The DU Speech https://www.duspeech.com/2021/03/blog-post_4.html

ইউটিউব চ্যানেল শুরু করার কথা ভাবছেন? এদিকে আসুন!

 আমাদের   বিনোদনের মূল কেন্দ্র। এখনকার সময়ে সব ধরনের ভিডিও ইউটিউবে পাওয়া যায়,সব ধরনের বিনোদন ইউটিউবে পাওয়া যায়। ইউটিউব এ সকল ধরনের গান, মুভি, টিভি সিরিয়াল, নাটক, শর্ট ফিল্ম ইত্যাদি পাওয়া যায়।

ইউটিউব বর্তমান বিশ্বে আমাদের জন্য একটি বিশাল বড় নিয়ামক কারন এখানে আমরা পাচ্ছি একটি বিশাল আকৃতির প্লার্টফর্ম। আমরা সব কিছুই পেয়ে যাচ্ছি এই ইউটিউব এ।পড়াশোনা থেকে শুরু করে বিনোদন সব কিছুই পেয়ে যাচ্ছি ইউটিউবে।

ইউটিউব কে অনেকে যেমন বিনোদন কেন্দ্র হিসেবে বেছে নিয়েছে তেমনি  আবার ইউটিউব কে আয় করার মূল কেন্দ্র হিসেবেউ বেছে নিয়েছে। একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে বিভিন্ন ধরনের মজার ভিডিও তিনবার নাটক বানিয়ে আপনি ইউটিউব থেকে ভালো টাকা আয় করতে পারবেন। কিন্তু আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে কিভাবে আমি ইউটিউব খুলবো কিভাবে প্রথমে ইউটিউব চ্যানেল শুরু করবো। তবে  চিন্তার কোন কিছু নেই কারণ আজকে আমি ইউটিউব এ সমস্ত কিছু খুলে বলবো। ইউটিউব কিভাবে প্রথমে শুরু করতে হয় ইউটিউব কিভাবে খুলতে হয় তাই নিয়ে আলোচনা করব।

ইউটিউব চ্যানেল কেন খুলবেন?

 ইউটিউব চ্যানেল খোলার অনেক উপকারিতা আছে। একজন ভালো বন্ধুর মতোই ইউটিউব আমাদের সব সময় মজায় এবং হাসি খুশিতে রাখে। এটুকু আমাদের বোরিং জীবনকে আনন্দময় করে তোলে। ইউটিউব পাশে থাকলে সময় ভালো কাটে।শুধু বিনোদন নয় বন্ধুরা আপনারা এর পাশাপাশি কিছু পরিমান অর্থও উপার্জন করে ফেলতে পারবেন শুধু মাত্র কিছু শর্ত পূরণ করেই।এর জন্য আমাদের চ্যানেল এর মনিটাইজেশন অন রাখতে হবে।আর এই মনিটাইজিং কিভাবে অন করতে পারি আমরা সেটা নিয়েও আজ আলোচনা করে ফেলব।

 ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে শুরু করবেন

ইউটিউব চ্যানেল শুরু করার কিছু নিয়ম বা পদক্ষেপ নিচে দেওয়া হলঃ

  •  প্রথমত আপনাকে এটা চ্যানেল খোলার পূর্বে লক্ষ্য স্থির রাখতে হবে।যে আপনি কি বিষয়ে চ্যানেল খুলবেন।ভিত্তি টা কি হবে কিংবা কোন ধরনের ভিডিও আপনি আপলোড করবেন।একই চ্যানেল এ কেউ নিশ্চয়ই চাইবে না ইসলামিক কিছু থাক বা তার সাথে গান বাজনা থাক।তাই বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ন।

  • ইউটিউব চ্যানেল খোলার পূর্বে অনেক আসবাবপত্র লাগে যেমন ক্যামেরা, স্ট্যান্ড, লাইটিং ইত্যাদি আগে থেকেই  থেকেই রেডি করে রাখ বা কিনে রাখা।

  • সবকিছু ঠিক থাকলে এবার একটি ইউটিউব একাউন্ট খুলুন। ইউটিউব একাউন্ট খুলতে প্রথমে আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট থেকে ইউটিউব সেটআপ করুন তারপর ইউটিউব এর নাম দিন তারপর বিস্তারিত দিয়ে আপনার ইউটিউব ইউটিউব একাউন্ট খুলে নিন।

  • এবার আপনার একাউন্টে কাস্টমাইজেশন করুন কাস্টমাইজেশন করতে আপনার চ্যানেল আইকন, চ্যানেল আর্ট এবং কাস্টম থাম্বনেইলগুলি সম্পাদনা করুন এবং আপলোড করুন।চ্যানেলের বিবরণ যুক্ত করতে সম্পর্কিত ট্যাবে ক্লিক করুন।

  •  ইউটিউব চ্যানেল খুলতে সর্বপ্রথম আপনার দরকার একটি একশন ক্যামেরা বা ডিএসএলআর ক্যামেরা আরেকটি ভালো মাইক্রোফোন যাতে খুব সুন্দর ভয়েস রেকর্ডিং হয় আর লাইটিং এর ব্যবস্থা সুন্দর একটি জায়গা।

  • আপনি যখন ইউটিউবে প্রথম ভিডিও ছাড়বেন দেখবেন প্রথম ভিডিওটি যাতে খুব সুন্দর হয় কয়েক প্রথম একটি ভিডিও বানাবেন তারপর ওরা ভেতর থেকে যেটি সবচেয়ে ভালো হয় সেটি আপলোড করবেন কারণ প্রথম ভিডিওটি যদি ভাল হয় তাহলে সাবস্ক্রাইবার আপনার চ্যানেলের প্রতি আকৃষ্ট হবে।

  • আপনি চ্যালেনে আয় বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞপ্তি দিন।এতে করে আপনার চ্যানেল এর আয় দিন দিন বেড়েই যাবে। কারন আমরা হয়তো অনেকেই জানি যে ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জনের একমাত্র পথ হচ্ছে এই এডস।যত বেশি পরিমানে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল এ বিজ্ঞাপন থাকবে তত বেশি পরিমানে আমাদের উপার্জন হবে।

  • আপনার ইউটিউব চ্যানেলে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করতে থাকেন। কারণ নিয়মিত ভিডিও আপলোড করতে থাকলে সাবস্ক্রাইবার আপনার চ্যানেলে প্রতি আকৃষ্ট হবে। যদি আপনি ভিডিও আপলোড করা বন্ধ করে দেন তাহলে সাবস্ক্রাইবার আপনার চ্যানেল থেকে সরে যাবে। দেখবেন যেসব চ্যানেলে নিয়মিত ভিডিও আপলোড হয় সেসব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব অনেক বেশি থাকে।


তবে ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব বাড়ানোর জন্য ভালো মানের ভিডিও আপলোড করতে হবে এইচডি কোয়ালিটি এবং ভালো মানের ক্যামেরা ব্যবহার করতে হবে তার জন্য ডিএসএলআর ক্যামেরা ভালো মানের ক্যামেরা আর ভালো মানের ভিডিও ছাড়া ইউটিউবার হওয়া সম্ভব না। একটি ভাল মানের ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হলে আপনাকে উপরের বিষয়গুলো খুব ভালোভাবে পালন করতে হবে উপরের বিষয়গুলো থেকে যদি কোন একটি বাদ যায় তাহলে আপনার ইউটিউব চ্যানেল পরিপূর্ণ হয়ে উঠবে না একটি ইউটিউব চ্যানেল বেড়ে ওঠার পেছনে ভিডিও কোয়ালিটি সাউন্ড কোয়ালিটি  ওপর নির্ভর করে।


পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?