সর্বনিম্ন বেতন কত হতে পারে?

উত্তর: বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ২৪ হাজার টাকা।

প্রশ্ন ২: মালয়েশিয়া তে কাজের ভিসার মেয়াদ কত?

উত্তর: প্রথমত তিন বছর এর পর বাড়ানো যাবে।

প্রশ্ন ৩: কোন কাজের চাহিদা সবচেয়ে বেশি?

উত্তর: কৃষি ও নির্মাণ কাজের চাহিদা বেশি।

প্রশ্ন ৪: মালয়েশিয়া যেতে শিক্ষাগত যোগ্যতা?

উত্তর: নূন্যতম  ৮ম শ্রেণী পাশ।

আরও পড়ুনঃ জেনে নিন অনিয়মিত মাসিক হওয়ার কারণ

৭. লেখকের মন্তব্য

প্রিয় পাঠক, আজকে আমরা আপনাদের সাথে মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।মালয়শিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে বা যেকোনো বিষয়ে আপনাদের কোনো অভিযোগ বা মতামত নিচের কমেন্ট বক্সে লিখে জানাবেন। ঢাকা বিশববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন The DU Speech এর সাথেই থাকবেন। মালয়েশিয়া কোন কাজের চাহিদা বেশি এ সম্পর্কে হোক বা যেকোনো বিষয়ে আমরা আপনাদের মতামতকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করবো।


লেখক: খাদিজা খা
পড়াশোনা করছেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় 
জেলা: শরিয়তপুর



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা
মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন
পড়াশোনা করছেন:  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। 
জেলা: নাটোর

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?