The DU Speech https://www.duspeech.com/2021/09/ban%20vs%20nz%20t20i.html

বাংলাদেশের ঘূর্ণি-পেস এ বেসামাল নিউজিল্যান্ড

 ঢাকার মিরপুরে আরও একবার শোনা গেলো বাঘের গর্জন। অস্ট্রেলিয়ার পর এবার টি টুয়েন্টির আরেক পরাশক্তি নিউজিল্যান্ডকে ভুপাতিত করল বাংলাদেশ। বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি টুয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ।


সু্যোগ পেলেন সোহান 

গেল অস্ট্রেলিয়া সিরিজে মুশফিকের অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশ দলে সু্যোগ পেয়েছিলেন নুরুল হাসান সোহান। সিরিজে ব্যাটিং ও বিশেষ করে কিপিংয়ে নজর কেঁড়েছিলেন তিনি। তার সুফল হিসেবে নিউজিল্যান্ড সিরিজের প্রথম টি টুয়েন্টির একাদশে কিপার-ব্যাটসম্যান হিসেবে জায়গা হয়েছে তার। কিপিং গ্লাভস তুলে রেখে মুশফিক খেলেছেন ব্যাটসম্যান হিসেবে। এই সিরিজটি সোহানের কাছে কিপার হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করার সু্যোগ। তার এরূপ নজরকাঁড়া কিপিং ও ব্যাটিং নৈপুণ্য আসন্ন টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে দেখাতে পারে সম্ভাবনা। 

বাংলাদেশ একাদশ :

নাঈম,লিটন,সাকিব, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ,নুরুল, মাহেদী, সাইফুদ্দিন, মুস্তাফিজ ও নাসুম।

নিউজিল্যান্ড একাদশ :

ব্লান্ডেল,রবীন্দ্র, ইয়ং, গ্র্যান্ডহোম, লাথাম, নিকোলস, ম্যাককোনখি, ব্র্যাসওয়েল, প্যাটেল, টিকনার ও ডাফি।

নিউজিল্যান্ড ইনিংসের টুকিটাকি 

মিরপুরে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় নিউজিল্যান্ড কাপ্তান টম লাথাম। তবে নিউজিল্যান্ডের জন্য আজকের ব্যাটিং ভাগ্য মোটেই সূখকর ছিল না। ম্যাচের প্রথম ওভারের ৩য় বলেই অভিষিক্ত রবীন্দ্রকে সাজঘরে পাঠান মাহেদী হাসান। ৩য় ওভারে আবারও বাংলাদেশকে ব্রেকথ্রু এনে দেন সাকিব আল হাসান। পাঁচ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন উইল ইয়ং। চতুর্থ ওভারে জোড়া ছোবল দেন নাসুম। টম ব্লান্ডেল ও গ্র্যান্ডহোমকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে পুরোপুরিভাবে ম্যাচের শাসনে আনেন তিনি। মাত্র ৯ রানে চার উইকেট হারিয়ে নিউজিল্যান্ড প্রায় ছিটকে যায় ম্যাচ হতে।



এরপর নিউজিল্যান্ড কাপ্তান লাথাম ও নিকোলস জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেয়ার চেষ্টা করলেও দলীয় ৪৪ ও ব্যক্তিগত ১৮ রানে লাথাম ক্যাচ দিলে সাইফুদ্দিনের শিকারে পরিণত হন তিনি। সেই সাথে ভাঙে ইনিংস সর্বোচ্চ ৩৫ রানের জুটি। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে সফরকারীরা। একমাত্র নিকোলস (১৮) ছাড়া আর কেউ বলার বত রানে পৌঁছাতে পারেননি। চরম ব্যাটিং ব্যর্থতায় ১৬.৫ ওভারে  মাত্র ৬০ রানে গুটিয়ে যায় নিউজিল্যান্ড ইনিংস। 

 ২.৫ ওভার বল করে মাত্র ১৩ রান খরচায় ৩ টি উইকেট নেন বাংলাদেশের বাহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। এছাড়া সাকিব,সাইফুদ্দিন ও নাসুম সমান ২ টি করে এবং মাহেদী তুলে নেন এক উইকেট। 

রান তাড়ায় দুর্বার টাইগাররা 

অল্প রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই খেই হারায় বাংলাদেশ। টি টুয়েন্টিতে বাংলাদেশের ওপেনিং সমস্যা যেন বারবার চোখে ধরা পড়ছে। ইনিংসের ২য় ওভারে অভিষিক্ত ম্যাককোনখি এর করা প্রথম বলেই সিলি মিড অনে সহজ ক্যাচ দেন নাঈম শেখ। পরের ওভারে প্যাটেলের শিকার হন গত সিরিজে দলের বাইরে থাকা লিটন দাশ। তিন ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৭/২।

তরে সেখান থেকে দলের ভার নেন অভিজ্ঞ সাকিব ও মুশফিক। বহুদিন দলের বাইরে থাকা মুশফিক খুব ধীর ও সহজেই মানিয়ে নেন। তারা দুজনে মিলে গড়েন ৩০ রানের জুটি। দলীয় ৩৭ রানে রবীন্দ্র এর বলে কিপারকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন সাকিব (৩৩ বলে ২৫ রান)। 



বাকি সময়টা কাপ্তান মাহমুদউল্লাহকে সাথে নিয়ে নির্ভয়ে পার করেন মুশফিক। বাংলাদেশ মাত্র ১৫ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে পৌঁছে যায় জয়ের বন্দরে। মুশফিক ১৬ ও মাহমুদউল্লাহ ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন। ব্যাট হাতে ২৫ এবং বল হাতে মাত্র ১০ রানে ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন সাকিব আল হাসান। 

পাঁচ ম্যাচ সিরিজের ২য় টি টোয়েন্টিতে শুক্রবার বিকাল চারটায় কিউইদের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। খেলা সরাসরি দেখাবে গাজী টিভি ও টি স্পোর্টস। 

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড :

নিউজিল্যান্ড  ৬০

(লাথাম ১৮, নিকোলস ১৮, মুস্তাফিজ ৩/১৩, নাসুম ২/৫, সাইফ ২/৭ সাকিব ২/১০) 

বাংলাদেশ  ৬২/৩

(সাকিব ২৫, মুশফিক ১৬*, মাহমুদউল্লাহ ১৪*, প্যাটেল ১/৭) 

ফলাফল : বাংলাদেশ ৭ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্যা ম্যাচ : সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ) 

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?