The DU Speech https://www.duspeech.com/2022/08/part-time-job-Dhak.html

পার্ট টাইম জব ঢাকা | মোহাম্মদপুর | ধানমন্ডি | মিরপুর ২০২২

যারা পার্ট টাইম জব হিসেবে ঢাকা, মিরপুর, ধানমন্ডি ও মোহাম্মদপুরে অনুসন্ধান বা খোঁজ করছেন তাদের জন্য আশা করি এই আর্টিকেলটি উপকারে আসবে। আপনারা সবাই জানেন, আজকাল অনলাইন প্লাটফর্মে সঠিক তথ্য খুঁজে পাওয়া দুরুহ ব্যাপার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন আপনাদের এই ভোগান্তি দূর করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। আমাদের ওয়েবসাইটে আমরা সঠিক তথ্য দেশবাসীর নিকট পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করি। তারই ধারাবাহিকতায় আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করব কিভাবে ঢাকা, মিরপুর, ধানমন্ডি ও মোহাম্মদপুরে আপনারা পার্ট টাইম জব অনুসন্ধান করবেন?



আর্টিকেল সূচিপত্র (যে অংশ পড়তে চান তার উপরে ক্লিক করুন)

  1. পার্ট টাইম জব কী?
  2. ছাত্র জীবনের পার্ট টাইম জব
  3. গৃহিণী হিসেবে পার্ট টাইম জব
  4. চাকুরী প্রার্থীদের পার্ট টাইম
  5. ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের পার্ট টাইম জব

1. পার্ট টাইম জব কী? | পার্ট টাইম জব মিরপুর, ঢাকা ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর


পার্ট টাইম জব করার আগে আপনার জানা উচিত যে পার্ট টাইম জব আসলে কী? আপনি পার্ট টাইম জব মিরপুর, ঢাকা, ধানমন্ডি বা মোহাম্মদপুর যেখানেই আগ্রহী হন না কেন, পার্ট টাইম জব সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা থাকা চাই। 
সাধারণত সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বা বিকেল পর্যন্ত যে জব করা হয় সেগুলো ফুলটাইম জবের অন্তর্ভুক্ত। পার্ট টাইম জব বলতে এই সময়ের বাইরে নির্দিষ্ট একটি সময়ে কিছু কাজ করার বিনিময়ে আপনাকে কিছু অর্থ দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে পার্ট টাইম জবের সময় ও কার্যক্রম একেক প্রতিষ্ঠানে একেক রকম। এবং আপনার পার্ট টাইম জবে ধরুন অনুযায়ী কর্ম ঘন্টা বা বেতন আলাদা হয়ে থাকে। 
মনে করুন, আপনি পার্ট টাইম জব হিসেবে টিউশনি কে বেছে নিলেন । টিউশনিতে সাধারণত যখন তখন কর্ম ঘন্টা অভিভাবকের সাথে কথা বলে নির্ধারণ করা যায়। আবার, লেখালেখি করে আয় করতে চাইলে আপনাকে নির্দিষ্ট একটি দিনের মধ্যে বা সপ্তাহের মধ্যে নির্দিষ্ট কয়েকটি আর্টিকেল লিখতে হয় । তাই, এখানে আপনি যখন তখন আপনার ফ্রি সময় ব্যবহার করে লিখতে পারবেন। ধরা বাধা কোন কর্ম ঘন্টা এখানে নেই।
আপনি ধরুন, কোন শোরুমে বা বিভিন্ন সার্ভে তে  পার্ট টাইম জব করতে চান শুনে আপনাকে ধরে দেওয়া কর্ম ঘন্টা অনুযায়ী আপনাকে পার্ট টাইম জব করতে হবে। তাই, আপনাকে সিলেকট  করতে হবে আপনি পার্ট টাইম জব হিসেবে কি কি করতে চান।

2. ছাত্র জীবনে পার্ট টাইম জব | পার্ট টাইম জব মিরপুর, ঢাকা ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর


যারা একটু মেধাবী তারা পার্ট টাইম জব হিসেবে নিজের অবস্থানকে বিবেচনা করেন। নিজের অবস্থান বিবেচনা করে পার্ট টাইম সব সিলেক্ট করতে পারলে আপনার দারুণ একটি ভবিষ্যৎ অপেক্ষা করবে। নতুবা আপনি কাজ করে যাবেন কিন্তু আপনার ভবিষ্যৎ তৈরি হবে না। তাই ছাত্র জীবনে সবাই এমন একটি পার্ট টাইম জব করতে চান যেন তার পড়াশোনার কোনো ক্ষতি না হয়। 

আর বিশেষ করে এই সকল শিক্ষা খাতের জন্য ঢাকা মোহাম্মদপুর ধানমন্ডি বা মিরপুর একটি আদর্শ স্থান। কেননা ঢাকা মিরপুর ধানমন্ডি মোহাম্মদপুর এ সকল স্থান বাংলাদেশের সবচেয়ে জনবহুল এলাকা তাই এখানে মানুষের চাপ যেমন বেশি ফলে এখানে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বেশি এবং যারা সবাই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে বিভিন্ন কোচিং সেন্টার বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযুক্ত। এক্ষেত্রে প্রায় সবাইকেই দেখা যায় শিক্ষার সাথে সংযুক্ত এমন কোন পার্টটাইম জব তারা খোঁজ করে থাকেন। ছাত্র জীবনে অধিকাংশই বিভিন্ন শিক্ষা খাতের সাথে সম্পর্কিত পার্ট টাইম জব করে থাকেন। যেমন,

 টিউশন

ঢাকা, মিরপুর, ধানমন্ডি বা মোহাম্মদপুর এ সকল স্থানে টিউশনের চাহিদা অনেক বেশি। বলা যেতে পারে বাংলাদেশে  টিউশনের জন্য সবচেয়ে বেশি টাকা সম্মানী প্রদান করে থাকে  মিরপুর ধানমন্ডি বা মোহাম্মদপুর এ সকল স্থানের অভিভাবকরা।

টিউশনের জন্য কত টাকা দেয়

মিরপুর ধানমন্ডি মোহাম্মদপুর অর্থাৎ ঢাকার আশেপাশের এলাকায় সাধারণত সর্বনিম্ন ৩০০০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১৫,০০০ থেকে ২০,০০০ টাকা পাওয়া যায় শুধু টিউশনি করিয়ে প্রতিমাসের বেতন হিসেবে। যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বা বুয়েটে পড়াশোনা করেন তাদের সম্মানে সাধারণ শিক্ষার্থীদের চেয়ে একটু বেশি হয়ে থাকে। তাছাড়া অন্যান্য শিক্ষার্থীদের জন্য বেতন কাঠামোটা নিম্নোক্ত রকম হয়ে থাকে-
বুয়েটের শিক্ষার্থীদের বেতন- ১০,০০০ - ২০,০০০ টাকা
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের বেতন- ৩,০০০ - ১৫,০০০ টাকা
অন্যান্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের বেতন - ২,০০০ - ৮,০০০ টাকা
উপরিউক্ত বেতন কাঠামো ধারণার উপর নির্ভর করে বলা হয়েছে কম-বেশি হতে পারে।

কোচিং সেন্টারে ক্লাস নেওয়া

বর্তমানে বিভিন্ন অ্যাকাডেমি কোচিং সেন্টারে বা ইউনিভার্সিটি এডমিশন কোচিং সেন্টারে ক্লাস নিয়ে বেশ মোটা অংকের টাকা পাওয়া যায়। আপনি দিনে তিন থেকে চারটি বা দুই থেকে তিনটি ক্লাস নিয়ে মোটামুটি টাকা ইনকাম করতে পারবেন ফার্মগেট, মিরপুর, ধানমন্ডি বা মোহাম্মদপুর এর বিভিন্ন কোচিং সেন্টারের শাখা থেকে।
 কোচিং সেন্টারে ক্লাস নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রথমে আপনাকে অভিজ্ঞ হতে হবে তাই প্রথম দিকে খুব বেশি টাকা আয় করতে না পারলেও আপনি যখন অভিজ্ঞ হবেন তখন মোটা অংকের টাকা আয় করতে পারবেন। শুরুর দিকে দেখা যায় প্রতিটি ক্লাস নেওয়ার জন্য ৫০ টাকা থেকে শুরু করে ১০০ টাকা পর্যন্ত বিভিন্ন কোচিং সেন্টার আপনাকে প্রদান করে থাকবে। কিন্তু আপনার জনপ্রিয়তা এবং অভিজ্ঞতার আলোকে ধীরে ধীরে এই টাকার অংকটা বাড়তে থাকবে। একসময় দেখা যাবে আপনি একটি ক্লাস নেওয়ার জন্য কোচিং সেন্টার আপনাকে তিন থেকে চার হাজার টাকা বা ১০ হাজার টাকাও প্রদান করে থাকে। 

বই লিখে আয়

ছাত্র জীবনে বেশ কিছু মাধ্যমে টাকা আয় করা যায় তার মধ্যে অন্যতম হলো বই লিখে আয় করা। এ ধরনের পার্ট টাইম জব সাধারনত ঢাকার বিভিন্ন অঞ্চলে অর্থাৎ, মিরপুর, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি, মতিঝিল ও ফার্মগেট এ খোঁজ পাওয়া যায়। 
এখানে মূলত আপনাকে বিভিন্ন একাডেমিক গাইড বা অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায় বিভিন্ন ইউনিভার্সিটি এডমিশনের জন্য বই লেখার প্রয়োজন হয়। বিশেষ করে বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান, গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, আইসিটি ইত্যাদি বিষয়ক বই লিখতে হতে পারে যারা অভিজ্ঞ তাদের জন্য এটা একটা সুবর্ণ সুযোগ।

কোর্স করিয়ে আয়

আমি যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে প্রথম ভর্তি হয়ে তখন এই কোর্স করিয়ে আয় করার একটা বড় সুযোগ আমার এসেছিল। এই বিষয়ে মোটামুটি ভালো একটা অভিজ্ঞতা আমার রয়েছে। এখানে মূলত আপনাকে বাংলা ব্যাকরণ, বাংলা প্রথম পত্র, ইংরেজি, গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, আইসিটি ইত্যাদি একাডেমিক বিষয়ে আলাদা আলাদা করে ভিডিও বানিয়ে বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা ইউটিউব চ্যানেলের সংগঠনের কাছে আপনি বিক্রি করতে পারবেন সুলভ মূল্যে। 

3. গৃহিণীদের পার্ট টাইম জব | পার্ট টাইম জব মিরপুর, ঢাকা ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর

ঢাকা অর্থাৎ মিরপুর, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর বা উত্তরাতে গৃহিণীদের পার্ট টাইম জব পাওয়াটা অনেক কঠিন। গৃহিণীদের পার্ট টাইম জব হিসেবে আর্টিকেল লেখা অনেকটা সহজ। কেননা গৃহিণীরা মিরপুর, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর, বা  উত্তরাতে অফিসে গিয়ে পার্ট টাইম জব করাটা অনেক কঠিন। কারণ গৃহিণীদের পার্ট টাইম জব করার পাশাপাশি নিজের সংসার সামলাতে হবে অর্থাৎ গৃহিনীদের পার্ট টাইম জব হিসেবে এমন সব জব পারফেক্ট হবে যেগুলো বাসায় বসে করা যায়। 

তার মধ্যে অন্যতম আর্টিকেল রাইটার হিসেবে পার্ট টাইম জব করা। আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জব করতে চাইলে আপনারা আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। আমাদের ওয়েবসাইটে আপনার আর্টিকেল লিখে আয় করতে পারবেন। এক্ষেত্রে পার্ট টাইম জব পাওয়ার জন্য আপনাকে। ঢাকার বিভিন্ন স্থানে অর্থাৎ মিরপুর, ধানমন্ডি , মোহাম্মদপুর, উত্তরাতে যাওয়ার প্রয়োজন পড়বে না।

4. চাকুরী প্রার্থীদের পার্ট টাইম জব | পার্ট টাইম জব মিরপুর, ঢাকা ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর

চাকরি প্রার্থীদের জন্য মিরপুর, ঢাকা, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর বা উত্তরার এমন সব জব করা উচিত যেগুলো তার চাকরির জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে। অর্থাৎ একই সাথে কিছু টাকা ইনকাম যেমন করা যাবে সেই সাথে চাকুরীর যে পড়াশোনা সেটার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সহায়ক ভূমিকা রাখবে। তাই মিরপুর ধানমন্ডি ঢাকা মোহাম্মদপুর বা উত্তরা এমন সব জব করা যাবে না যেগুলো অফিসে বসে বেশি সময় ব্যয় করতে হবে। বা যে জবগুলো করে চাকুরীর পড়াশোনার জন্য কোন উপকার হবে না এমন সব জব বাদ দেওয়া উচিত বা না করাই চাকরিপ্রার্থীদের জন্য কল্যাণকর।
চাকরি প্রার্থীরা সাধারণত ঢাকা তথা, মিরপুর, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর বা উত্তরাতে টিউশন করে পার্ট টাইম জব বা টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এতে করে আপনার চাকুরির পড়াশোনার ক্ষেত্রেও একটা সহায়ক ভূমিকা রাখবে এবং কিছু টাকাও আপনি ইনকাম করতে পারবেন।

5. বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠনের পার্ট টাইম জব | পার্ট টাইম জব মিরপুর, ঢাকা ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর

যারা মিরপুর, ঢাকা, ধানমন্ডি, মোহাম্মদপুর বা উত্তরাতে পার্ট টাইম জব খুঁজছেন তাদের জন্য সুখবর। সুখবর এজন্যই বলছি যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংগঠন আপনাদের জন্য ব্যবস্থা করেছে আর্টিকেল রাইটিং করার মাধ্যমে। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিচালিত আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন The DU Speech এর  পক্ষ থেকে পার্ট টাইম জব অফার করা হচ্ছে। পার্ট টাইম জব এর জন্য বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান এই ঢাকা  বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিচালিত আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন। আমাদের সংগঠনে আমরা মূলত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আর্টিকেল লেখা শেখায় এবং পার্ট টাইম জবের ব্যবস্থা করে থাকি। পাশাপাশি অনান্য সাধারণের জন্যও পার্ট টাইম জবের ব্যবস্থা করে থাকি। যারা ঢাকা তে পার্ট টাইম জব অনুসন্ধান করছেন তাদের জন্য এই আর্টপার্ট টাইম জব প্রদানের পূর্বে আমরা আগ্রহীদের ট্রেইনিং প্রদান করে থাকি। The DU Speech এর পার্ট টাইম জব সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে সম্পুর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার আহবান রইল।  


এই আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জব শুধু মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের জন্য। আর্টিকেল লেখার জন্য আপনার মোবাইল ফোনের র‍্যাম ও রোম সর্বনিম্ন ৩জিবি ও ৬৪জিবি হতে হবে। এর কম হলে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে পারেন যেমন- লেখার সময় ফোন স্লো হয়ে যেতে পারে।

The DU Speech সম্পর্কে জানুন (যে অংশ পড়তে চান তার উপর ক্লিক করুন)

  1. The DU Speech কী ? 
  2. পার্ট টাইম জব মূলত কী? কেমন? 
  3. পার্ট টাইম জবের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আবেদন করবে কীভাবে?
  4. পার্ট টাইম জবের জন্য সাধারণ মানুষ আবেদন করবে কীভাবে?
  5. কোন বিষয়ে লিখবেন?
  6. আবেদনের পর ট্রেইনিং করবেন কীভাবে?
  7. ট্রেইনিং এ কী কী শেখানো হবে?
  8. ট্রেইনিং এর টাস্ক জমা দিবেন কীভাবে?
  9. বেতন কত?
  10. প্রেমেন্ট পাওয়ার উপায়
  11. আমাদের উদ্দেশ্য
১. The DU Speech কী ? পার্ট টাইম জব ঢাকা ২০২২
মনে করুন আপনি জানেন , অনলাইনে কীভাবে আয় করা যায় । এখন আপনি যদি উক্ত বিষয়ে লেখালেখি করে আয় করতে পারেন আপনার কেমন লাগবে? অবশ্যই ভালো লাগবে তাই না। ঢাকা   বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন The DU Speech যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আর্টিকেল লেখা শেখায় এবং পার্ট টাইম জব  প্রদান করে থাকে। পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরের শিক্ষার্থীদের আর্টিকেল লেখা শেখানো এবং পার্ট টাইম জব প্রদান করে।
 এই সংগঠন সাধারণ শিক্ষার্থীদের SEO ভিত্তিক আর্টিকেল রাইটিং শেখানোর মাধ্যমে স্কিল ডেভোলপমেন্ট এবং পড়াশোনার পাশাপাশি আর্টিকেল লিখে পার্ট টাইম জব করে পড়াশোনার পাশাপাশি আয় করতে সক্ষম হবে।
এই সংগঠনের সদস্যদের আর্টিকেল রাইটিং এবং পার্ট টাইম জব প্রদান করার পাশাপাশি যে কোন সমস্যায় সাহায্য প্রদান করে থাকে ।  অনেকে আছে যারা তাদের পড়াশোনার পাশাপাশি আর্টিকেল লেখায় দক্ষ্য বা আগ্রহী আমরা তাদের আর্টিকেল লেখা শেখায়। সর্বোপরি আমরা একটি পরিবারের মতো। পার্ট টাইম জব বা আর্টিকেল লেখা শিখতে আপনার আগ্রহ আমরা বিবেচনা করব। 

২. পার্ট টাইম জব মূলত কী ? কেমন? পার্ট টাইম জব ঢাকা
আমরা অনেক সময় বিভিন্ন বিষয়ে জানার জন্য গুগলে সার্চ করি উক্ত বিষয় লিখে । ধরুন আপনি বিদেশ যেতে চান কিন্তু বিদেশ যাওয়ার বিভিন্ন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানেন না তখন আপনি হয়তো গুগলে এসে সার্চ করবেন "বিদেশ যাওয়ার উপায়" বা "বিদেশ যাওয়ার প্রক্রিয়া লিখে" এবং গুগলে যে তথ্য সমূহ পেয়ে থাকেন তা গুগলের নিজের নয় , উক্ত তথ্য  কাউকে না কাউকে ওয়েবসাইটে  লিখতে হয়। এবং এই লেখাটা এলোমেলো বা ইচ্ছেমতো লিখলে গুগলে সার্চ দেওয়ার পর গুগলে খুজে পাবেন না মানে সোজা কথায় কিছু নীতিমালা আছে যা না মেনে ইচ্ছেমতো লিখলে আপনার লেখা গুগলে র‍্যাংক করবে না। 
গুগলে র‍্যাংক না করলে উক্ত বিষয়ে কেউ সার্চ করলেও আপনার লেখা আর্টিকেল কেউ খুজে পাবে না মানে পড়তেও পারবে না । তাই সহজ কথায় আপনাকে SEO শিখতে হবে। এবং আর্টিকেল লেখার সময় বা আর্টিকেল লেখার পার্ট টাইম জবের সময় SEO শেখাটা আবশ্যিক। আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের ক্ষেত্রে আপনি যতো ভালো মানের SEO শিখবেন পার্ট টাইম জবের ক্ষেত্রে আপনার চাহিদা ততই বেড়ে যাবে। 
তাই আমরা আগ্রহীদের শেখায় কীভাবে একটি আর্টিকেল গুগলে র‍্যাংক করে? কীভাবে লেখায় SEO করতে হয়?   কীভাবে একটি লেখা গুগলে সার্চ রেজাল্টে সামনে এগিয়ে থাকবে?  যারা পার্ট জব করতে আগ্রহী তাদের আমরা SEO এবং আর্টিকেল লেখার কিছু নিয়ম শেখাবো সেগুলো আয়ত্ত করতে পারলে তাকে আমরা নির্দিষ্ট টপিকে লিখতে দেবো । 


৩. পার্ট টাইম জবের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আবেদন করবে কীভাবে? পার্ট টাইম জব ঢাকা
আমাদের সংগঠন মূলত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন। আমাদের এই আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন এ যোগ দিতে চাইলে বা সদস্য হয়ে কাজ করতে চাইলে কিছু ধাপ আপনাকে অনুসরণ করতে হবে। 
  • রেজিস্ট্রেশন
  • কোর্স জামানত ফি
  • ট্রেনিং গ্রহণ
  • চারটি আর্টিকেল জমা দেওয়া
  • সার্টিফিকেট
  • জামানত ফি ব্যাক
  • পেইড রাইটার হিসেবে নিয়োগ
রেজিস্ট্রেশন|পার্ট টাইম জব ঢাকা
আমাদের সংগঠনের সদস্য হতে প্রথমেই আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। আমাদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া অনলাইন এবং অফলাইন দুই মাধ্যমেই সম্পাদন করতে পারবেন। অফলাইনে করতে চাইলে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য দিয়ে আপনাকে একটা ফরম পূরণ করতে হবে এবং রেজিস্ট্রেশন ফি 100 টাকা প্রদান করতে হবে। আপনি যদি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে চান, তাহলে নিচের ফর্মে গিয়ে সঠিক তথ্য প্রদান করে বিকাশ নম্বরে(01789699509) 105 টাকা সেন্ড মানি করবেন। এভাবে আপনি আপনার রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন। আপনার রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হলে আমরাই ৭২ ঘন্টার মধ্যে আপনার সাথে যোগাযোগ করব। কোন কারণে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হলে 01789699509 নম্বরে যোগাযোগ করবেন।

কোর্স জামানত ফি! পার্ট টাইম জব ঢাকা
আপনার রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট হলে আপনাকে 01789699509 নম্বরে কোর্স জামানত ফি হিসেবে 500 টাকা প্রদান এবং কোর্স জামানত ফি এর ফরম পূরণ করতে হবে। সফলভাবে কোর্স সম্পন্ন করতে পারলে এই টাকা আপনাকে সম্পূর্ণ ফেরত দেওয়া হবে। আমরা মূলত এই টাকাটা জামানত হিসেবে নিয়ে থাকি সফলভাবে কোর্স সম্পন্ন করার উদ্দেশ্যে। এমন অনেকেই আছেন যারা ইতিপূর্বে কিছুদিন ক্লাস করার পর বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে কোর্স সম্পন্ন করেন নি তাই আমাদের এই প্রক্রিয়াটা অনুসরণ করতে হয়। কোর্স জামানত ফি প্রদানের পর আপনাকে নিচের এই ফরম পূরণ করতে হবে।

ট্রেইনিং গ্রহণ| পার্ট টাইম জব ঢাকা
রেজিস্ট্রেশন এবং কোর্স জামানত ফি প্রদান প্রক্রিয়া সঠিকভাবে সম্পন্ন করতে পারলে আপনাকে আর্টিকেল রাইটিং এর উপর একটি কোর্স ট্রেনিং প্রদান করব আমরা। উক্ত ট্রেইনিং এ আপনাকে SEO (এসইও) সহ আর্টিকেল লেখার বিভিন্ন নিয়ম নীতি শেখানো হবে। আর্টিকেল রাইটিং এর বাইবেল খ্যাত এই ট্রেনিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক ভাবে মনোযোগ দিয়ে ট্রেনিং কমপ্লিট করতে পারলে আপনি ভালো মানের আর্টিকেল লিখতে পারবেন। 

চারটি আর্টিকেল জমা দেওয়া | পার্ট টাইম জব ঢাকা
আপনার ট্রেনিং কম্পিলিট হলে আমরা আপনাকে চারটি টাইটেল প্রদান করব।  আপনারা সঠিকভাবে সমস্ত নিয়ম মেনে চারটি আর্টিকেল লিখে জমা দেওয়ার পর আপনার ট্রেনিং সফলভাবে শেষ হয়েছে বলে আমরা বিবেচনা করবো। চাকরি আর্টিকেল সকল নিয়ম কানুন মেনে জমা দিতে ব্যর্থ হলে কোর্স জামানত ফি ফেরত পাওয়ার জন্য আপনি অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। 

সার্টিফিকেট| পার্ট টাইম জব ঢাকা
আপনি সফলভাবে সকল নিয়ম কানুন মেনে চারটি আর্টিকেল লিখে জমা দেওয়ার পর আমরা আপনার সাথে যোগাযোগ করব। রেজিস্ট্রেশন,  কোর্স ফি, চারটি আর্টিকেল লিখে জমা দেওয়া এই প্রক্রিয়াগুলো সফলভাবে সম্পন্ন করার পর আপনাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন 'The DU Speech' থেকে সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। যা আপনার পরবর্তী কর্মক্ষেত্রে অভিজ্ঞতার দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

জামানত ফি ফেরত| পার্ট টাইম জব ঢাকা
সফলভাবে 4 টি আর্টিকেল লিখে জমা দেওয়ার পর আপনার ট্রেনিং সম্পন্ন হবে। ট্রেনিং সম্পূর্ণ হওয়ার পর আমাদের সংগঠন থেকে আপনাকে একটি সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। এরপূর্বে জমা দেওয়া কোর্স জামানত ফি 500 টাকা আপনাকে সার্টিফিকেট এর সাথে ফেরত দেওয়া হবে। 

পেইড রাইটার হিসেবে নিয়োগ| পার্ট টাইম জব ঢাকা
আপনি সফলভাবে কোর্স সম্পূর্ণ করতে পারলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আর্টিকেল রাইটিং সংগঠন 'The DU Speech'  এর পক্ষ থেকে আপনাকে পেইড রাইটার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হবে। আমরা আপনাকে নির্দিষ্ট টপিক বা টাইটেল সিলেক্ট করে দেব এবং আপনি উক্ত টাইটেলে আর্টিকেল লেখার সমস্ত নিয়ম কানুন মেনে আর্টিকেল লিখে আয় করতে পারবেন।



৪. পার্ট টাইম জবের জন্য সাধারণ মানুষ আবেদন করবে কীভাবে? পার্ট টাইম জব ঢাকা
 যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নন কিন্তু আর্টিকেল লিখতে আগ্রহী তাদের হতাশ হওয়ার কিছু নেই তাদের জন্যও লেখালেখি করে পার্ট টাইম জবের ব্যবস্থা রয়েছে। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মতো সমান সুযোগ-সুবিধা আপনারা পাবেন না। আর্টিকেল রাইটিং কোর্স ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ফ্রী হলেও সাধারণ শিক্ষার্থী বা সাধারণ জনগণের জন্য আর্টিকেল রাইটিং কোর্স ফ্রী নয়। পার্ট টাইম জবের জন্য আপনাকে বেশ কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করতে হবে।
  • রেজিস্ট্রেশন
  • কোর্স  ফি
  • ট্রেনিং গ্রহণ
  • চারটি আর্টিকেল জমা দেওয়া
  • সার্টিফিকেট।।
  • পেইড রাইটার হিসেবে নিয়োগ
রেজিস্ট্রেশন! পার্ট টাইম জব ঢাকা
পার্ট টাইম আর্টিকেল রাইটিং জবের জন্য আপনাকে প্রথমেই রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। আজকের রাইটিং পার্ট টাইম জবের  রেজিস্ট্রেশন করার জন্য নিচে প্রদত্ত গুগোল ফর্মে নির্ধারিত তথ্য দিয়ে পূরণ করুন। গুগোল ফরম পূরণ করার পূর্বে (01789699509 - Baksh or Nagad) নম্বরে 102 টাকা সেন্ড মানি করবেন। এটা আমাদের রেজিস্ট্রেশন ফি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মতোই পার্ট টাইম জবের জন্য আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

কোর্স ফি ! পার্ট টাইম জব ঢাকা
আপনার রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট হয়ে গেলে আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য আপনাকে 01789699509 (Bkash or Nagad) নম্বরে কোর্স ফি প্রদান করতে হবে 255 টাকা। এটা আমাদের আর্টিকেল রাইটিং কোর্স ফি। কোর্স ফি পরিশোধ করার পর নিচের কোর্স ফি প্রদানের লিংকে গিয়ে সঠিক তথ্য দিয়ে গুগোল ফরমটি পূরণ করুন। কোর্স ফি পরিশোধ এবং সঠিকভাবে গুগোল ফর্ম পূরণ শেষে আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য আমরা আপনাদের সাথে যোগাযোগ করবো। এবং আমরা আপনাদেরকে ট্রেনিং ভিডিও এর লিঙ্ক পাঠাবো। 

ট্রেনিং গ্রহণ! পার্ট টাইম জব ঢাকা
আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য আমরা আপনাদেরকে একটি ট্রেইনিং প্রদান করব। উক্ত ট্রেনিং এ কিভাবে আর্টিকেল লিখতে হয় কিভাবে এসইও(SEO) শিখতে হয়? এবং এসইও (SEO) সেট আপ করতে হয়? অর্থাৎ আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য প্রয়োজনীয় সকল নিয়ম কানুন এই জন্যই ভিডিওতে আপনাদের শেখানো হবে। সঠিকভাবে রেজিস্ট্রেশন এবং কোর্স ফী জমা দেওয়ার কার্যক্রম শেষ করলে আমরাই আপনাদের সাথে যোগাযোগ করবো। এবং আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের ট্রেইনিং ভিডিও এর লিংক আপনাদের প্রদান করব।

4 টি আর্টিকেল লিখে জমা দেওয়া!পার্ট টাইম জব ঢাকা
ট্রেইনিং ভিডিও দেখা কমপ্লিট হয়ে গেলে আমরা আপনাদেরকে চারটি আর্টিকেল এর টাইটেল সিলেক্ট করে দেবো। উক্ত ৪টি আর্টিকেল ট্রেনিং ভিডিওতে দেখানো নিয়ম অনুযায়ী লিখে জমা দিতে হবে। এই চারটি আর্টিকেল আপনি যদি সঠিকভাবে জমা দেন তাহলে আমরা আপনাদেরকে পেইড রাইটার হিসেবে আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জব এ নিয়োগ প্রদান করব।

সার্টিফিকেট!পার্ট টাইম জব ঢাকা
সঠিকভাবে কোর্স কমপ্লিট করতে পারলে অর্থাৎ 4 টি আর্টিকেল লিখে জমা দিতে পারলে আমরা আপনাদেরকে আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জব এ নিয়োগ প্রদান করব। আপনি সফলভাবে এক মাস আমাদের সাথে কাজ করতে সক্ষম হলে আপনাকে অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। 

পেইড রাইটার হিসেবে নিয়োগ! পার্ট টাইম জব ঢাকা
আজকের রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য আপনাকে মনোনীত করার পর আপনাকে দেই কিনা এটা হিসেবে আমাদের ওয়েবসাইটে নিয়োগ দেওয়া হবে। প্রতিটি আর্টিকেল লেখার জন্য আপনি 50 টাকা থেকে শুরু করে 100 টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জব এর একটি আর্টিকেল লেখার v9 কত টাকা পাচ্ছেন তা নির্ভর করবে আপনার দক্ষতার উপর।


৫. কোন বিষয়ে লিখবেন? পার্ট টাইম জব ঢাকা
আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জব এ আপনাদের মূলত SEO ভিত্তিক আর্টিকেল লিখতে হয়। অর্থাৎ সাধারণ মানুষ যে সকল বিষয় লিখে গুগলে সার্চ করে আমাদের উক্ত টপিকে লিখতে হয়। আপনি কোন বিষয়ে লিখবেন তা আমরা নির্ধারণ করে দেবো। মনে করুন আপনি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হতে চান আপনি গুগলে লিখলেন 'ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার তথ্য' তাহলে আমরা এই টপিকে আর্টিকেল লিখব। অর্থাৎ সাধারণ মানুষ গুগলে যে সকল বিষয় লিখে সার্চ করে আমরা সেই সকল বিষয়ে আর্টিকেল লিখব।

৬. আবেদনের পর ট্রেইনিং করবেন কীভাবে? পার্ট টাইম জব ঢাকা
ট্রেইনিং কার্যক্রম আমরা অনলাইনে পরিচালনা করে থাকি। আপনি রেজিস্ট্রেশন এবং কোর্স ফি প্রদানের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করলে আমরা আপনাদের সাথে যোগাযোগ করে ট্রেনিং ভিডিও এর লিংক আপনাকে প্রদান করব। উক্ত ট্রেনিং ভিডিও এর লিঙ্ক এ প্রয়োজনীয় নিয়মকানুন শেখানোর বেশ কয়েকটি ভিডিও পাবেন আপনি উত্তর ভিডিও দেখে আর্টিকেল লেখা শিখবেন। আমরা আপনাকে ট্রেনিং ভিডিওর লিংক এবং চারটি আর্টিকেল এর টাইটেল প্রদান করব আপনাকে এক মাসের মধ্যে ট্রেনিং ভিডিও দেখে নিয়ম অনুযায়ী চারটি আর্টিকেল লিখে জমা দিতে হবে।

 নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আর্টিকেল লিখে জমা দেওয়ার পর আমরা আপনার আর্টিকেল রিভিউ করে দেখব আপনি নিয়ম অনুযায়ী আর্টিকেল লিখেছেন কিনা। আপনি নিয়ম অনুযায়ী আর্টিকেল না লিখলে আপনাকে আরো একদিন সময় দেওয়া হবে ভুলগুলো ঠিক করার জন্য। উক্ত সময়ের মধ্যে ভুল ঠিক না করলে আমাদের পক্ষ থেকে আর কিছু করার থাকবে না আপনি আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। এবং সঠিকভাবে চারটি আর্টিকেল লিখে জমা দেওয়ার পর আমরা আপনাকে আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য মনোনীত করব।

৭. ট্রেইনিং এ  কী কী শেখানো হবে? পার্ট টাইম জব ঢাকা
ট্রেইনিং এ মূলত SEO এবং আর্টিকেল লেখার বিভিন্ন নিয়ম কানুন শেখানো হয়ে থাকে;
  • SEO 
  • কি-ওয়ার্ড সেটআপ করার নিয়ম
  • টাইটেল লেখার নিয়ম
  • কাস্টম পার্মালিংক সেটআপ
  • লেবেল সেটআপ
  • ভূমিকা বাটন
  • ভূমিকা লেখার নিয়ম
  • এলাইনমেন্ট লেখার নিয়ম
  • থাম্বনেইল পিকচার এডিট ও এড করার নিয়ম
  • সূচিপত্র লেখার নিয়ম
  • শিরোনাম লেখার নিয়ম
  • আর্টিকেল সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর লেখার নিয়ম
  • লেখক এর মন্তব্য লেখার নিয়ম

৮. ট্রেইনিং এর টাস্ক জমা দিবেন কীভাবে? পার্ট টাইম জব ঢাকা
আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য আপনাকে আমাদের ওয়েবসাইটে লেখক হিসেবে অ্যাড করার পার আপনি আমাদের ওয়েবসাইটে লেখালেখি করার এক্স এক্সসেস পেয়ে যাবেন। আপনি সকল নীতিমালা মেনে চারটি আর্টিকেল লেখার পর আমাদের 017896995090 নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপ করবেন নিম্নোক্ত পদ্ধতিতে।
'article submitted for review
আর্টিকেল এর টাইটেল
ওয়েব সাইটে প্রদত্ত  আপনার নাম'
উক্ত নিয়ম অনুযায়ী আমাদেরকে হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ করলে আমরা আপনার আর্টিকেল রিভিউ করে দেখব যে আপনি সফল নীতিমালা মেনে আর্টিকেল লিখেছেন কিনা! যদি আপনি নীতিমালা মেনে আর্টিকেল লিখেন তাহলে আপনাকে আমাদের ওয়েবসাইটে আর্টিকেল রাইটিং পার্ট টাইম জবের জন্য মনোনীত করা হবে।

৯. বেতন কত? পার্ট টাইম জব ঢাকা
আপনার অভিজ্ঞতার ওপর বেতন নির্ভর করবে সাধারণত 50 টাকা থেকে শুরু হবে। অর্থাৎ প্রতিটি আর্টিকেল লেখার বিনিময় 50 টাকা পাবেন। দশটি আর্টিকেল লেখা কমপ্লিট হলে 017896999509 নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপ করবেন নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করে;

'10 article submitted for review'
আর্টিকেল এর টাইটেল
ওয়েব সাইটে প্রদত্ত আপনার নাম
বিকাশ|নগদ নম্বর'

উপরিউক্ত নিয়ম অনুযায়ী আমাদেরকে মেসেজ করা হলেই আমরা রিভিউ করে আপনার বিকাশ নাম্বারে 500 টাকা পাঠিয়ে দেবো।


১০. প্রেমেন্ট পাওয়ার উপায়| পার্ট টাইম জব ঢাকা
আমরা মূলত আপনাকে বিকাশে অথবা নগদে প্রেমেন্ট করব।দশটি আর্টিকেল লেখা কমপ্লিট হলে 017896999509 নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপ করবেন নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করে;

'10 article submitted for review'
আর্টিকেল এর টাইটেল
ওয়েব সাইটে প্রদত্ত আপনার নাম
বিকাশ|নগদ নম্বর'

উপরিউক্ত নিয়ম অনুযায়ী আমাদেরকে মেসেজ করা হলেই আমরা রিভিউ করে আপনার বিকাশ নাম্বারে 500 টাকা পাঠিয়ে দেবো।

১১. আমাদের উদ্দেশ্য ! পার্ট টাইম জব ঢাকা
আমরা চাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গুগলে অবদান রাখুক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে প্রতিটি পর্যায়ে বিশেষ অবদান রাখলেও গুগল এ তেমন উল্লেখযোগ্য কোনো অবদান রাখতে সক্ষম হয়নি।
আমরা যখন আমাদের প্রয়োজন এর জন্য গুগলে বিভিন্ন বিষয় লিখে সার্চ করি, তখন অনেক সময় দেখা যায় আমরা সঠিক তথ্য না পেয়ে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ঘোরাঘুরি করি। এতে গুগল ব্যবহারকারীরা অনেক বিড়ম্বনায় পড়েন। শিরোনাম থাকে একরকম কিন্তু ভেতরে তথ্য থাকে অন্যরকম। ঠিক এই বিড়ম্বনায় পড়েননি এমন কোনো মানুষ হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবে না। আমাদের উদ্দেশ্য সঠিক তথ্য প্রদান করে আমরা গুগলকে সমৃদ্ধ করব।
 ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের বিভিন্ন সেক্টরে যেমন গর্বের সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে তেমনি গুগলে অবদান রাখবে।


পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?