The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/09/singapur-hromik-niyog.html

সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২

দেশের অনেকেই এখন সিঙ্গাপুর শ্রমিক ভিসা ২০২২ সম্পর্কে জানতে চান। আধুনিকতার যুগে এসে এখন সিঙ্গাপুর শ্রমিক ভিসা ২০২২ সম্পর্কীয় তথ্য জানতে এখন আর তৃতীয় ব্যক্তি বা দালালের কাছে যাওয়ার প্রয়োজন নেই, এখন ঘরে বসেই  সিঙ্গাপুর শ্রমিক ভিসা ২০২২  সকল তথ্য (যেমনঃ সিঙ্গাপুরে যেতে কত টাকা লাগে, ভিসার প্রাইস, শ্রমিকদের বেতন কত, যোগ্যতা ইত্যাদি ) সম্পর্কে জানতে পারবেন এই আর্টিকেলে। তাই মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।


অনুচ্ছেদ সূচি (যে অংশ পড়তে চান তার উপর ক্লিক করুন)

  1. সিঙ্গাপুরে যেতে কত টাকা লাগে?
  2. শ্রমিক ভিসার জন্য যোগ্যতা কেমন লাগে?
  3. সিঙ্গাপুর ভিসার প্রাইস এবং প্রসেসিং কি?
  4. সিঙ্গাপুরে শ্রমিকদের বেতন কত?
  5. সিঙ্গাপুরে শ্রমিক নিয়োগে কিভাবে কাজ খুজবেন?
  6. কেন আপনি সিঙ্গাপুরে যাবেন?
  7. আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর
  8. লেখকের মন্তব্য

১.সিঙ্গাপুরে যেতে কত টাকা লাগে?সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২

এই পর্যায়ে সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২আর্টিকেলে জানানো হবে, বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুর শ্রমিক  ভিসায় কত টাকা লাগে। সবার আগে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার আগে সিঙ্গাপুর সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপুর্ণ। সিঙ্গাপুরে যেতে  সর্বমোট কত টাকা লাগে এইটা আসলে নির্ভর করে বিভিন্ন এজেন্সির উপরে সিঙ্গাপুরের ভিসা কত টাকা লাগে তা আসলে নির্ভর করে বিভিন্ন কাজের ভিত্তিতে। সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২ এর ভিসার এখন বর্তমান মুল্য হচ্ছে গড়ে  পাঁচ থেকে সাত লক্ষ টাকা এবং তার সাথে ট্রেনিং আব্যশক কারন সিঙ্গাপুর  সবসময় দক্ষ শ্রমিক নিয়োগে বিশ্বাসী।  অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, যে আপনি যদি দক্ষ-শ্রম শক্তি হয়ে থাকেন অর্থাৎ আপনার ভেতরে যদি দক্ষতা থাকে তাহলে এক লক্ষ 50 থেকে 2 লক্ষ 50 হাজার টাকার ভেতরে সিঙ্গাপুর যেতে পারবেন।

২.ভিসার জন্য যোগ্যতা কেমন লাগে? সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২

আপনি যদি সরকারিভাবে নিজ উদ্যোগে যেতে চান তাহলে আপনাকে সরকারিভাবে সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগের সার্কুলার ২০২২ এর জন্য অপেক্ষা করা প্রয়োজন । সিঙ্গাপুর কখন এবং কোন সময়ে শ্রমিক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেয় তার খবর রাখতে হবে। আর যদি সরকারিভাবে সিঙ্গাপুরে যেতে চান তাহলে উক্ত কাজ সম্পর্কে আপনার দক্ষতা থাকা প্রয়োজন এবং শারীরিকভাবে ফিট আছেন তার প্রমান হিসেবে মেডিকেল চেকআপের কপি থাকতে হবে। কিন্তু সাধারণত অদক্ষ কর্মী হিসেবে বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুরে শ্রমিক নিয়োগ  করা হয়ে থাকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে যেমন - হোটেল ক্লিনার, কনস্ট্রাকশন মেশিনারিজ এমনকি মহিলাদের জন্য গৃহকর্মী হিসেবে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা নিতে পারবে।

৩.সিঙ্গাপুর ভিসার প্রাইস এবং প্রসেসিং কি?সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২

ই পর্যায়ে সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগের জন্য ২০২২-সালে এসে সিঙ্গাপুরের ভিসা করতে হলে অবশ্যই সিঙ্গাপুরে অবস্থানরত কারো হতে আমন্ত্রণপত্র নিতে হবে। সিঙ্গাপুরের শ্রমিক ভিসা ফি  সাধারণত 300 থেকে ৪০০ সিঙ্গাপুরিয়ান ডলার হয়ে থাকে। ভিসা করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যা যা লাগে সব নিতে হবে, এবং তার পাশাপাশি সিঙ্গাপুরে পৌছানোর দিন থেকে শুরু করে 6 মাস মেয়াদ আছে এমন পাসপোর্ট অবশ্যই থাকতে হবে। পাসপোর্টে কমপক্ষে একটি ফাঁকা পৃষ্ঠা থাকা আবশ্যকীয় এবং তিন মাসের মধ্যে সদ্য তোলা দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি দিতে হবে। ছবি রঙিন হবে এবং এর ব্যাকগ্রাউন্ড সাদা হবে, ছবির সাইজ হওয়া লাগবে 25 থেকে 35 মিলিমিটার।

৪.সিঙ্গাপুরে শ্রমিকদের বেতন কত?সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২

সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২ আর্টিকেলের এই পর্যায়ে জানানো হবে, সাধারণত সিঙ্গাপুর শ্রমিকদের বেতন কেমন থাকে। অভিবাসী কর্মীদের সঙ্গে এজেন্সি এবং নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর চুক্তি অনুযায়ী সিঙ্গাপুরে একজন কর্মীর মাসিক গড় বেতন হওয়ার কথা ৪৬ হাজার টাকার আশেপাশে । কিন্ত অধিক যোগ্যতাসম্পন্ন লোক যেমন বৈদেশিক প্রফেশনাল এক্সিকিউটিভ অথবা ম্যানেজার সাধারণত এই সকল মানুষদের  বেতন একটু বেশিই হয়ে থাকে যা ন্যূনতম 3300 সিঙ্গাপুরিয়ার ডলার। মাঝেমাঝে লোক মুখে শোনা যায় যে যারা সিঙ্গাপুরে যায় তাদের মাসিক  60-70 হাজার টাকা বেতন হয়ে থাকে এইটা  সত্য আবার আসলে অনেকাংশে সত্য না  অর্থাৎ  শ্রমিকদের বেতন নির্ভর করবে তার কাজের উপর ভিত্তি করে। যদি আসলেই সবার বেতন যদি এক হতো তাহলে তাদের যোগ্যতা এবং দক্ষতার কোনো মুল্য থাকতো না । এসব ভিত্তিহীন কথায় কান দিয়ে নিজের মনোবল ভাঙ্গার কোনো মানে নেই। 

৫.সিঙ্গাপুরে শ্রমিক নিয়োগে কিভাবে কাজ খুজবেন?সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২

করোনা মহামারির পর সিঙ্গাপুর পুরোদমে আবার শ্রমিক নিয়োগ শুরু করেছে কারন সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২- সালে আবার কাজের চাহিদা দিনকে দিন বেড়ে চলেছে। যেমন বাংলাদেশ থেকে ব্যাপক হারে ক্লিনিং পদে নিয়োগের আশ্বাস দিয়েছে সিঙ্গাপুর প্রবাসী মন্ত্রণালয় । যারা সিঙ্গাপুরে ক্লিনার শ্রমিক হিসেবে যেতে চায় তাদের শুধুমাত্র উক্ত কাজ নিয়ে একটা ট্রেনিং থাকতে হবে এতে করে তাদের সিঙ্গাপুরে কাজ পাওয়ার পথ আর সুগম হবে।

৬.কেন আপনি সিঙ্গাপুরে যাবেন?সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২

মানুষ সিঙ্গাপুরে যায় তাদের জিবনটা কিছুটা উন্নত করার জন্য ,কারন সিঙ্গাপুরে্র মানুষের জীবনযাত্রার মান অনেক ভালো। বাংলাদেশের মানুষ সিঙ্গাপুরে শ্রমিক হিসেবে নিয়োগ পেতে চায়, কারন সিঙ্গাপুরের শ্রমিকদের বেতন এবং সুযোগ সুবিধা বাংলাদেশের শ্রমিকদের তুলনায় অনেক বেশি যায় তাই দেশের মানুষ সিঙ্গাপুর শ্রমিক নিয়োগ ২০২২ এর সার্কুলারের অপেক্ষায় আছে। কিন্তু কেউ যদি স্কিল ডেভেলপ করে সিঙ্গাপুরে যায় তাহলে তার বেতন হবে আর বেশি তার লাইফস্টাইল হবে আর উন্নত। অন্যদেশ গুলোতে এতে অনেক টাকা খরচ হয় তবে সিঙ্গাপুরে শ্রমিক ভিসায় যেতে গড়ে ছয় থেকে সাত  লক্ষ টাকা লাগে এবং সেখানে ইনকামও অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি বলা চলে।

আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তরঃ

১.প্রশ্নঃ সিঙ্গাপুরে যেতে কি সিঙ্গাপুর ভাষা শিখতে হবে?

উত্তরঃ এইটা নির্ভর করে কোম্পানির উপর। কোম্পানি বাধ্যতামূলক করলে শিখতে হবে।

২.প্রশ্নঃ সিঙ্গাপুরের ভাষা কি বাংলাদেশে শিখা যাবে?

উত্তরঃ জ্বী, দেশীয় অনেক এজেন্ট এ কাজ করে থাকে।

৩.প্রশ্নঃ  সিঙ্গাপুরের শ্রমিক ভিসার জন্য সরবনিম্ন বয়স থাকা জরুরী?

উত্তরঃ ১৮ বছর- থেকে সর্বোচ্চ ৫০ বছর।

৪.প্রশ্নঃ  ১ সিঙ্গাপুরিয়ান ডলার = বাংলাদেশি কত টাকা

উত্তরঃ ৬৭.৫২ টাকা

লেখকের মন্তব্যঃ

বাংলাদেশে অনেক মানুষ আছেন তারা সিঙ্গাপুরে কাজের জন্য যেতে চায় কিন্তু সঠিক ধারনা না থাকার কারনে তারা হয়তো দেশীয় এজেন্ট দ্বারা প্রতারিত হয় নয়তোবা বেশি টাকা দিয়ে সিঙ্গাপুর যায়। সিঙ্গাপুর শ্রমিক ভিসা ২০২২- লেখাটি তাদের জন্য যারা বেসরকারি ও সরকারিভাবে সিঙ্গাপুর যেতে চায়, এই আর্টিকেলে সিঙ্গাপুরে কিভাবে যাওয়া যায়, কিভাবে ভিসার জন্য আপ্লাই করতে হয়, কিভাবে নিজেকে যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে হয়, কিভাবে সেখানে কাজ খুঁজা যায় এসব বিষয়ে একটি স্পষ্ট ধারণা দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে, লেখাটি পড়ার পর আসা রাখি আপনাদের মনের সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে পেরেছি। তারপরেও যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট করবেন, পাশাপাশি আমাদের এ সম্পর্কিত অন্যান্য আর্টিকেলগুলো পড়বেন। ধন্যবাদ। 


পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?