The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/08/honours-subject-kiki.html

অনার্স সাবজেক্ট কী কী?

যে কোনো শিক্ষার্থী অনার্সে ভর্তির আগে সবচেয়ে বেশি বিচলিত থাকে সাবজেক্ট চয়েজ নিয়ে। আর সাবজেক্ট চয়েজ এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে অনার্সে  কী কী সাবজেক্ট আছে? অনার্স সাবজেক্ট কি কি তা জানা থাকলে জব সেক্টরে সাবজেক্ট এর চাহিদা অনুযায়ী অথবা পছন্দক্রম অনুযায়ী সাবজেক্ট চয়েজ দিতে সুবিধা হয় ।শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী আছে তা অনেকটা নির্ভর করে আপনি কোন বিভাগের শিক্ষার্থী তার ওপর। বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী এবং তার বিস্তারিত সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেল।উভয় বিভাগ থেকে কিছু কিছু সাবজেক্ট আছে যেগুলো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন পাবলিক বা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স করার জন্য পাওয়া যায়। আবার কিছু বিষয় আছে যেগুলো শুধু বিশেষ বিশেষ বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্সে আছে। 


অনুচ্ছেদ সূচি 

  • বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী এবং তা সম্পর্কে বিস্তারিত!
  • মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী এবং তা সম্পর্কে বিস্তারিত!
  • ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী এবং তা সম্পর্কে বিস্তারিত!

বিভিন্ন জাতীয় বা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স  সাবজেক্ট কী কী আছে, আপনি যদি  তা সম্পর্কে না জানেন, তাহলে আজকের এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনি সম্পূর্ণ ভাবে জানতে পারবেন জাতীয় পাবলিক-প্রাইভেট  বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স সাবজেক্ট কী কী আছে!

 

বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট  কী কী ?

অনার্স ভর্তির সময় শিক্ষার্থীরা সাধারণত নিজস্ব বিভাগ অনুসারে সাবজেক্ট পছন্দ করে থাকে। এজন্য আসুন জেনে নিই , বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কি কি?

আশা করি, এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণভাবে পড়ার মাধ্যমে আপনি বিজ্ঞান বিভাগের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কি কি তা সম্পর্কে বিস্তারিত পারবেন। এছাড়াও বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্সে কোন সাবজেক্ট জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় আর কোন সাবজেক্ট পাবলিক, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় পড়ানো হয়, তা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা লাভ করতে পারবেন।

বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য জাতীয় ও যেকোনো পাবলিক, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে কমন অনার্স সাবজেক্ট কী কী? 

বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা সাধারণত অনার্স কালীন সময়ে যে সকল সাবজেক্ট নিয়ে পড়াশোনা করে তার মধ্যে অনেক সাবজেক্ট রয়েছে যেগুলো শুধু কোনো স্বনামধন্য বিশেষ পাবলিক বা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পাওয়া যায় আবার কিছু কিছু সাবজেক্ট রয়েছে যেগুলোতে আপনি বিভিন্ন পাবলিক , প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে পারেন। আসুন ভালোভাবে বিস্তারিত জেনে নিই, এই জাতীয় ও যেকনো পাবলিক ,প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে কমন অনার্স সাবজেক্ট কি কি তা সম্পর্কে!

  1. পদার্থবিজ্ঞান 
  2. রসায়ন 
  3. গণিত 
  4. পরিসংখ্যান 
  5. জীব রসায়ন
  6. গার্হস্থ্য অর্থনীতি 
  7. মৃত্তিকা বিজ্ঞান 
  8. উদ্ভিদবিজ্ঞান 
  9. প্রাণিবিজ্ঞান
  10. ভূগোল ও পরিবেশ
  11. কৃষি শিক্ষা
পদার্থবিজ্ঞান 
বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অন্যতম অনার্স সাবজেক্ট গুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে পদার্থবিজ্ঞান। পদার্থবিজ্ঞান হিসেবে সাধারণত ভৌত পদার্থবিজ্ঞান ও ফলিত পদার্থবিজ্ঞান পড়ানো হয়ে থাকে অনার্স কালীন সময়ে। তবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে অধিকাংশ সময়ই ভৌত পদার্থবিজ্ঞান সাবজেক্ট থাকে এবং ফলিত পদার্থবিজ্ঞান বিভিন্ন প্রাইভেট, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সারির অনার্স সাবজেক্ট গুলোর মধ্যে একটি।
পদার্থ বিজ্ঞান সাবজেক্ট সাধারণত পদার্থের গঠন, পদার্থের মৌলিক গুণাবলী, পদার্থের শক্তিনীতি, পদার্থের ভৌত অবস্থা, বলবিদ্যা, আপেক্ষিকতা, পদার্থের গাঠনিক একক অনু-পরমানু ইত্যাদি সম্পর্কে তাত্ত্বিক ও গাণিতিক তত্ত্বসমূহ পড়ানো হয়ে থাকে। এছাড়াও উক্ত বিষয় গুলোর উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন বিজ্ঞানীদের আবিষ্কৃত মতবাদ বা সূত্র বা নীতিসমূহ প্রতিপাদন প্রয়োগ সম্পর্কিত ব্যাখ্যা পড়ানো হয়ে থাকে।
এছাড়াও যেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয় তা নিন্মরুপ 

1. Tharmal Physics 
2. Waves and Vibrations
3. Optics
4. Electrodynamics 
5. Basic Electronics
6. Solid State Physics 
7. Semiconductor 
8. Electromagnetism
9. Basic Electronics
10. Superconductivity 
11. Plasma Physics 
12. Particle Physics 
13. Mathematical Physics 
14. Nuclear Physics 
15. Radioactivity 
16. Relativity 
17. Material Science 
18. Fibar Optics Physics 
19. Crystallography 
20. Experimental Physics etc.

পদার্থবিজ্ঞানে পড়াশোনা শেষ করে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার একটা বড় সুযোগ রয়েছে। এছাড়াও বিসিএস জেনারেল, বিসিএস টেকনিক্যাল, আণবিক শক্তি কমিশন, বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান, মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র, টেলিকমিউনিকেশন, ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স  ইত্যাদি সেক্টর গুলোতে বেশ চাহিদা রয়েছে।

রসায়ন
রসায়ন আমাদের জীবনের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। রসায়ন সাবজেক্ট টি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সহ দেশের প্রায় সকল পাবলিক প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ানো  হয়ে থাকে । পাবলিক, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়নের অনেকগুলো শাখা রয়েছে যার মধ্যে অন্যতম বায়োকেমিস্ট্রি, ফার্মেসি, ফলিত রসায়ন ও ভৌত রাসায়ন ইত্যাদি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে সাধারণত ভৌত রসায়ন পড়ানো হয়ে থাকে। বিভিন্ন প্রাইভেট সেক্টর গুলোতে ভৌত রসায়ন এর চেয়ে ফলিত রসায়ন এর চাহিদা অনেক বেশি।
রসায়ন অনার্স সাবজেক্ট পড়াকালীন কোর্স সমূহ 
1. Analytical Chemistry 
2. Medicinal Chemistry 
3. Photo Chemistry 
4. Pesticide Chemistry 
5. Organic Chemistry 
6. Biological Chemistry 
7. Environmental Chemistry 
8. Organic Reaction Mechanism 
9. Polymer
10. Co-ordination Chemistry 
11. Catalyst 
11. Reaction Kinetics 
12. Pollutant Presence in Environment 
13. Inorganic Chemistry 
14. X-rays 
15. Synthetic Organic Chemistry. 

বিভিন্ন সরকারি ,বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা ছাড়াও বিভিন্ন গবেষণা ইনস্টিটিউট , ফুড কোম্পানি ,বিভিন্ন  ফার্মাসিটিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিস, বিভিন্ন শিল্প কারখানা, চামড়াশিল্প, পোশাকশিল্প , বিভিন্ন ঔষধ কোম্পানিতে রসায়ন সাবজেক্ট এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।
এছাড়াও গবেষণা খাতে অবদান রাখার জন্য অস্ট্রেলিয়া, ইউকে, ইউএসএ, কানাডা, জাপান, কোরিয়া ইত্যাদি দেশে স্কলারশিপ এর মাধ্যমে উচ্চশিক্ষা অর্জনের সুযোগ রয়েছে।
রসায়ন নিয়ে পড়াশোনা করে আপনি যেসব প্রতিষ্ঠানে আপনার কর্মসংস্থান তৈরি করতে পারবেন তা নিম্নে আলোচনা করা হলঃ
রাসায়নিক কোম্পানি
  • বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন
  • জিডিএস কেমিক্যাল কোম্পানি
  • যমুনা গ্রুপ 
  • রিমিক্স কর্পোরেশন লিমিটেড
  •  প্রদীপ কেমিক্যাল অ্যান্ড কোম্পানি 
  • কোহিনুর কেমিক্যাল 
  • ইমপ্রেস কেমিক্যাল ইত্যাদি।
গবেষণার জন্য সরকারি বা বেসরকারি ল্যাবরেটরি সমূহ
  • বাংলাদেশ বৈজ্ঞানিক শিল্প গবেষণা কাউন্সিল
  • মেটেরিয়াল কেমিস্ট্রি রিসার্চ ল্যাব ঢাবি
  • বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন
  • মেটেরিয়াল কেমিস্ট্রি রিসার্চ ল্যাব
  • ইনস্টিটিউট অফ ফুয়েল রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ইত্যাদি।
প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রি
  • RFL
  • Partex 
  • Otobi
  • Bengle etc.
গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রি
  • Beximco fashion 
  • Standard group
  • Opex Sinha
  • Square Fashion etc.
Pharmaceutical বা ওষুধ শিল্প
  • ACME
  • Square 
  • Beximco
  • Incepta etc.
পরিবেশগত সংস্থা
  • এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন
  • Ambala Foundation etc.
বিভিন্ন ফুড কোম্পানি
  • Prince Food
  • Haque etc.
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বিভিন্ন পাবলিক বা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন নিয়ে পড়াশোনা করে সরকারি জব ছাড়াও আপনি উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানগুলোতে কাজ করে ভাল মানের একটি ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারবেন।

গণিত
যে কোন জাতীয় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় অনার্সে গণিত নিয়ে পড়ানো হয়ে থাকে। গণিত সাবজেক্ট এ পড়াশোনা মাধ্যমে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতের অবদান রাখা যায়। গণিত অনার্স কালীন সময়ে এসব বিষয়ে পড়তে হয় তা নিম্নরূপ
  • বীজগণিত 
  • জ্যামিতি 
  • ক্যালকুলাস 
  • গাণিতিক বিশ্লেষণ 
  • অন্তরীকরণ 
  • সংখ্যাতত্ত্ব বিশ্লেষণ 
  • ফাংশনাল এনালাইসিস 
  • টেনশর এনালাইসিস ইত্যাদি।
এবং পাশাপাশি নন মেজর হিসেবে 
  • কম্পিউটার সাইন্স 
  • পদার্থবিজ্ঞান 
  • কোডিং ডিকোডিং 
  • প্রোগ্রামিং ইত্যাদি।
অনার্স সাবজেক্ট হিসেবে গণিতের উচ্চশিক্ষা ও বিভিন্ন সেক্টর
বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য গণিত একটি সুবিধাজনক সাবজেক্ট। গণিতে অনার্স কমপ্লিট করে যোগ্যতার ভিত্তিতে বিশ্বের যেকোনো নামিদামি বিশ্ববিদ্যালয় মাস্টার্স বা পিএইচডি এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। এছাড়াও এতে যাচাই পরীক্ষায় 50% প্রশ্ন গণিত রিলেটেড হাওয়াই অনার্স করলে আপনি যাচাই বাছাই প্রক্রিয়ায় আপনি অনেক এগিয়ে থাকতে পারবেন।
ম্যাথামেটিক্স এর বিভিন্ন ভাগ আছে যার মধ্যে অন্যতম পিওর ম্যাথমেটিক্স, এপ্লাইড ম্যাথমেটিক্স, কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ম্যাথমেটিক্স, কম্পিউটেশনাল ম্যাথামেটিক্স ইত্যাদি।
টপ রেংকিং এর কিছু ইউনিভার্সিটি তে পিওর ম্যাথমেটিক্স এর জন্য অনেক স্কলার্শিপ প্রদান করে থাকে বিভিন্ন দেশের নামকরা কিছু বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়া ম্যাথমেটিসিয়ান দের জন্য রয়েছে গবেষণায় সুযোগ রয়েছে। আপনি পিওর ম্যাথামেটিক্স নিয়ে পড়াশোনা করলে এই সকল সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।
কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ম্যাথামেটিক্স এবং কম্পিউটেশনাল ম্যাথমেটিক্স এ পড়াশোনা শেষ করে বিভিন্ন আইটি কোম্পানিতে ভালো সেলারি তে ভালো পোস্ট পেতে পারেন। এছাড়াও ফাইনান্সিয়াল জব রিলেটেড কিছু সেক্টর রয়েছে যেখানে ম্যাথমেটিশিয়ান কদর রয়েছে।
সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন স্কুল, কলেজ , বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা সুযোগ রয়েছে ম্যাথমেটিক্স অনার্স করে। এছাড়াও আপনি বিভিন্ন অ্যানালিটিক্যাল এবং গবেষণা সেক্টরে কাজ করার সুযোগ পেতে পারেন।
পরিসংখ্যান 
বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ গড়ার লক্ষ্যে পরিসংখ্যান একটি অপার সুযোগ সুবিধা প্রদানকারী সাবজেক্ট। যেকোনো সুশৃঙ্খলিত উপাত্ত সংগ্রহ, বিশ্লেষণ , টেবিলে উপস্থাপন বা তালিকাভুক্ত করা ও ব্যাখ্যা করার প্রক্রিয়া পরিসংখ্যান।
বাংলাদেশের বিভিন্ন বা প্রায় সকল পাবলিক ,জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় পরিসংখ্যান অনার্স সাবজেক্ট হিসেবে অন্তর্ভুক্ত।
পরিসংখ্যান নিয়ে অনার্স কোন সময়ে যেসব বিষয় পড়ানো হয়ে থাকে
  • Actuarial Science 
  • Quality Management 
  • Multivariate Analysis 
  • Data Science 
  • Sampling Theory 
  • Estimation Theory 
  • Time Science 
  • Data Mining
  • Marketing Analysis 
  • Risk Analysis 
  • Introduction of Probability 
  • Descriptive Statistics 
  • Operation Recherch 
পরিসংখ্যানে বিএসসি কমপ্লিট করে আপনিও বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত থাকতে পারেন। আবার অর্থনীতি, মেডিসিন, মনোবিজ্ঞান, স্বাস্থ্যবিজ্ঞান, উৎপাদন, বিপণন, ব্যাংক-বীমা ইত্যাদি সেক্টরেও ভালো প্রশ্নের জবাবে সুযোগ রয়েছে । এছাড়াও সরকারি বেসরকারি ব্যাংক সহ বিভিন্ন সরকারি চাকরিতে আবেদন করতে পারবেন।
উদ্ভিদবিজ্ঞান
উদ্ভিদবিজ্ঞান হচ্ছে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য জীববিজ্ঞান অন্তর্ভুক্ত একটি সাবজেক্ট । উদ্ভিদবিজ্ঞানে অনার্স কালীন সময়ে চার বছরে বিভিন্ন ধরনের কোর্স করানো হয় শিক্ষার্থীদের। উদ্ভিদবিজ্ঞান শুধু গাছপালা নিয়ে পড়াশোনার মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়, পাশাপাশি উদ্ভিদবিজ্ঞান পড়াকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের উদ্ভিদ রিলেটেড বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ টপিক সম্পর্কে অবগত করা হয়।
বাংলাদেশের প্রায় সব পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স পড়ার সুযোগ রয়েছে।
উদ্ভিদবিজ্ঞানে অনার্স কালীন সময়ে কোর্স সমূহ
  • plant anatomy 
  • plant pathology 
  • plant biochemistry 
  • plant nutrition 
  • plant biotechnology 
  • plant breeding 
  • cytology 
  • biodiversity  
  • physiology  
  • mycology 
  • microbiology 
  • Boistatistics 
  • soil chemistry   
  • horticulture 
  • economic Botany
  • Taxonomy 
  • Gymnosperm etc.
উদ্ভিদ বিজ্ঞানের অনার্স শেষ করে উচ্চশিক্ষা পর্যায়ে আপনি যেসব বিষয়ে পড়ার সুযোগ পেতে পারেন-
  • plants genetic engineering
  • plant biochemistry 
  • molecular genetics 
  • Applied Physiology
  • advanced physiology
  • microbial Genetics 
  • plant tissue culture 
  • taxonomy 
  • plant pathology 
  • Seed pathology etc.
উদ্ভিদবিজ্ঞানের পড়াশুনা শেষ করে আপনি দেশের যেকোনো সরকারি বেসরকারি স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারেন। এছাড়া ও বিভিন্ন গবেষণা কেন্দ্রে সুযোগ রয়েছে। পাশাপাশি উদ্ভিদবিজ্ঞানের পড়াশোনা করে বন পরিবেশ বিভাগ, বিভিন্ন গবেষণা কেন্দ্র ( ধান, পাট, ইক্ষু), ওষুধ তৈরীর কোম্পানি, বীজ উৎপাদন কেন্দ্র ইত্যাদিতে কাজের অপার সম্ভাবনা রয়েছে।
প্রাণিবিজ্ঞান
উদ্ভিদবিজ্ঞানের ন্যায় প্রাণিবিজ্ঞানও জীববিজ্ঞান এর অন্তর্ভুক্ত একটি সাবজেক্ট। বাংলাদেশের সকল পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাণিবিজ্ঞানে অনার্স সম্পন্ন করা যায়। প্রাণিবিজ্ঞানে প্রাণীর শরীর তত্ত্ব পাশাপাশি প্রাণী সম্পর্কিত অনেক বিষয়ে পড়ানো হয়ে থাকে। যার মধ্যে অন্যতম প্রাণী অঙ্গসংস্থানবিদ্যা, শরীর বিদ্যা ,বিবর্তনবাদ , কোষ বিদ্যা, প্রাণরসায়ন ,জীনতত্ত্ব ইত্যাদি।
প্রানীবিজ্ঞানে অনার্স কালীন সময়ে চার বছরে যা যা পড়ানো হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ
  • animal anatomy 
  • animal physiology
  •  biochemistry 
  • introduction of Zoology 
  • biostatistics 
  • animal embryology
  • bioinformatics 
  • entomology 
  • environmental Biology 
  • Oceanography 
  • Animal Genetics
  • Phyla 
  • Ecology
  • Biodiversity etc.
প্রাণিবিজ্ঞানের শেষ করে বিশ্বের বিভিন্ন নামিদামি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষার সুযোগ রয়েছে।
এছাড়াও সরকারি ও বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা সুযোগ রয়েছে। পাশাপাশি বিভিন্ন প্রাণী গবেষণা কেন্দ্র , মৎস্য গবেষণা কেন্দ্র ইত্যাদিতে কাজের সুযোগ রয়েছে।
মনোবিজ্ঞান 
মনোবিজ্ঞান একটি বিজ্ঞান ভিত্তিক সাবজেক্ট। মনোবিজ্ঞানী মানুষ ও প্রাণীর আচরণ ও মানসিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হয়। আমাদের দেশে প্রায় সকল পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান অনার্স পড়ানো হয়। এছাড়াও ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিতেও মনোবিজ্ঞান নিয়ে অনার্স পড়া যায়।
মনোবিজ্ঞানের বিষয়বস্তু গুলো হচ্ছে
  • প্রাণীর আচরণ 
  • মানুষ ও প্রাণী 
  • মানুষ ও প্রাণীর মানসিক অবস্থা
  • বিজ্ঞান
মনোবিজ্ঞানের বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে মানুষ ও প্রাণীর আচরণ ও মন সম্পর্কিত গবেষণা করা হয়।
মনোবিজ্ঞানের অনেকগুলো প্রধান শাখা রয়েছে, তার মধ্যে অন্যতম
  • সাধারণ মনোবিজ্ঞান 
  • সমাজ মনোবিজ্ঞান 
  • শিক্ষা মনোবিজ্ঞান 
  • শিশু মনোবিজ্ঞান 
  • বিকাশ মনোবিজ্ঞান 
  • উপদেশ মনোবিজ্ঞান 
  • পরীক্ষণ মনোবিজ্ঞানের 
  • শিল্প মনোবিজ্ঞান 
  • চিকিৎসা মনোবিজ্ঞান 
  • স্বভাব মনোবিজ্ঞান 
  • শরীর বৃত্তীয় মনোবিজ্ঞান 
  • প্রকৌশল মনোবিজ্ঞান ইত্যাদি।
মনোবিজ্ঞান সারা জীবন ব্যাপী শিক্ষা। মনোবিজ্ঞানের পড়াশোনা শেষ করে বিদেশে উচ্চশিক্ষার যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিয়োগ পেতে পারেন।
এছাড়াও মনোবিজ্ঞানে পড়াশোনা শেষ করে দেশের বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল ,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকতার সুযোগ রয়েছে।

ভূগোল
পদ্ধতি ও রিসার্চ মেথডলজির কারণে ভূগোল বিজ্ঞান অধিভুক্ত সাবজেক্ট। তবে আমাদের দেশে সাধারণত নবম দশম ও একাদশ দ্বাদশ শ্রেণীর ভূগোল মানবিক অনুষদের ছাত্র-ছাত্রীদের পড়ানো হয় বলে সবাই এমনভাবে যে ভূগোল শুধু মানবিক বিভাগেরই সাবজেক্ট । যদিও ভূগোল সাবজেক্ট বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় একদম নিচে অবস্থান করে। তবে ভূগোল সাবজেক্টে পড়াশোনা করলেও কিন্তু ভালো ভবিষ্যৎ হতে পারে।
প্রায় সকল পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল সাবজেক্টে অনার্স পড়ানো হয়ে থাকে।
ভূগোলে অনার্স কালীন সময়ে সাধারণত 
  • পৃথিবী, 
  • সৌরজগত, 
  • সূর্য 
  • সূর্যের অবস্থান 
  • গ্রহের অবস্থান
  • গ্রহ সমূহ এবং এর বিস্তারিত, 
  • পৃথিবীর অবস্থান, 
  • ভূ অভ্যন্তরীণ বিষয়, 
  • বিভিন্ন আন্তর্জাতিক বিষয়সমূহ, 
  • পরিবেশ, 
  • স্থল ও জল ইত্যাদি 
সম্পর্কে ব্যাপক ধারণা লাভ করা যায়।
ভূগোল সাবজেক্টে অনার্সে পড়াশোনা শেষ করে বিদেশে উচ্চশিক্ষার সুযোগ রয়েছে এছাড়াও আপনি বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ভালো তোমাদের চাকরির সুযোগ পেতে পারেন। পাশাপাশি নাসা সহ বিভিন্ন সংস্থা তে ভূগোল সাবজেক্টে বেশ কদর রয়েছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা ও সুযোগ ও রয়েছে।
মৃত্তিকা বিজ্ঞান
মৃত্তিকা বিজ্ঞান সাধারণ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি গবেষণামূলক সাবজেক্ট। মৃত্তিকাবিজ্ঞান বাংলাদেশের বিভিন্ন পাবলিক, প্রাইভেট, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বিশেষ করে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে অধিক গুরুত্ব সহকারে পড়ানো হয়ে থাকে।
মৃত্তিকা বিজ্ঞানে অনার্স করলে সময়ে যে সকল বিষয় পড়ানো হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ
  • মাটি মাটির বিভিন্ন উপাদান 
  • কোন মাটি কোন ফসলের জন্য উপযুক্ত 
  • মাটিতে উপস্থিত মিনারেলস 
  • মাটিতে উপস্থিত রক্স
  • মাটির বিভিন্ন হরিজন
  • মাটির রং
  • তাপমাত্রা
  • ওয়েদারিং
  • মাটি ও পানি 
  • মাটি ও বায়ু 
  • মাটিতে উপস্থিত বিভিন্ন নিউট্রিয়েন্ট
  • ম্যাক্রোনিউট্রিয়েন্ট 
  • মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট
মাটির কোন উপাদান কোন উদ্ভিদের জন্য উপযুক্ত ইত্যাদি বিষয়ে গবেষণামূলক তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক শিক্ষা প্রদান করা হয়ে থাকে।
মৃত্তিকা বিজ্ঞানে পড়াশোনা শেষ করে আপনি বিভিন্ন কৃষি গবেষণা সম্পর্কিত প্রতিষ্ঠান কাজের সুযোগ পেতে পারেন। এছাড়াও কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়ার সুযোগ রয়েছে। পাশাপাশি দেশের বাইরে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে চাইলে স্কলারশিপ এর মাধ্যমে বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে পারবেন।
মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কি কি? 
বিভাগ বিবেচনায় সাধারণত শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট আলাদা আলাদা হয়ে থাকে। বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা সাধারণত বিজ্ঞান অধিভুক্ত  সাবজেক্ট নিয়ে অনার্সে পড়াসোনা করে এবং মানবিক ও ব্যবসায় বিভাগের শিক্ষার্থীরা যথাক্রমে মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত সাবজেক্ট নিয়ে অনার্স করে থাকে। এবার জানা যাক মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী? 
আপনি যদি মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী হয়ে থাকেন, তাহলে বিভিন্ন পাবলিক প্রাইভেট ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আপনি কোন কোন সাবজেক্টে অনার্স পড়তে পারবেন তা নিম্নরূপ
  • আইন 
  • অর্থনীতি 
  • ইংরেজি
  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান 
  • সমাজবিজ্ঞান 
  • ইতিহাস 
  • ইসলামের ইতিহাস 
  • বাংলা 
  • গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা 
  • লোক প্রশাসন
  • দর্শন 
  • সমাজকর্ম 
  • ইসলাম শিক্ষা
  • সংস্কৃত 
  • ফরাসি ভাষা ও সাহিত্য
  • পালি ও বুদ্ধিস্ট স্টাডিজ
  • চাইনিজ ল্যাঙ্গুয়েজ এন্ড কালচার
  • জাপানিজ ল্যাঙ্গুয়েজএন্ড কালচার

আইন 
মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য আইন সাবজেক্ট একটি স্বপ্নের নাম। আর তা যদি হয় কোনো স্বনামধন্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাহলে তো কথাই নেই। অধিকাংশ মানবিক শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষস্থানে অবস্থান করে আইন সাবজেক্ট । মানবিক বিভাগের জন্য আইন সাবজেক্টকে একটি রাজকীয় সাবজেক্ট ও বলা যায়।
আইন নিয়ে পড়াশোনা করে বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের এক অপার সম্ভাবনা রয়েছে। লন্ডন থেকে বার এট ল ডিগ্রী নেওয়ার সুযোগ রয়েছে শুধু আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য। বাংলাদেশের প্রশাসনিক অবকাঠামো বিচার বিভাগ, আইন বিভাগ ও নির্বাহী বিভাগে শিক্ষার্থীদের প্রবেশাধিকার অবর্ণনীয়।
বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে আইন বিভাগ চালু করা হচ্ছে ।এজন্য আইন বিভাগ নিয়ে পড়াশোনা করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা ব্যাপক সুযোগ রয়েছে। সেহেতু সারা বাংলাদেশের শিক্ষার্থী হাতে গোনা, তাই এক্ষেত্রে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় যাওয়ার জন্য প্রতিযোগিতাও তুলনামূলকভাবে অনেক কম।

অর্থনীতি 
আইনের পরে জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অন্যতম সাবজেক্ট ইকোনমিক্স। কলা অনুষদের রয়েল সাবজেক্ট বলা হয় ইকোনমিক্স কে।
বাংলাদেশের সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় , কিছু প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় ও কিছু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ইকোনমিক্স সাবজেক্টে অনার্স পড়ানো হয়ে থাকে।
ইকোনমিক্স সাবজেক্ট এ অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের একাডেমিক পড়াশোনার প্রেশার অনেক বেশি থাকি। বিশেষ করে গণিত ও পরিসংখ্যান বেশ দক্ষতার প্রয়োজন হয়।
অনার্স কালীন সময়ে ইকোনমিক্স অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের যা যা পড়ানো হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ
  • বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা 
  • বিশ্ব অর্থনীতি 
  • পলিটিকাল অর্থনীতি 
  • ইসলামিক অর্থনীতি 
  • গণিত 
  • পরিসংখ্যান
এছাড়াও যেসব বিষয় সংযুক্ত করা হয় কোর্স হিসেবে
  • ব্যাংকিং 
  • ফিনান্স 
  • মানেজমেন্ট 
  • একাউন্টিং ইত্যাদি।
দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির ওপর পিএইচডি করার সুযোগ রয়েছে এছাড়া বৈদেশিক বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশীপ দিয়ে থাকে। অর্থনীতিতে পড়াশোনার মাধ্যমে আমেরিকা, যুক্তরাজ্য, কানাডা সহ বিভিন্ন দেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের বেশ সুযোগ রয়েছে।
এছাড়াও গবেষণা খাতে অর্থনীতিবিদদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বিভিন্ন ব্যাংকের ইকোনমিক্সের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়, এছাড়াও বিভিন্ন অর্থনৈতিক ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কাজের সুযোগ রয়েছে।
বাংলাদেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতিতে পড়াশোনার মাধ্যমিক শিক্ষকতার তার সুযোগ রয়েছে।

ইংরেজি 
সাহিত্যপ্রেমী শিক্ষার্থীদের জন্য ইংরেজি সাহিত্য অন্যতম পছন্দের একটি সাবজেক্ট। এছাড়াও ইংরেজি সাহিত্য পড়ার মাধ্যমে ইংরেজি ভাষা খুব ভালোভাবে আয়ত্ত করা সম্ভব। চাকরির ক্ষেত্রে আপনাকে আরো একধাপ এগিয়ে নিতে পারে।
বাংলাদেশের সকল পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি নিয়ে অনার্স পড়ার সুযোগ সুবিধা রয়েছে।
ইংরেজিতে অনার্স কালীন সময় শিক্ষার্থীদের সাধারণত ইংরেজি কবিতা, ইংরেজি সাহিত্য, বিভিন্ন ইংরেজি ব্যাকরণ সম্পর্কিত জ্ঞান প্রদান করা হয়ে থাকে। এছাড়াও ভাষাগত দক্ষতা অর্জন করা হয়।
যেহেতু আন্তর্জাতিক ভাষা, তাই ইংরেজি সাহিত্য নিয়ে পড়াশোনার মাধ্যমে আপনি বিদেশে উচ্চশিক্ষার সুযোগ পেতে পারেন। এছাড়া বিসিএস ,ব্যাংকসহ স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা পেশায় ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।
 
রাষ্ট্রবিজ্ঞান 
রাষ্ট্রবিজ্ঞান বাংলাদেশের প্রাচীনতম বিষয়।মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য রাষ্ট্রবিজ্ঞান একটি অন্যতম পছন্দের সাবজেক্ট। বাংলাদেশের সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় , কিছু প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রায় সকল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান সাবজেক্টে অনার্স পড়ানো হয়ে থাকে।
রাষ্ট্রবিজ্ঞানে সাধারণ 
  • জনগণ 
  • সরকার 
  • সংবিধান 
  • রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান 
  • রাজনৈতিক দল 
  • শাসনব্যবস্থা 
  • আন্তর্জাতিক বিধান 
  • ইসলামিক রাজনীতি 
  • বিশ্ব রাজনীতি ইত্যাদি 
সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়ে থাকে।
এছাড়াও রাষ্ট্রবিজ্ঞানে পড়াশোনা শেষ করে দেশের বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল ,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকতার সুযোগ রয়েছে। রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনার মাধ্যমে আপনি বিদেশে উচ্চশিক্ষার সুযোগ পেতে পারেন। এছাড়া বিসিএস ,ব্যাংকসহ বিভিন্ন সরকারি চাকরির যাচাই মূলক পরীক্ষা প্রস্তুতি গ্রহণে  রাষ্ট্রবিজ্ঞান সাবজেক্ট আপনাকে এগিয়ে রাখতে পারে।

সমাজবিজ্ঞান 
মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য কলা অনুষদের অন্তর্ভুক্ত একটি সাবজেক্ট সমাজবিজ্ঞান। দেশের সংস্কৃতি, সামাজিক পরিবর্তন ও বিভিন্ন সমাজতাত্ত্বিক বিষয়ে জ্ঞান লাভ করা যায় সমাজবিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনার মাধ্যমে।
বাংলাদেশের সকল পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সমাজবিজ্ঞান অনার্স চালু হয়েছে।
সমাজ বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা চলাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের যেসব বিষয় পড়ানো হয়ে থাকে-
  • সামাজিক গবেষণা 
  • সামাজিক সমস্যা বিশ্লেষণ 
  • সামাজিক নীতি 
  • অর্থনৈতিক সমাজবিজ্ঞান 
  • গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান 
  • ঐতিহাসিক সমাজবিজ্ঞান
  • সংগঠন সমাজবিজ্ঞান 
  • নগর সমাজবিজ্ঞান 
  • রাজনৈতিক সমাজবিজ্ঞান
  • গণমাধ্যম সম্পর্কিত সমাজবিজ্ঞান
  • সামাজিক আইন 
  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান 
  • পরিসংখ্যান 
  • বিশ্লেষণী সমাজবিজ্ঞান 
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান ইত্যাদি।
সমাজ বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশুনা শেষ করে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের জন্য বিদেশে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে।সমাজবজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করে আপনি চাইলে বিসিএস বা বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি ব্যাংকে জব করার মাধ্যমে ভালো ক্যারিয়ার করতে পারেন।  এছাড়াও বিশেষ কিছু বিভাগ রয়েছে যেখানে সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয় যেমন
  • গবেষণা বিভাগ, 
  • শিক্ষা বিভাগ ,
  • উন্নয়ন বিভাগ, 
  • স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা বিভাগ, 
  • সামাজিক গবেষণা বিভাগ ইত্যাদি।
এছাড়াও সমাজবিজ্ঞান সাবজেক্টে পড়াশোনা শেষ করে দেশের বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল ,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকতার সুযোগ রয়েছে।

ইতিহাস ও সংস্কৃতি
বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতি মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য কলা অনুষদের অন্তর্ভুক্ত একটি সাবজেক্ট। বাংলাদেশ সৃষ্টির সূচনা,বাংলাদেশ স্বাধীনতার পূর্ববর্তী আন্দোলন ও ইতিহাস, ব্রিটিশ শাসনামল, ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ ইত্যাদি সম্পর্কিত সকল বিষয়েই শাখায় আলোচনা করা হয়।
ইতিহাস ও সংস্কৃতি নিয়ে অনার্স কালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের বাংলাদেশের ইতিহাস জানার পাশাপাশি বিশ্বের অধিকাংশ দেশের ইতিহাস সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করানো হয়। বাংলাদেশের রাজনীতি, বাংলাদেশের সমাজব্যবস্থা, বিশ্ব রাজনীতি, দেশ গঠনের পূর্বে আলোচিত ঘটনা সমূহ ইত্যাদি এই শাখার অন্যতম আলোচ্য বিষয়।
বাংলাদেশের প্রায় সকল পাবলিক ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সাবজেক্টে অনার্স চালু আছে। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাস ও সংস্কৃতিতে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করার সুযোগ রয়েছে এছাড়াও ইতিহাস ও সংস্কৃতি নিয়ে পড়াশোনার মাধ্যমে বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে।
ইতিহাস ও সংস্কৃতি নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে বিসিএস, সরকারি বেসরকারি ব্যাংক সহ বিভিন্ন সরকারি চাকরিতে আত্মনিয়োগ করে ভাল ক্যারিয়ার তৈরি করার সুযোগ রয়েছে। এছাড়া রাজনৈতিক ও গবেষণা খাতে ইতিহাসবিদদের বেশ ভাল রকমের কদর রয়েছে।
ইতিহাস ও সংস্কৃতি নিয়ে পড়াশোনা করে আপনি চাইলে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারেন।

বাংলা ভাষা ও সাহিত্য
বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। যেহেতু আমরা বাংলাদেশের নাগরিক, তাই বাংলা আমাদের কাছে সর্বাধিক মর্যাদাপূর্ণ একটি আবেগের নাম। এই বাংলা ভাষা অর্জনের পিছনে রয়েছে আমাদের একটি তাৎপর্যপূর্ণ অতীত।
মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য কলা অনুষদের অন্তর্ভুক্ত অন্যতম একটি সাবজেক্ট বাংলা ভাষা ও সাহিত্য।
বাংলাদেশের প্রতিটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাতে অনার্স সাবজেক্ট এ পড়াশোনার সুযোগ রয়েছে।
বাংলা সাবজেক্টে অনার্স কালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের বিশেষ দুটি অংশে পড়াশোনা করতে হয়, যার মধ্যে একটি হচ্ছে ব্যাকরণ অংশ এবং অন্যটি বাংলা সাহিত্য অংশ। এছাড়াও সাহিত্য ও ব্যাকরণ এর পাশাপাশি যে বিষয়গুলো গৌণ কোর্স হিসেবে যেসব বিষয় পড়ানো হয়ে থাকে তার মধ্যে রয়েছে -
  • দর্শন 
  • সমাজতত্ত্ব 
  • ইতিহাস 
  • অর্থনীতি 
  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান 
  • সাংবাদিকতা ইত্যাদি।
আপনি চাইলে বাংলা ভাষা ও  সাহিত্য পড়াশোনা করে সাংবাদিকতা, অনুবাদক, লেখক, বৈকরণিক ইত্যাদি বিশেষ বিশেষ  সেক্টরে নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারবেন। এছাড়াও বিসিএস শিক্ষা, বিসিএস প্রশাসন , বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক ইত্যাদিতে ক্যারিয়ার নির্মাণ করতে পারেন।
এছাড়াও বাংলা ভাষা ও সাহিত্য সাবজেক্টে পড়াশোনা শেষ করে দেশের বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল ,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকতার সুযোগ রয়েছে।

ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি
মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য কলা অনুষদের অন্তর্ভুক্ত অন্যতম একটি সাবজেক্ট ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি।
বাংলাদেশের অধিকাংশ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সাবজেক্টে অনার্স পড়াশোনার সুযোগ রয়েছে।
ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সাবজেক্ট নিয়ে অনার্স এ পড়াকালীন সময়ে যে সকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ- 
  • ইসলামিক রাজনীতি, 
  • ইসলাম ধর্মের ইতিহাস, 
  • অটোমান সাম্রাজ্যের ইতিহাস 
  • আধুনিক মুসলিম বিশ্বের ইতিহাস 
  • ইসলামী সভ্যতা সংস্কৃতি 
  • ইসলাম বিধান অনুযায়ী বিভিন্ন ব্যাংকের নীতি
  • ইসলামী বিধান 
  • মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা) এর জীবনী 
  • বিভিন্ন সাহাবীর জীবনী বর্ণনা 
  • বিভিন্ন ইসলামিক স্মরণীয় ঘটনা ও তার ইতিহাস
  • ইসলামের বিভিন্ন যুদ্ধের ইতিহাস, 
  • বিশ্ব গঠনে মুসলিমদের অবদান ইত্যাদি 
ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সাবজেক্ট এ পড়াশোনা করে বিসিএস শিক্ষা, বিসিএস প্রশাসন , বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন চাকরি বা বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক ইত্যাদিতে ক্যারিয়ার নির্মাণ করতে পারেন।
এছাড়াও ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সাবজেক্টে পড়াশোনা শেষ করে দেশের বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল ,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকতার সুযোগ রয়েছে।

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা
ছাত্রজীবনে স্কিল ডেভেলপমেন্ট এবং ভালো একটা ক্যারিয়ার বিল্ড আপ এর জন্য গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা সাবজেক্ট এর চাহিদা ক্রমে বেড়েই চলেছে।মানবিক অনুষদের সাবজেক্ট হয় মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য এটি একটি অন্যতম পছন্দনীয় সাবজেক্ট।
বাংলাদেশের স্বনামধন্য পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অনার্স পড়ানো হয়ে থাকে।
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অনার্স পড়াকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের যে সকল বিষয় পড়ানো হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ
  • যোগাযোগের ধারণা 
  • সাংবাদিকতার ধারণা 
  • বাংলাদেশের সংস্কৃতি 
  • আইসিটি দক্ষতা 
  • মনোবিজ্ঞানের ধারণা 
  • বাংলাতে মিডিয়া নিউজ লেখার নিয়ম 
  • ইংরেজিতে মিডিয়া নিউজ লেখার নিয়ম 
  • নিউজ এডিটিং 
  • ব্রডকাস্ট নিউজ 
  • দেশ ও বিশ্বের রাজনৈতিক অবস্থা 
  • দেশ ও বিশ্বের অর্থনৈতিক অবস্থা 
  • বিশ্বের আন্তর্জাতিক সাম্প্রতিক বিষয়াবলী
  • কমিউনিকেশন স্কিল ইত্যাদি
বিশ্বের বিভিন্ন নামকরা স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় মাস্টার্স বা পিএইচডি ডিগ্রি অর্জনের জন্য বিদেশে উচ্চ শিক্ষার ব্যাপক সুযোগ রয়েছে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য।
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে পড়াশোনা করে বিভিন্ন মিডিয়া, টিভি চ্যানেল ও সাংবাদিকতা পেশায় নিজের ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারবেন। সাংবাদিকতা সহ জনসংযোগ বিভাগের বিভিন্ন সেক্টরে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের বেশ ভালো চাহিদা রয়েছে। এছাড়াও বিসিএস শিক্ষা, প্রশাসন, বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি ব্যাংকে জব করার সুযোগ পাবেন। পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত করার সুযোগ রয়েছে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের।

ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী??
বিভাগ বিবেচনায় সাধারণত শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট আলাদা আলাদা হয়ে থাকে। বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা সাধারণত বিজ্ঞান অধিভুক্ত সাবজেক্ট নিয়ে অনার্সে পড়াসোনা করে এবং মানবিক ও ব্যবসায় বিভাগের শিক্ষার্থীরা যথাক্রমে মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত সাবজেক্ট নিয়ে অনার্স করে থাকে। এবার জানা যাক ব্যবসায় শিক্ষাা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী? 
আপনি যদি ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী হয়ে থাকেন, তাহলে বিভিন্ন পাবলিক, প্রাইভেট ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আপনি কোন কোন সাবজেক্টে অনার্স পড়তে পারবেন তা নিম্নরূপ
  • ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং 
  • ব্যবস্থাপনা
  • মার্কেটিং 
  • হিসাববিজ্ঞান
ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং
ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের শিক্ষার্থীদের জন্য ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং অন্যতম সাবজেক্ট গুলোর মধ্যে একটি। ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ম্যাথমেটিক্যাল বেস্ড একটি সাবজেক্ট। এসব সাবজেক্টে একাডেমিক পড়াশোনার প্রেশার অনেক বেশি, তাই ভালো ফলাফল করাটাও কষ্টসাধ্য।
পাবলিক ও প্রাইভেট ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং কিছু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ কলেজে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং অনার্স সাবজেক্ট হিসেবে গণ্য হয়ে থাকে।
অনার্স কালীন সময়ে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং সাবজেক্টের শিক্ষার্থীদের সেসব বিষয় পড়ানো হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ
  • প্রিন্সিপাল অফ মারকেটিং
  • প্রিন্সিপাল অফ ম্যানেজমেন্ট 
  • প্রিন্সিপাল অফ ইকোনমিক্স
  • ফাইনান্সিয়াল এনালাইসিস এন্ড কন্ট্রোল
  • ই-কমার্স 
  • ই-ব্যাংকিং 
  • ট্যাক্সেশন ইন বাংলাদেশ
  • বিজনেস রিসার্চ মেথডলজি 
  • সেন্ট্রাল ব্যাংকিং
  • ব্যাংকিং এন্ড ইনসিওরেন্স ইত্যাদি।
ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং সাবজেক্টে অনার্স কমপ্লিট করে মাস্টার্স বা পিএইচডি অর্জনের জন্য বিদেশে থেকে বহু স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং সাবজেক্টে পড়াশোনার মাধ্যমে বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে।
এছাড়াও দেশের কিছু জব সেক্টর রয়েছে যেখানে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং এ শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য 
  • এক্সিকিউটিভ অফিসার 
  • ব্যাংক-
  • বীমা 
  • গার্মেন্টস 
  • আর্থিক প্রতিষ্ঠান 
  • কর্পোরেট ফিন্যান্স  
  • কর্পোরেট ব্যাংকিং ইত্যাদি।
এছাড়াও দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার ব্যাপক সুযোগ রয়েছে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং সাবজেক্ট এ পড়াশোনা করে।

ম্যানেজমেন্ট বা ব্যবস্থাপনা
ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের অন্যতম সেরা একটি সাবজেক্ট। ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ এ যেসব সাবজেক্ট রয়েছে, তার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সাবজেক্টে বলা চলে ম্যানেজমেন্ট বা ব্যবস্থাপনাকে। ম্যানেজমেন্ট বা ব্যবস্থাপনা সাবজেক্ট কে ব্যবসায় অনুষদের ফাদার সাবজেক্ট বলা যায় ‌।
ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ব্যবস্থাপনা সাবজেক্টে অনার্স পড়াকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের যে বিষয় গুলো পড়ানো হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ
  • ব্যবস্থাপনা নীতি 
  • ব্যবস্থাপনার সার্বিক পদ্ধতি
  • ব্যবস্থাপনা মডেল 
  • ব্যবস্থাপনা তত্তও 
  • e-business 
  • গ্লোবাল মার্কেটিং 
  • ইকোনমিক্স 
  • ইনফরমেশন টেকনোলজি 
  • বিজনেস মেথডলজি
  • বিজনেস ম্যাথ ইত্যাদি।
ব্যবস্থাপনা সাবজেক্টে অনার্স কমপ্লিট করে মাস্টার্স বা পিএইচডি অর্জনের জন্য বিদেশে থেকে বহু স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপ দিয়ে থাকে।ব্যবস্থাপনা সাবজেক্টে পড়াশোনার মাধ্যমে বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে।
ব্যবস্থাপনা সাবজেক্ট এ পড়াশোনা শেষ করে যেসব বিশেষ যে সকল সেক্টরে জবের সুযোগ রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম 
  • ব্যাংক জব, 
  • ম্যানেজমেন্ট এনালিস্ট, 
  • ব্যাংক পরিচালক ,
  • কর্পোরেট জব ইত্যাদি।
এছাড়াও ব্যবস্থাপনা বা ম্যানেজমেন্ট সাবজেক্ট এ পড়াশোনা করি দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার ব্যাপক সুযোগ রয়েছে।

মার্কেটিং
বিজনেস সেক্টরে নিজের সৃজনশীলতা ও দক্ষতা দেখানোর জন্য সেরা সাবজেক্ট মার্কেটিং।ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের শিক্ষার্থীদের জন্য মার্কেটিং অন্যতম সাবজেক্ট গুলোর মধ্যে একটি। মার্কেটিং সাবজেক্টে একাডেমিক পড়াশোনার প্রেশার অনেক বেশি, তাই ভালো ফলাফল করার জন্য একাডেমিক পড়াশোনায় অনেক বেশি সময় দিতে হয়।
পাবলিক ও প্রাইভেট ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং কিছু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ কলেজে মার্কেটিং অনার্স সাবজেক্ট হিসেবে গণ্য হয়ে থাকে।
অনার্স কালীন সময়ে মার্কেটিং সাবজেক্টে শিক্ষার্থীদের সেসব বিষয় পড়ানো হয়ে থাকে তা নিম্নরূপ
  • প্রিন্সিপাল অফ মারকেটিং
  • প্রিন্সিপাল অফ ম্যানেজমেন্ট 
  • প্রিন্সিপাল অফ ইকোনমিক্স
  • অর্গানাইজেশন বিহেভিয়ার
  • ফান্ডামেন্টাল অফ ফাইন্যান্স
  • এগ্রিকালচারাল মার্কেটিং 
  • সেলস ম্যানেজমেন্ট 
  • ব্র্যান্ড ম্যানেজমেন্ট
  • ফাইনান্সিয়াল এনালাইসিস এন্ড কন্ট্রোল
  • ই-কমার্স 
  • ই-ব্যাংকিং 
  • ট্যাক্সেশন ইন বাংলাদেশ
  • বিজনেস রিসার্চ মেথডলজি 
  • সেন্ট্রাল ব্যাংকিং
  • ব্যাংকিং এন্ড ইনসিওরেন্স ইত্যাদি।
মার্কেটিং সাবজেক্টে অনার্স কমপ্লিট করে মাস্টার্স বা পিএইচডি অর্জনের জন্য বিদেশে থেকে বহু স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। মার্কেটিং সাবজেক্টে পড়াশোনার মাধ্যমে বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে।
এছাড়াও দেশের কিছু জব সেক্টর রয়েছে যেখানে মার্কেটিং সাবজেক্ট এর শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য 
  • মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ অফিসার 
  • ব্যাংক
  • মার্কেটিং এনালিস্ট
  • মার্কেটিং রিসার্চ ম্যানেজার
  • মিডিয়া ডিটেক্টর
  • প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার
  • আর্থিক প্রতিষ্ঠান 
  • কর্পোরেট মার্কেটিং অফিসার ইত্যাদি।
পাশাপাশি মার্কেটিং সাবজেক্টে পড়াশোনা করার মাধ্যমে একজন সফল ও দক্ষ উদ্যোক্তা হওয়ার একটি বড় সুযোগ রয়েছে।
এছাড়াও দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার ব্যাপক সুযোগ রয়েছে মার্কেটিং সাবজেক্ট এ পড়াশোনা করে।

হিসাববিজ্ঞান
প্রফেশনাল লাইফে উজ্জ্বল ক্যারিয়ার গঠনের জন্য একাউন্টিং সাবজেক্ট এর কোন বিকল্প নেই। সফল ক্যারিয়ার গড়তে মোস্ট ওয়ান্টেড সাবজেক্ট হিসেবে পরিগণিত হয় একাউন্টিং সাবজেক্ট। একাউন্টিং ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের মোস্ট ওয়ান্টেড এর সাবজেক্ট।
পাবলিক ও প্রাইভেট ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং কিছু জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ কলেজে একাউন্টিং অনার্স সাবজেক্ট হিসেবে পড়ানো হয়ে থাকে।
একাউন্টিং নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে যে সকল সেক্টরে জবের অন্যতম সুযোগ রয়েছে তা নিম্নরুপ
  • চার্টার্ড একাউন্টেন্ট
  • মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিতে জব
  • কস্ট ম্যানেজমেন্ট একাউন্টেন্ট
  • অডিটর 
  • ব্যাংকের একাউনটেন্ট
  • বিসিএস ট্যাক্স এন্ড  অডিট 
  • সিএজি ইত্যাদি।
একাউন্টিং সাবজেক্টে অনার্স কমপ্লিট করে মাস্টার্স বা পিএইচডি অর্জনের জন্য বিদেশে থেকে বহু স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপ দিয়ে থাকে।একাউন্টিং  সাবজেক্টে পড়াশোনার মাধ্যমে বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রয়েছে।
এছাড়াও একাউন্টিং সাবজেক্ট এ পড়াশোনা করে দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার সুযোগ রয়েছে। 

আশা করি, আজকেই এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে অনার্স সাবজেক্ট কী কী? ,বিজ্ঞান বিভাগের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী? মানবিক বিভাগের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী? ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের জন্য অনার্স সাবজেক্ট কী কী?  এসকল প্রশ্নের উত্তর বিস্তারিত ভাবে জানতে পেরেছেন।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?